বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > দেশে ঊর্ধ্বমুখী করোনার গ্রাফ! উদ্বেগ বাড়াচ্ছে কেন্দ্রের, সার্ভে হবে রাজ্যে
দেশে বাড়ছে করোনাভাইরাস। প্রতীকী ছবি। (PTI)

দেশে ঊর্ধ্বমুখী করোনার গ্রাফ! উদ্বেগ বাড়াচ্ছে কেন্দ্রের, সার্ভে হবে রাজ্যে

  • একইসঙ্গে, প্রতিটি হাসপাতাল, স্বাস্থ্যকেন্দ্র এবং চিকিৎসকদের সতর্ক করেছে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক।

করোনা বিধিনিষেধ উঠে গিয়েছে গত ৩১ মার্চ থেকে। এখন করোনা নিয়ে আতঙ্ক আর নেই। অনেক মানুষেরই ধারণা হয়তো এবার করোনা থেকে মুক্তি পেতে চলেছে দেশ। কিন্তু, গত কয়েকদিন ধরে দেশে ঊর্ধ্বমুখী হচ্ছে করোনাভাইরাসের গ্রাফ। যা উদ্বেগ বাড়াচ্ছে স্বাস্থ্যকর্তাদের। এই পরিস্থিতিতে রাজ্যজুড়ে সেন্টিনেল সার্ভে করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেন্দ্র সরকার। একইসঙ্গে, প্রতিটি হাসপাতাল, স্বাস্থ্যকেন্দ্র এবং চিকিৎসকদের সতর্ক করেছে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক।

করোনা বৃদ্ধি নিয়ে সবচেয়ে উদ্বেগের ছবি ধরা পড়েছে দিল্লিতে। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রকের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, দিল্লি-সহ গোটা দেশে বাড়ছে করোনার সংক্রমণ। গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে দেশে ২৩৮০ জন মানুষ করোনা সংক্রমিত হয়েছে। দৈনিক সংক্রমণ প্রায় ১৫ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে। উদ্বেগের ছবি দেখা দিয়েছে দিল্লিতে। এরইমধ্যে সেখানে মাস্ক বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। মাস্ক না পরলে সে ক্ষেত্রে ৫০০ টাকা জরিমানাও করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। সুতরাং বোঝাই যাচ্ছে দিল্লিতে কী পরিস্থিতি বা সংক্রমণ কীভাবে বাড়ছে। এখন প্রশ্ন হচ্ছে তাহলে কী এ রাজ্যেও করোনার সংক্রমণ বাড়ছে। যদিও পশ্চিমবঙ্গের স্বাস্থ্য দফতরের বুলেটিনে করোনার বার বাড়ন্ত খুব বেশি দেখা যাচ্ছে না। স্বাস্থ্য দফতরের বুলেটিন অনুযায়ী, গত কয়েকদিনে রাজ্যের করোনা সংক্রমণ ২০ থেকে ৩০ এর মধ্যে ঘোরাফেরা করেছে।

সর্বশেষ বুলেটিন অনুযায়ী, রাজ্যে একদিনে নতুন করে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ২৬ জন। যদিও বিশেষজ্ঞদের মতে অনেকেই হয়তো পরীক্ষা করাচ্ছেন না। ফলে সেইভাবে করোনা সংক্রমণের বিষয়টি প্রকাশ্যে আসছে না। তবে গোটা দেশে যেহেতু নতুন করে দৈনিক সংক্রমণ বাড়ছে তা নিয়ে উদ্বেগ বেড়েছে কেন্দ্র সরকারের। অনেক আগে লকডাউন উঠে গিয়েছে, তার ওপর বিধিনিষেধ নেই। ফলে মাস্ক ছাড়াই এখন দেখা যাচ্ছে বেশিরভাগ মানুষকে। এই অবস্থায় বিপদ এড়াতে মাস্ক পরার পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে।

বন্ধ করুন