বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > উসকানিমূলক মন্তব্য করার অভিযোগ, গ্রেফতার কংগ্রেসের বিধায়ক, গেলেন পুলিশ হেফাজতে
অসমে ধৃত কংগ্রেসের বিধায়ককে আদালতে নিয়ে আসা হয়েছিল (PTI Photo) (PTI)
অসমে ধৃত কংগ্রেসের বিধায়ককে আদালতে নিয়ে আসা হয়েছিল (PTI Photo) (PTI)

উসকানিমূলক মন্তব্য করার অভিযোগ, গ্রেফতার কংগ্রেসের বিধায়ক, গেলেন পুলিশ হেফাজতে

  • অসমে উচ্ছেদ সংক্রান্ত ঘটনায় উসকানিমূলক মন্তব্য করেছিলেন বলে অভিযোগ।

উসকানিমূলক মন্তব্য করার অভিযোগ অসমের কংগ্রেস বিধায়ক শেরমান আলি আহমেদকে শনিবারই গ্রেফতার করেছিল পুলিশ। রবিবার তাঁকে দুদিনের পুলিশ হেফাজতে পাঠিয়েছে আদালত। অসমের উচ্ছেদ অভিযানকে কেন্দ্র করে অশান্তি প্রসঙ্গে ওই কংগ্রেস বিধায়ক উসকানিমূলক মন্তব্য করেছিলেন বলে অভিযোগ। এমএলএ হস্টেল থেকে পানবাজার পুলিশ বিরোধী দলের ওই বিধায়ককে গ্রেফতার করেছিল। ধর্ম, জাতি, ভাষা সহ নানা প্রসঙ্গে দুটি গোষ্ঠীর মধ্যে অশান্তি বাঁধানোর অভিযোগ উঠেছে বিধায়কের বিরুদ্ধে। কংগ্রেস বিধায়কের আইনজীবী জানিয়েছেন, পুলিশ ১০দিনের হেফাজত চেয়েছিল। তবে আদালত দুদিনের পুলিশ রিমান্ডে পাঠিয়েছে।

এদিকে গত সপ্তাহে কংগ্রেস বিধায়ক দারাং জেলার ওইখানেই অতীতে ৮জন মানুষের মৃত্যুকে ঘিরে মন্তব্য করেছিলেন। প্রায় চার দশক আগে অবৈধ অনুপ্রবেশের বিরুদ্ধে রাজ্য জুড়ে যখন বিক্ষোভ হচ্ছিল তখনই মৃত্য়ু হয়ছিল তাঁদের। তাদেরকে শহিদের মর্যাদা দেওয়া হয় অসমে। এদিকে অসম কংগ্রেসের তরফেও আহমেদের বিরুদ্ধে শৃঙ্খলাভঙ্গের অভিযোগ আনা হয়েছে। দলের ভাবমূর্তি নষ্ট করার অভিযোগে ওই বিধায়ককে শোকজও করেছিল কংগ্রেস।অসম প্রদেশ কংগ্রেস কমিটির সভাপতি ভূপেন কুমার বড়ুয়া বলেন, তাঁর শোকজের জবাবের জন্য অপেক্ষা করছি। 

প্রসঙ্গত উচ্ছেদ অভিযানকে কেন্দ্র করে গত ২৩শে সেপ্টেম্বর অসমের দরংয়ে ধুন্ধুমার কাণ্ড হয়। ১১জন পুলিশকর্মী সহ ২০জন জখম হয়েছিলেন। দুজনর মৃত্যুও হয়। সরকারি জমি জবরদখল করার অভিযোগে ১২০০ পরিবারকে উচ্ছেদও করেছিল জেলা প্রশাসন। 

 

বন্ধ করুন