বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > মাছ-মুরগি ছেড়ে বেশি গোমাংস খান, জনসাধারণের কাছে আবেদন বিজেপি মন্ত্রীরর!
ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই
ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই

মাছ-মুরগি ছেড়ে বেশি গোমাংস খান, জনসাধারণের কাছে আবেদন বিজেপি মন্ত্রীরর!

  • মুরগি বা মাছের তুলনায় বেশি করে গোমাংশ খান। এমনই আবেদন করলেন অসমের বিজেপি বিধায়ক তথা মন্ত্রী সানবর শুল্লাই।

মুরগি বা মাছের তুলনায় বেশি করে গোমাংশ খান। অসমবাসীর কাছে এমনই আবেদন করলেন অসমের বিজেপি বিধায়ক তথা মন্ত্রী সানবর শুল্লাই। তাঁর যুক্তি, 'আমি মানুষজনকে আরও মাঠ বেশি করে গোমাংস খেতে বলি। এর থেকে প্রমাণ হবে যে বিজেপি গোমাংস নিষিদ্ধ করবে না। গোমাংস নিষিদ্ধ করার ভুল তথ্য মানুষ আর বিশ্বাস করবে না।' উল্লেখ্য, সানবর শুল্লাই অসম সরকারের পশুপালন ও পশুচিকিত্সা দফতরের দায়িত্ব গ্রহণ করেছেন।

এদিকে শিলংয়ের এই বিধায়ক মেঘালয়ের মানুষের কাছে বিজেপির সরকার গঠনের আবেদন করেন। বলেন, 'মেঘালয়ের ভোটাররা যদি আমাদের ৩৩টি আসন দেয় তাহলেই আমরা সরকার গঠন করব সেখানে। তাহলে দেখবেন সেখান থেকে দুধ আর মধু কত পরিমাণে উত্পাদিত হবে।' নাগাল্যান্ডের উদাহরণ টেনে তিনি বলেন, 'সেই রাজ্যে ৯০ শতাংশ ক্রিশ্চান। তাও সেখানে আমাদের দলের বিধায়ক সংখ্যা ১৩। উপমুখ্যমন্ত্রীও আমাদের দলের।'

অসম সরকারের পশুপালন ও পশুচিকিত্সা দফতরের মন্ত্রী সানবর শুল্লাই। 
অসম সরকারের পশুপালন ও পশুচিকিত্সা দফতরের মন্ত্রী সানবর শুল্লাই। 

উল্লেখ্য, গো-রক্ষার স্বার্থে নয়া আইন আনছে হিমন্ত বিশ্ব শর্মার সরকার। তাতে প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে যে, হিন্দু, জৈন, শিখ এবং যেসব সম্প্রদায় গোমাংস খান না, সেই সম্প্রদায়ের যেই এলাকায় বসবাস, সেখানে গোমাংস বিক্রি ও খাওয়ার উপর নিষিদ্ধ করা হবে। তাছাড়া বিলে আরও বলা হয়েছে যে কোনও মন্দিরের পাঁচ কিলোমিটারের মধ্যেও বিক্রি করা যাবে না। এরপরই বিরোধীরা অভিযোগ করে যে ধাপে ধাপে গোমাংস পুরোপুরি নিষিদ্ধ করতে চলেছে বিজেপি সরকার।

এদিকে এই আইন ভাঙলে ৩ লক্ষ টাকা জরিমানা করা হবে। তাছাড়া ৮ বছর পর্যন্ত কারাদণ্ড হতে পারে দোষীর। এদিকে কেউ একই অপরাধ দ্বিতীয়বার করলে জরিমানা দ্বিগুণ হয়ে যাবে। এই আইন লাগু হলে বাংলাদেশে গরু পাচার কমবে বলে আশা ব্যক্ত করেন মুখ্যমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্ব শর্মা।

বন্ধ করুন