বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > দশমীর পরদিন ওয়ার্কিং কমিটির বৈঠক কংগ্রেসের, অন্তর্দ্বন্দ্বে বাজবে বিসর্জনের সুর?
ওয়ার্কিং কমিটির বৈঠক ডাকতে চলেছে অন্তর্দ্বন্দ্বে জর্জরিত কংগ্রেস (ছবি সৌজন্যে পিটিআই) (HT_PRINT)
ওয়ার্কিং কমিটির বৈঠক ডাকতে চলেছে অন্তর্দ্বন্দ্বে জর্জরিত কংগ্রেস (ছবি সৌজন্যে পিটিআই) (HT_PRINT)

দশমীর পরদিন ওয়ার্কিং কমিটির বৈঠক কংগ্রেসের, অন্তর্দ্বন্দ্বে বাজবে বিসর্জনের সুর?

  • এই বৈঠকের মূল ফোকাস থাকবে কৃষক আন্দোলন এবং লখিমপুর খেরির কাণ্ড। তবে পঞ্জাবে দলের দ্বন্দ্ব নিয়েও বেশ কিছু প্রশ্ন উত্থাপিত হতে পারে বৈঠকে।

বেশ কয়েকদিন আগেই ওয়ার্কিং কমিটির বৈঠক ডাকার দাবি তুলে হাইকমান্ডকে চিঠি দিয়েছিলেন বিদ্রোহী কংগ্রেস নেতা গুলাম নবি আজাদ। এরপর দলীয় পরিকাঠামো নিয়ে প্রশ্ন তুলে বৈঠক ডাকার পক্ষে সওয়াল করেছিলেন কপিল সিব্বলও। এরপরই কংগ্রেসের অন্দরের ফাটল আরও চওড়া হয়ে দেখা দেয়। এই পরিস্থিতিত লখিমপুর কাণ্ড নিয়ে রাজনৈতিক ফায়দা তুলতে এবং দলের অন্তঃকলহ দূর করতে ওয়ার্কিং কমিটি ডাকা হল। আগামী ১৬ অক্টোবর কংগ্রেসের ওয়ার্কিং কমিটির বৈঠক।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক দুই শীর্ষ স্থানীয় কংগ্রেস নেতা হিন্দুস্তান টাইমসকে জানান যে ওয়ার্কিং কমিটির বৈঠকে পঞ্জাবে দলের অন্তর্দ্বন্দ্ব নিয়ে ওঠা বেশ কিছু প্রশ্নের জবাব দেওয়া হতে পারে জি-২৩ গোষ্ঠীর বিদ্রোহী নেতাদের।

তবে এই বৈঠকের মূল ফোকাস থাকবে কৃষক আন্দোলন এবং লখিমপুর খেরির কাণ্ড। উল্লেখ্য, লখিমপুরে গিয়েছেন দলের প্রারক্তন সভাপতি রাহুল গান্ধী এবং বর্তমানে দলের সাধারণ সম্পাদর প্রিয়াঙ্কা গান্ধী। কংগ্রেসের শীর্ষ নেতৃত্ব এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে উত্তরপ্রদেশে নিজেদের ভাগ্য ঘোরাতে চাইছে।

উল্লেখ্য, গত মাসে, দলের বর্ষীয়ান নেতা গুলাম নবি আজাদ দলের অন্তর্বর্তীকালীন প্রধান সোনিয়া গান্ধীকে চিঠি লিখেছিলেন। পাঞ্জাব এবং গোয়া ইউনিটের রাজনৈতিক পরিস্থিতি এবং দলত্যাগের হিড়িক নিয়ে আলোচনা করার জন্য একটি ওয়ার্কিং কমিটির বৈঠক চেয়েছিলেন।

 

বন্ধ করুন