বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > রাজস্থান পঞ্চায়েত ভোটে শরিকদের ডানা ছাঁটতে হাত মেলাল বিজেপি-কংগ্রেস
ফাইল ছবি
ফাইল ছবি

রাজস্থান পঞ্চায়েত ভোটে শরিকদের ডানা ছাঁটতে হাত মেলাল বিজেপি-কংগ্রেস

  • অন্তত দুই জায়গায় একসঙ্গে ভোট করেছে বিজেপি-কংগ্রেস।

একসঙ্গে হাত মিলিয়ে ক্ষমতা কুক্ষিগত করে রাখছে বিজেপি ও কংগ্রেস। সোনার পাথরবাটি নয়, এমনটাই হয়েছে রাজস্থানে যেখানে ছোটো দলদের ক্ষমতা থেকে দূরে রাখার জন্য স্থানীয় স্তরে হাত মিলিয়েছে রাজ্যের দুই প্রধান দল। পঞ্চায়েত সমিতি ও জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাচনের ভোটেই এই ঘটনা হয়েছে। 

দুঙ্গারপুর জেলা পরিষদে বিটিপি সমর্থিত ছয়জন জিতেছিল। অন্যদিকে বিজেপি জেতে আটটি আসন, কংগ্রেস ছয়টি আসন। এখানে কংগ্রেসের শরিক ভারতীয় ট্রাইবাল পার্টি (বিটিপি) যাতে ক্ষমতায় না আসে, তার জন্য বিজেপি সমর্থিত প্রার্থী সূর্য আহারিকে সমর্থন করে কংগ্রেস। তিনিই জেলা প্রমুখ পদে নির্বাচিত হয়েছেন। 

অন্যদিকে নাগাওর জেলায়, খিনসবার পঞ্চায়েত সমিতিতে কংগ্রেস-বিজেপি একজোট হয়ে রাষ্ট্রীয় লোকতান্ত্রিক পার্টির প্রার্থীকে জেলা পরিষদের প্রধানের পদে জিততে দেননি। আরএলপি বিজেপির শরিক। এখানে ৩১ আসনের মধ্যে আরএলপি জিতেছিল ১৫টি আসন। বিজেপি জিতেছিল ৫, কংগ্রেস ৮ ও নির্দল ৩। কংগ্রেস ও বিজেপি নির্দল প্রার্থী সীমা চৌধুরীকে সমর্থন দেন, যিনি ১৬টি ভোট পেয়ে জিতেছেন। 

এরপর বিটিপি কংগ্রেস সরকারের থেকে সমর্থন প্রত্যাহার করবে বলে জানান দলের প্রধান ছোটুভাই বাসাবা। অন্যদিকে আরএলপি-র প্রধান সাংসদ হনুমান বেনিওয়াল বলেন যে তারা বিজেপির সঙ্গে সম্পর্ক পুনর্বিবেচনা করে দেখছেন। বিজেপি, কংগ্রেস অসাধু জোট করে আরএলপি-কে হারিয়েছে বলে তিনি দাবি করেন। 

সবমিলিয়ে কুড়িটি জেলা প্রধানের মধ্যে বারোজন জিতেছেন বিজেপির, কংগ্রেসের পাঁচজন জয়ী হয়েছেন ও তিনজন নির্দল প্রার্থী জিতেছেন। তবে এই তিনজনের মধ্যে দুইজন বিজেপির সমর্থিত। 

 

বন্ধ করুন