বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Manish Tiwari on Taiwan Visit: 'তাইওয়ানে যাওয়া উচিত ভারতীয় প্রতিনিধিদেরও', ওম বিড়লাকে পরামর্শ কংগ্রেস সাংসদের
কংগ্রেস সাংসদ মণীশ তিওয়ারি (HT_PRINT)

Manish Tiwari on Taiwan Visit: 'তাইওয়ানে যাওয়া উচিত ভারতীয় প্রতিনিধিদেরও', ওম বিড়লাকে পরামর্শ কংগ্রেস সাংসদের

  • চিনা হুঁশিয়ারিকে উপেক্ষা করে তাইওয়ানে যান মার্কিন কংগ্রেসের হাউজ অফ রিপ্রেসেন্টেটিভের স্পিকার ন্যান্সি পেলোসি। মার্কিন বায়ুসেনার বিমান অবতরণের পর তাইওয়ানের পাশে থাকার আশ্বাস দেন তিনি। এরপর কংগ্রেস সাংসদের দাবি, ভারতেরও একটি প্রতিনিধিদল পাঠানো উচিত তাইওয়ানে। 

চিনা হুঁশিয়ারি উপেক্ষা করে মার্কিন কংগ্রেসের স্পিকার ন্যান্সি পেলোসি তাইওয়ানের মাটিতে পা রাখেন। এবার লোকসভার স্পিকার ওম বিড়লাকে তাইওয়ানে ভারতীয় প্রতিনিধিদল পাঠানো উচিত বলে মন্তব্য করলেন কংগ্রেস সাংসদ মণীশ তিওয়ারি। পেলোসির তাইওয়ান সফরকে ঐতিহাসিক আখ্যা দেন মণীশ তিওয়ারি। টুইট বার্তায় ন্যান্সি বলেন, ‘স্পিকার পেলোসির তাইওয়ান সফর ঐতিহাসিক। রাষ্ট্রপতি জো বাইডেন যেভাবে শি জিনপিংকে বলেছেন যে কংগ্রেস সরকারের একটি শাখা, একইভাবে স্পিকার ওম বিড়লার নেতৃত্বে একটি ভারতীয় সংসদীয় প্রতিনিধি দলেরও তাইওয়ান সফরে যাওয়া উচিত।’

তিওয়ারি আরও লেখেন, ‘শুধুমাত্র ন্যান্সি পেলোসি নন, তাঁর সঙ্গে আমেরিকার তিনটি রণতরী – ইউএসএস রোনাল্ড রেগান, ইউএসএস ত্রিপোলি এবং ইউএসএস আমেরিকা তাইওয়ানের খুব কাছে। ১৯৯৫ সালের পর এই প্রথমবার এই অঞ্চলে এধরনের শক্তি প্রদর্শন করছে আমেরিকা। ইন্দো-প্যাসিফিক অঞ্চল ক্রমেই উত্তপ্ত হয়ে উঠছে।’

উল্লেখ্য, চিনা হুঁশিয়ারিকে উপেক্ষা করে তাইওয়ানে যান মার্কিন কংগ্রেসের হাউজ অফ রিপ্রেসেন্টেটিভের স্পিকার ন্যান্সি পেলোসি। মার্কিন বায়ুসেনার বিমান অবতরণের পর তাইওয়ানের পাশে থাকার আশ্বাস দেন তিনি। বিগত ২৫ বছরের মধ্যে এটাই সর্বোচ্চ মার্কিন আধিকারিকের তাইওয়ান সফর। আর সফরের শুরুতেই চিন নিজেদের অবস্থান স্পষ্ট করে দিল। পেলোসির বিমান তাইওয়ানের আকাশসীমায় ঢুকতেই পিএলএ-র তরফে ২০টি যুদ্ধূবিমান পাঠানো হয় তাইওয়ান আকাশসীমায়। তাইওয়ানের আকাশসীমা লঙ্ঘন চিনা সামরিক বাহিনীর কাছে নতুন কিছু নয়। তবে মার্কিন উচ্চ পদস্থ কর্তার সফরকালীন এই পদক্ষেপ বেশ তাৎপর্যপূর্ণ বলে মনে করা হচ্ছে।

এদিকে তাইওয়ানে পেলোসি অবতরণের পরই হুঁশিয়ারি দিয়েছে চিন। চিনেক তরফে বিবৃতিতে বলা হয়েছে, 'এই ধরণের পদক্ষেপ অত্যন্ত বিপজ্জনক, বিষয়টা আগুন নিয়ে খেলার মতো। যারা আগুন নিয়ে খেলে তারা আগুনে পুড়ে ছারখার হয়ে যায়।' পরে চিনের প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের তরফে টুইট করে দাবি করা হয়, তাইওয়ানে পেলোসির সফরের প্রতিবাদে কয়েকটি নির্দিষ্ট সামরিক পদক্ষেপ করবে চিন। দেশের সার্বভৌমত্ব ও আঞ্চলিক অখণ্ডতা রক্ষা করতেই এই পদক্ষেপ করবে পিপলস লিবারেশন আর্মি।

এদিকে চিনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং বলেছেন যে বেজিংয়ের চোখ সর্বক্ষণ খোলা। এদিকে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের তরফে কোনও প্ররোচণা চিন অদেখা করবে না বলেও জানান জিনপিং। এই মন্তব্যের মধ্যেই চিনা সংবাদপত্র গ্লোবাল টাইমসের রিপোর্টে দাবি করা হয়, তাইওয়ান খারিতে সামরিক অনুশীলন শুরু করেছে পিপলস লিবারেশন আর্মি।

বন্ধ করুন