ঘটনার সময় বাড়িতে ছিলেন না কংগ্রেস সাংসদ অধীর রঞ্জন চৌধুরী।
ঘটনার সময় বাড়িতে ছিলেন না কংগ্রেস সাংসদ অধীর রঞ্জন চৌধুরী।

দিল্লিতে অধীরের বাড়িতে দুষ্কৃতী হানা, কর্মীকে মারধরের পরে লুঠ গুরুত্বপূর্ণ নথি

  • নিরাপত্তা কর্মীকে বেধড়ক মারধর করা হয়। এরপর অফিস থেকে জরুরি বেশ কিছু নথি হাতিয়ে ছিঁড়ে ফেলা হয় এবং কিছু নথি নিয়ে চম্পট দেয় লুঠেরার দল।

হিংসাদীর্ণ দিল্লিতে লোকসভায় কংগ্রেস দলনেতা অধীর রঞ্জন চৌধুরীর বাড়িতে হানা দিল দুষ্কৃতীরা। সাংসদের অনুপস্থিতিতে মারঝধর করা হল কর্মীদের, ছিনতাই গিয়েছে গুরুত্বপূর্ণ নথিপত্র।

মঙ্গলবার বিকেল ৫.৩০ নাগাদ দিল্লির হুমায়ুন রোডে সাংসদের বাসভবন লাগোয়া অফিসে অতর্কিতে হানা দেয় একদল দুষ্কৃতী। এক নিরাপত্তা কর্মীকে বেধড়ক মারধর করা হয়। এরপর অফিস থেকে জরুরি বেশ কিছু নথি হাতিয়ে ছিঁড়ে ফেলা হয় এবং কিছু নথি নিয়ে চম্পট দেয় লুঠেরার দল।

ঘটনা সম্পর্কে জানিয়ে থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন কংগ্রেস সাংসদ। ঘটনাস্থলে পৌঁছে সরেজমিনে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। তবে এখনও পর্যন্ত কাউকে এই ঘটনায় গ্রেফতার করা যায়নি বলে খবর।

ঘটনায় স্বভাবতই ক্ষুব্ধ কংগ্রেসের তরপে লোকসভায় দলনেতার জন্য জেড প্লাস নিরাপত্তা ব্যবস্থা দাবি করা হয়েছে। দ্রুত তদন্তের নিষ্পত্তির আশ্বাস দিয়েছে দিল্লি পুলিশ।

উল্লেখ্য, দিল্লির সাম্প্রতিক হিংসায় বিজেপি নেতৃত্বাধীন এনডিএ সরকারের বিরুদ্ধে লাগাতার তোপ দেগেছেন অধীর। তাঁর উদ্যোগে রাজধানীতে রক্ষা পেয়েছেন ১১ জন বাঙালি।

মঙ্গলবার সকালে তিনি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর পদত্যাগ দাবি করেন৷ সংবাদসংস্থা এএনআই-কে তিনি জানান, ‘যাঁরা দায়িত্ব পালন করতে জানেন না, তাঁদের পদত্যাগ করা উচিত।’

বন্ধ করুন