বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > কেদারনাথ মন্দিরে জুতো পরে গিয়েছিলেন মোদী,অভিযোগ কংগ্রেসের

কিছুদিন বাদেই দেবভূমি উত্তরাখণ্ডে ভোট। তার আগে বিজেপির অস্ত্রেই বিজেপিকে পরাস্ত করতে উদ্যত কংগ্রেস। অর্থাৎ ধর্মীয় তাস খেলেই এবার কংগ্রেস চাইছে শাসক দলকে বিপাকে ফেলতে। এর মধ্যে একেবারে খোদ প্রধানমন্ত্রীকেও টেনে এনেছে তারা। দাবি যে হালে কেদারনাথে যখন মোদী আসেন, তখন তিনি জুতো পরে ছিলেন মন্দিরের মধ্যে। একই সঙ্গে দেবতাকে মোদী পিঠ দেখিয়েছেন বলেও দাবি করছে বিরোধী দল। 

সেদিন মোদী ছাড়াও ওখানে উপস্থিত ছিলেন মুখ্যমন্ত্রী পুস্কর ধামি, বিজেপির রাজ্য সভাপতি মদন কৌশিক সহ অন্যান্য বিজেপির বড় নেতারা। তাদের বিরুদ্ধে মন্দিরের পবিত্রতা ভঙ্গের অভিযোগ এনেছে কংগ্রেস। শনিবার দিন মোদী প্রথমে মন্দিরের গর্ভগৃহে গিয়ে পুজো দেন। তারপর মন্দিরের সামনে অস্থায়ী স্টেজ থেকে ভাষণ দিয়েছিলেন। কিন্তু এতেই চটেছে বিরোধীরা। 

প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী হরিশ রাওয়াত বলেছেন যে মোদী যা করেছেন তা ক্ষমার অযোগ্য। শুধু জুতো পরেই যাননি তিনি ভগবানের দিকে পিছন করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী, যেটি ধর্মবিরুদ্ধ বলে তাঁর দাবি। রাওয়াত বলেন যে প্রধানমন্ত্রীর থেকে শিক্ষা নিয়ে এবার তো সব বিজেপির নেতা এই কাজ করবেন। এতে বিশ্বাসীদের মনে ধাক্কা লাগছে বলে তাঁর দাবি। 

এই অভিযোগকে খণ্ডন করার জন্য বিজেপি আবার পুরনো কাসুন্দি ঘাঁটছে। তাদের দাবি ২০১৩ সালে কংগ্রেসের রাজ্য সভাপতি গণেশ গোডিয়াল ও মধ্যপ্রদেশের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী কমলনাথও জুতো পরে এসেছিলেন। তারা একেবারে গর্ভগৃহ অবধি জুতো পরে গিয়েছিলেন বলে বিজেপির অভিযোগ। 

তবে এই সব দাবি উড়িয়ে দিয়েছেন গণেশবাবু। তাঁর কথায়, সেই সময় পুরো স্থানটি বন্যায় বিপর্যস্ত। চারিদিকে মৃতদেহ ছড়িয়ে ছিল মন্দির প্রাঙ্গনে। তখন তাঁদের দায়িত্ব ছিল কারা জীবিত সেটা খুঁজে বার করে তাদের সাহায্য দেওয়া। 

 

বন্ধ করুন