বিচ্ছিন্ন করে রাখা ৪০০ জনের উপরে নজর রাখছেন চিকিৎসক ও মাৈইক্রোবায়োলজিস্টরা। ছবি সৌজন্যে এএফপি। (AFP)
বিচ্ছিন্ন করে রাখা ৪০০ জনের উপরে নজর রাখছেন চিকিৎসক ও মাৈইক্রোবায়োলজিস্টরা। ছবি সৌজন্যে এএফপি। (AFP)

করোনাভাইরাস সংক্রমণের আশঙ্কায় অসমে ৪০০ জনকে বিচ্ছিন্ন রাখল প্রশাসন

  • আমেরিকান পর্যটকের শরীরে করোনাভাইরাসের সন্ধান পাওয়ার পরে তাঁর সংস্পর্শে আসা ৪০০ জনকে বিচ্ছিন্ন বা কোয়্যারান্টাইন করল অসমে সরকার।

ভূটানে ভ্রমণরত এক আমেরিকান পর্যটকের শরীরে করোনাভাইরাসের সন্ধান পাওয়ার পরে তাঁর সংস্পর্শে আসা ৪০০ জনকে বিচ্ছিন্ন বা কোয়্যারান্টাইন করল অসমে সরকার। রবিবার এই খবর জানিয়েছেন রাজ্যের স্বাস্থ্যমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্ব শর্মা।

একাধিক টুইট মারফৎ শর্মা জানিয়েছেন, তাঁদের মধ্যে এখনও পর্যন্ত পাঁচ জনের শরীরে ওই ভাইরাসের উপস্থিতি খুঁজে পাওয়া গিয়েছে। তিনি লিখেছেন, ‘ক্রুজ জাহাজ এমভি মহাবাবু এবং কয়েকটি রিসর্ট-সহ একাধিক জায়গা থেকে ৪০০ জনেরও বেশি ব্যক্তিকে খুঁজে পাওয়া গিয়েছে যাঁরা ওই পর্যটকের সংস্পর্শে এসেছিলেন। তাঁদের উপরে নজর রাখছেন চিকিৎসক ও মাইক্রোবায়োলজিস্টরা।’

ভূটানে ওই মার্কিন পর্যটকের শরীরেই প্রথম কোভিড-১৯ ধরা পড়ে।

শনিবার কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রকের প্রতিমন্ত্রী পীযূষ হাজারিকা জানান, গুয়াহাটিতে ব্রহ্মপুত্র নদের উপরে কয়েক ঘণ্টা এমভি মহাবাবু জাহাজে ওই মার্কিন পর্যটক কাটানোর কারণে সেটি যোরহাট জেলার নেয়ামতিঘাটে বিচ্ছিন্ন করে রাখা হয়েছে।

পারো উড়ে যাওয়ার আগে গত ১ মার্চ যে হোটেলে ওই পর্যটক উঠেছিলেন, তার দোতলার ১৮টি ঘর সিল করে জীবাণুমুক্ত করা হয়েছে বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ। করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে সব রকম নিরোধক ব্যবস্থা গ্রহণ করতে তৎপর হয়েছে অসম সরকার, জানিয়েছেন হিমন্ত বিশ্ব শর্মা।

বন্ধ করুন