বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > ভারতে চিতা জ্বলছে, চিন রকেট পাঠাচ্ছে, করোনা নিয়ে বিতর্কিত পোস্ট কমিউনিস্ট পার্টির উইংয়ের
প্রতীকী ছবি (HT_PRINT)
প্রতীকী ছবি (HT_PRINT)

ভারতে চিতা জ্বলছে, চিন রকেট পাঠাচ্ছে, করোনা নিয়ে বিতর্কিত পোস্ট কমিউনিস্ট পার্টির উইংয়ের

ওই ছবি অবশ্য ডিলিট করে দেওয়া হয়েছে।চিনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিঙের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর কথোপকথনের পরই ওই পোস্টটি ডিলিট করে দেওয়া হয়।

ভারতে করোনা সংকটকালে যখন প্রতিদিন কয়েক হাজারের বেশি মানুষ মারা যাচ্ছেন, চিতা জ্বলছে, তখন সেই ছবির সঙ্গে রকেট উৎক্ষেপণের ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করে ব্যঙ্গ করার অভিযোগ উঠল চিনের বিরুদ্ধে। এর মাধ্যমে ভারতকে খাটো করারও অভিযোগ উঠেছে। চিনের এই ভূমিকা নিয়ে ইতিমধ্যে সারা দেশ জুড়ে নিন্দার ঝড় উঠেছে।যদিও পরে সোশ্যাল মিডিয়া থেকে ওই পোস্টটিকে ডিলিট করে দেওয়া হয়।

চিনের কমিশন ফর পলিটিক্যাল অ্যান্ড লিগ্যাল অ্যাফেয়ার্স কমিশনের কেন্দ্রীয় কমিটি গত শনিবার তাঁদের উইবো নামে সোশ্যাল অ্যাকাউন্টে দুটি ছবি পোস্ট করে। যা চিনা কমিউনিস্ট পার্টির একটি উইং। একটি ছবিতে দেখানো হয়, চিন রকেট উৎক্ষেপণ করছে। অন্যটিতে দেখা যায় ভারতে করোনা মহমারীকালে চিতা জ্বলছে।এই দুটি পাশাপাশি পোস্ট করে তার তলায় ক্যাপশান লেখা হয়েছে।তাতে লেখা হয়েছে, ‘‌চিন ইগনাইটেড ভার্সাস ইন্ডিয়া ইগনাইটেড’‌।

চিনের এই সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট নিয়ে এখন সাধারণ মানুষের মধ্যে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। লন্ডনের এক সাংবাদিক মেংউ ডঙ জানান, ভারতে করোনা মহামারী নিয়ে এই ধরনের ছবি পোস্ট করে মজা পাওয়া করা কী খুব ভালো?‌ এছাড়াও চিনা সংবাদমাধ্যম ডিজিটাল টাইমসের সূত্র ধরে জানা গিয়েছে, চিনের পলিটিক্যাল অনলাইনে ও তিয়ানজিন মিউনিসিপ্যাল পিপিলস প্রোকিউরোটোরেটে ভারতের মহামারী দশা নিয়ে ব্যঙ্গ করা একাধিক চিত্র প্রকাশিত হয়।

চিনের ভারতকে নিয়ে এভাবে ব্যঙ্গ করার রীতি নতুন নয়। এর আগে যখন ডোকলাম নিয়ে ভারত ও চিনের দ্বিপাক্ষীক সম্পর্কের অবনতি হয়, তখনও বর্ণবিদ্বেষী বক্তব্য রেখে একটি ভিডিয়ো প্রকাশ করা হয়েছিল। ইংরেজিতে তিন মিনিটের ওই ভিডিয়োটিতে একজন শিখের ইংরেজি বলার ধরনকে নানা অঙ্গভঙ্গি করে দেখানো হয়।

তবে অতি সম্প্রতি চিনের সোশ্যাল মিডিয়ায় ওই ছবি অবশ্য ডিলিট করে দেওয়া হয়েছে।চিনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিঙের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর কথোপকথনের পরই ওই পোস্টটি ডিলিট করে দেওয়া হয়েছিল। ওই কথোপকথনে চিন যে ভারতের মহামারী পরিস্থিতিতে ভারতের পাশে আছে, সেই বার্তাও দেওয়া হয়।

বন্ধ করুন