বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > কবে থেকে নয়া ক্রেডিট কার্ড দেওয়া হবে? RBI-র কোর্টে বল ঠেলল HDFC ব্যাঙ্ক
লাগাতার প্রযুক্তিগত সমস্যার কারণে বিব্রত হয়ে গত বছরের ডিসেম্বরে ভারতের সর্ববৃহৎ বেসরকারি ব্যাঙ্কের বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ করেছে কেন্দ্রীয় ব্যাঙ্ক। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য মিন্ট)
লাগাতার প্রযুক্তিগত সমস্যার কারণে বিব্রত হয়ে গত বছরের ডিসেম্বরে ভারতের সর্ববৃহৎ বেসরকারি ব্যাঙ্কের বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ করেছে কেন্দ্রীয় ব্যাঙ্ক। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য মিন্ট)

কবে থেকে নয়া ক্রেডিট কার্ড দেওয়া হবে? RBI-র কোর্টে বল ঠেলল HDFC ব্যাঙ্ক

  • প্রযুক্তি নিয়ে রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়ার (আরবিআই) ৮৫ শতাংশ শর্ত পূরণ করা হয়েছে। দাবি এইচডিএফসি ব্যাঙ্কের।

প্রযুক্তি নিয়ে রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়ার (আরবিআই) ৮৫ শতাংশ শর্ত পূরণ করা হয়েছে। এবার কবে থেকে আবারও নয়া ক্রেডিট কার্ড প্রদানের অনুমতি দেওয়া হবে, সে বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবে কেন্দ্রীয় ব্যাঙ্ক। শনিবার এমনটাই জানালেন এইচডিএফসি ব্যাঙ্কের ম্যানেজিং ডিরেক্টর এবং চিফ এগজিকিউটিভ শশীধর জগদীশন।

ভারতের সর্ববৃহৎ বেসরকারি ব্যাঙ্কের বার্ষিক সাধারণ সভায় নয়া ক্রেডিট কার্ড প্রদানের বিষয়টি আরবিআইয়ের কোর্টেই ঠেলে দেওয়া হয়েছে। শেয়ারহোল্ডারদের উদ্দেশ্যে জগদীশন জানান, প্রযুক্তিগত সংক্রান্ত অডিট শেষ হয়ে গিয়েছে। এইচডিএফসি ব্যাঙ্কের বিরুদ্ধে যে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছিল, তা কোন সময় প্রত্যাহার করা হবে, সে বিষয়ে ‘স্বাধীনভাবে’ সিদ্ধান্ত নেবে আরবিআই।

লাগাতার প্রযুক্তিগত সমস্যার কারণে বিব্রত হয়ে গত বছরের ডিসেম্বরে ভারতের সর্ববৃহৎ বেসরকারি ব্যাঙ্কের বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ করেছে কেন্দ্রীয় ব্যাঙ্ক। সাময়িকভাবে নয়া ক্রেডিট কার্ড প্রদান এবং নয়া ডিজিটাল কাজকর্ম চালু করতে নিষেধ করা হয়। সেই ঘটনার পর আট মাস পেরিয়ে গেলেও এখনও নিষেধাজ্ঞা ওঠেনি। তার জেরে যে ক্রেডিট কার্ডের বাজার ব্যাঙ্কের রক্তক্ষরণ হয়েছে তা স্বীকার করে নিয়েছেন জগদীশন। বিষয়টি নিয়ে শনিবার ভারতের সর্ববৃহৎ বেসরকারি ব্যাঙ্কের ম্যানেজিং ডিরেক্টর এবং চিফ এগজিকিউটিভ বলেন, ‘প্রযুক্তি সংক্রান্ত বিষয়ে আমরা কী করেছি, তা নিয়ে নিয়ন্ত্রক সংস্থাকে একটা রিপোর্ট দিয়েছি। যা ওদের নির্দেশিকা এবং পরামর্শ মেনে করা হয়েছে। আমরা প্রায় ৮৫ শতাংশ শর্ত পূরণ করে নিয়েছি।’ সঙ্গে তিনি যোগ করেন, ‘এখন নিয়ন্ত্রকদের কোর্টে বল আছে। ওদের যখন ঠিক মনে হবে, আমাদের উপর থেকে বিধিনিষেধ প্রত্যাহার করে নেবে। কারণ ওরা দেখছে যে আমরা সঠিক পথে আছি।’

বন্ধ করুন