বাড়ি > ঘরে বাইরে > গালওয়ান নিয়ে মুখে কুলুপ, সিপিএম-এর বিরুদ্ধে চিন তোষণের অভিযোগ কং-বিজেপির
লাদাখে ভারতীয় সেনাসদস্যদের শহিদ হওয়া নিয়ে মুখ খোলেননি কেরালার মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন। তাঁর এই নীরবতা চিন-প্রীতির কারণ, দাবি বিরোধীদের। 
লাদাখে ভারতীয় সেনাসদস্যদের শহিদ হওয়া নিয়ে মুখ খোলেননি কেরালার মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন। তাঁর এই নীরবতা চিন-প্রীতির কারণ, দাবি বিরোধীদের। 

গালওয়ান নিয়ে মুখে কুলুপ, সিপিএম-এর বিরুদ্ধে চিন তোষণের অভিযোগ কং-বিজেপির

  • লাদাখ সংঘর্ষ নিয়ে উচ্চবাচ্য করেননি পিনারাই বিজয়ন। কোমল স্বরে কথা বলছেন দলের সাধারণ সম্পাদক সীতারাম ইয়েচুরিও।

পূর্ব লাদাখে ভারতীয় সেনার উপরে চিনা ফৌজের হামলা নিয়ে মুখে কুলুপ এঁটেছে সিপিএম। এমনই অভিযোগ এনেছেন কেরালার বিরোধী নেতা রমেশ চেন্নিথালা। 

রবিবার চেন্নিথালা বলেন, ‘প্রতিদিন সাংবাদিক বৈঠক ডাকছেন কেরালার মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন। কিন্তু একবারও লাদাখ সংঘর্ষ নিয়ে উচ্চবাচ্য করেননি তিনি। এমনকি এই বিষয়ে কোমল স্বরে কথা বলছেন দলের সাধারণ সম্পাদক সীতারাম ইয়েচুরিও। আমরা চাই সিপিএম তার অবস্থান স্পষ্ট করুক।’

বিরোধী নেতার আরও অভিযোগ, ‘মনে হচ্ছে দল এখনও চিন সম্পর্কে নরমপন্থী। এই বিষয়টি ব্যাখ্যা করতে আমাদের কাছে অনেক প্রমাণ রয়েছে।’ এই প্রসঙ্গে ১৯৬২ সালে চিনের ভারত আক্রমণের উল্লেখ করেন চেন্নিথালা।

গালওয়ান উপত্যকায় ২০ জন ভারতীয় সেনা শহিদ হওয়ার পরে বামেদের নীরবতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে বিজেপিও। কেরালার বিজেপি সভাপতি কে সুরেন্দ্রন বলেন, ‘পৃথিবীর কোনও প্রান্তে কিছু ঘটলেই প্রতিক্রিয়া জানান মুখ্যমন্ত্রী। কিন্তু এবার তিনি পুরোপুরি নীরব। এর থেকেই দলের আসল সমর্থনের বিষয়টি পরিষ্কার হয়।’

কিছু দিন আগে কেরালায় করোনা পরিস্থিতি প্রসঙ্গে স্বাস্থ্যমন্ত্রী কে কে শৈলজার সমালোচনা করে তাঁকে ‘কোভিড রানি’ শিরোপা দেয় পিসিসি। মুখ্যমন্ত্রী বিজয়ন এই মন্তব্যের বিরোধিতা করে 

তাঁদের মহিলা-বিরোধী বলেন। এবার চিন সম্পর্কে সিপিএম-এর নীরবতা প্রসঙ্গে পিসিসি নেতা চেন্নিথালা জানিয়েছেন, ‘আমাদের মুখ্যমন্ত্রীর শংসাপত্রের প্রয়োজন নেই। নিজের দেশ-বিরোধী মনোভাব আড়াল করতেই নজর ঘোরানোর চেষ্টা করছেন মুখ্যমন্ত্রী।’

 

বন্ধ করুন