বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Coronavirus latest update in India: ভারতে করোনার কমিউনিটি ট্রান্সমিশন হয়নি, বিশেষজ্ঞদের আশঙ্কা উড়িয়ে জানাল ICMR
ভারতে করোনার কমিউনিটি ট্রান্সমিশন হয়নি, জানাল আইসিএমআর (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য এএনআই)
ভারতে করোনার কমিউনিটি ট্রান্সমিশন হয়নি, জানাল আইসিএমআর (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য এএনআই)

Coronavirus latest update in India: ভারতে করোনার কমিউনিটি ট্রান্সমিশন হয়নি, বিশেষজ্ঞদের আশঙ্কা উড়িয়ে জানাল ICMR

  • কয়েকদিন ধরেই বিশেষজ্ঞদের একটি অংশের তরফে জানানো হচ্ছিল, ভারতে পর্যাপ্ত নমুনা পরীক্ষা করা হচ্ছে না।

ভারতে কি তাহলে করোনাভাইরাসের কমিউনিটি ট্রান্সমিশন শুরু হয়ে গিয়েছে? এমনটাই আশঙ্কা করছিলেন বিশেষজ্ঞদের একটি অংশ। কিন্তু সেই আশঙ্কা উড়িয়ে দিয়েছেন ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অব মেডিক্যাল রিসার্চের (আইসিএমআর) ডিরেক্টর জেনারেল বলরাম ভার্গব।

আরও পড়ুন : করোনাভাইরাসের জেরে পিছিয়ে গেল ICSE, ISC পরীক্ষা

যদিও কয়েকদিন ধরেই বিশেষজ্ঞদের একটি অংশের তরফে আশঙ্কা করা হচ্ছিল, ভারতে পর্যাপ্ত নমুনা পরীক্ষা করা হচ্ছে না। সেন্টার ফর ডিজিজ ডায়নামিকস, ইকোনমিক্স অ্যান্ড পলিসির ডিরেক্টর ও সিনিয়র ফেলো রামানান লক্ষ্মীনয়নান বলেন, 'ভারতে দু-তিন সপ্তাহ আগে কমিউনিটি ট্রান্সমিশন শুরু হয়েছে। ভাইরাস অন্যত্র যে আচরণ করে, ভারতেও তার ব্যতিক্রম হবে না। দেশের ১৩৪ কোটি মানুষের জন্য যতটা নমুনা পরীক্ষা করা প্রয়োজন, তা আমরা করিনি। '

আরও পড়ুন : Coronavirus latest update in India: এসব ভুল ধারণা এড়িয়ে চলুন, মোকাবিলা করুন করোনার

কমিউনিটি ট্রান্সমিশন বিষয়টি কী?

করোনা আক্রান্ত কোনও দেশে না গিয়ে থাকেন বা করোনা আক্রান্ত কারোর সংস্পর্শে না আসা সত্ত্বেও যখন কোনও ব্যক্তির রিপোর্ট পজিটিভ আসে, তখন বলা হয় কমিউনিটি ট্রান্সমিশন হচ্ছে। এর ফলে, দ্রুত সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ে। আটকাতে হিমশিম খেতে হয়।

আরও পড়ুন : কীভাবে করোনার প্রকোপ থেকে রক্ষা পাবেন, দেখে নিন যাবতীয় তথ্য

বৃহস্পতিবার সকাল ন'টা পর্যন্ত ভারতে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ১৬৬ জন। মৃত্যু হয়েছে তিনজনের। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (হু) দক্ষিণ-পূর্বের আঞ্চলিক ডিরেক্টের পুনম ক্ষেত্রপাল সিং বলেন, 'পরিস্থিতির দ্রুত ব্যপ্তি ঘটছে। মানুষের সঙ্গে যোগাযোগ বাড়াতে আমাদের জরুরিভিত্তিক কাজের মাত্রা বাড়াতে হবে। খুঁজে বের করতে হবে, আলাদা রাখতে হবে। আরও নমুনা পরীক্ষা করতে হবে। যে যে সংস্পর্শে এসেছেন, তাঁদের খুঁজে বের করতে হবে। হাসপাতাল তৈরি রাখতে হবে। স্বাস্থ্যকর্মীদের রক্ষা ও প্রশিক্ষণ দিতে হবে।':

করোনা থেকে কীভাবে সুরক্ষিত থাকবেন, দেখে নিন সেই তথ্য। (ছবি সৌজন্য হিন্দুস্তান টাইমস)
করোনা থেকে কীভাবে সুরক্ষিত থাকবেন, দেখে নিন সেই তথ্য। (ছবি সৌজন্য হিন্দুস্তান টাইমস)

করোনার সংক্রমণ রুখতে মোটামুটি ২,০০০ জনের নমুনা পরীক্ষা করছে আইসিএমআর। বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, যাঁরা প্রবল শ্বাসকষ্টজনিত সংক্রমণ (সারি অর্থাৎ সিভিয়ার অ্যাকিউট রেসপিরেটরি ইনফেকশন) ও প্রবল নিউমোনিয়ায় ভুগছেন, তাঁদের মধ্যে নমুনা পরীক্ষা করা হচ্ছে। তবে সকলের নমুনা পরীক্ষা না করে কিছু কিছু আক্রান্তকে চিহ্নিত করা হচ্ছে। তাঁদের শুধুমাত্র নমুনা পরীক্ষা হচ্ছে।

আরও পড়ুন : Coronavirus latest update in India: করোনা সতর্কতার জেরে স্থগিত JEE-Main পরীক্ষা

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক উচ্চপদস্থ জনস্বাস্থ্য আধিকারিক জানান, 'পরীক্ষা না করলে আপনি জানতে পারবেন না। পর্যাপ্ত সংখ্যায় পরীক্ষা হচ্ছে না। মহামারীর প্রাথমিক পর্যায়ে আক্রান্তের সংখ্যা কম হয়। একবার (সংক্রমণ) শুরু হলে তা দাবানলের মতো ছড়িয়ে পড়ে। তাই অধিক সংখ্যক মানুষের পরীক্ষা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। ইতালি বা দক্ষিণ কোরিয়ার উদাহরণ দেখুন। এটা একেবার পরিষ্কার যে, পূর্ব এশিয়ার দেশটি পরীক্ষা করেছে ও তা ভালোভাবে করেছে। পর্যাপ্ত নজরদারি (ভারতে) হচ্ছে না। যাঁরা সারিতে ভুগছেন, তাঁদের প্রত্যেকের পরীক্ষা করা উচিত আমাদের। বিশেষত, যাঁরা ভেন্টিলেশনে রয়েছেন। '

আরও পড়ুন : Coronavirus latest update in India: করোনা পরিস্থিতি নিয়ে আজ রাতে জাতির উদ্দেশে ভাষণ মোদীর

তিনি আরও বলেন, '৮০ শতাংশের যখন সামান্য রোগ আছে, তখন মাত্র পাঁচ শতাংশের নমুনা পরীক্ষা কাজে দেবে না। কারণ বাকিরা অন্যত্র ঘুরে বেড়িয়ে বাকিদের সংক্রামিত করবেন। যা চিন, ইতালি ও আমেরিকায় হয়েছে। সারিতে যাঁরা আক্রান্ত, তাঁদের সকলের পরীক্ষা করা উচিত। তা সে সরকারি বা বেসরকারি ক্ষেত্র হোক। বেসরকারি হাসপাতালগুলিকে নমুনা পরীক্ষা ও চিকিৎসা পরিষেবা বাড়াতে হবে। যা মানুষকে এগিয়ে আসতে উৎসাহিত করবে। বিশেষত মধ্যবিত্তদের। কারণ তাঁরা সরকারি হাসপাতালে চিকিৎসা পছন্দ করেন না। '

আরও পড়ুন : করোনা আক্রান্ত সন্দেহে হাসপাতালে ভর্তির কয়েক মিনিটের মধ্যে আত্মঘাতী হলেন যুবক

তবে বিশেষজ্ঞদের সেই আশঙ্কা উড়িয়ে দিয়েছে আইসিএমআর। সংবাদসংস্থা এএনআইকে আইসিএমআরের তরফে বলা হয়েছে, '৮২৬ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। কারোর রিপোর্ট পজিটিভ আসেনি।' পরে সংস্থার ডিরেক্টর জেনারেল বলেন, 'প্রবল শ্বাসকষ্টজনিত সংক্রামিতদের (সারি অর্থাৎ সিভিয়ার অ্যাকিউট রেসপিরেটরি ইনফেকশন) যে র‍্যান্ডম নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে, তাতে প্রত্যেকের COVID-19 নেগেটিভ এসেছে। এটাই স্পষ্ট করছে যে ভারতে এখনও কমিউনিটি ট্রান্সমিশন হয়নি।'

বন্ধ করুন