দেশে ৪.১ দিনে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দ্বিগুণ হচ্ছে, জানাল কেন্দ্র (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)
দেশে ৪.১ দিনে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দ্বিগুণ হচ্ছে, জানাল কেন্দ্র (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)

Coronavirus Update: এখন দেশে ৪.১ দিনে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দ্বিগুণ হচ্ছে, জানাল কেন্দ্র

দ্রুত আক্রান্তের সংখ্যা দ্বিগুণ হওয়ায় তবলিগি জামাতকেই পরোক্ষভাবে দায়ী করল কেন্দ্র।

মাত্র ৪.১ দিনেই দেশে করোনাভাইরাস আক্রান্তের সংখ্যা দ্বিগুণ হচ্ছে। সেজন্য পরোক্ষভাবে তবলিগি জামাতের জমায়েতকেই দুষল কেন্দ্র।

আরও পড়ুন : দ্রুত ও সস্তায় করোনা সংক্রমণ নির্ণয়ে চালু হতে পারে সমষ্টিগত নমুনা পরীক্ষা

রবিবার সাংবাদিক বৈঠকে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের যুগ্ম সচিব লব আগরওয়াল বলেন, 'দেশে বর্তমানে ৪.১ দিনে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে। যদি তবলিগি জামাতের ঘটনা না হত, তাহলে দেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দ্বিগুণ হতে সময় লাগত মোটামুটি ৭.৪ দিন।'

আরও পড়ুন : PF Withdrawal rule relaxation: টাকা তোলায় বয়স সংক্রান্ত প্রমাণের নিয়ম শিথিল EPFO-র, সুবিধা প্রায় ৫.৫ কোটি গ্রাহকের

পাশাপাশি তিনি জানান, দেশে এখনও পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৩,৩৭৪ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে ৪৭২ জনের করোনা রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। ওই সময়ের মধ্যে দেশে মৃত্যু হয়েছে ১১ জনের। ফলে আপাতত করোনায় মৃতের সংখ্যা ৭৯। করোনা থেকে সেরে ওঠার সংখ্যাটাও বাড়ছে। এখনও পর্যন্ত ২৬৭ জন করোনার প্রকোপ মুক্ত হয়েছেন।

আরও পড়ুন : গ্রাহকের স্বার্থে বিমার প্রিমিয়াম জমা দেওয়ার জন্য অতিরিক্ত ৩০ দিন সময়

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রুখতে আমজনতাকে সচেতন হওয়ার আর্জি জানায় স্বাস্থ্য মন্ত্রক। সেজন্য প্রকাশ্যে থুতু ফেলা ও তামাকজাতীয় দ্রব্য সেবন এড়িয়ে যাওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। মন্ত্রকের যুগ্মসচিব বলেন, 'করোনাভাইরাস মহামারী থেকে বিপদের আশঙ্কা বৃদ্ধির জেরে অ্যাডভাইজারি জারি করে দেশবাসীকে এই পরিস্থিতিতে ধূমপান, প্রকাশ্যে থুতু ফেলা ও তামাকজাতীয় দ্রব্য সেবন এড়িয়ে যাওয়ার আর্জি জানিয়েছে কাউন্সিল অফ মেডিক্যাল রিসার্চ (আইসিএমআর)। '

আরও পড়ুন : প্রধানমন্ত্রীর মোমবাতি জ্বালানোর আবেদন বয়কট অপর্ণার, 'ডিলিট' হল পোস্ট!

এদিকে কেন্দ্রের তরফে জানানো হয়েছে, দেশেও এবার র‌্যাপিড ডায়াগনস্টিক টেস্ট চালু হচ্ছে। তবে সর্বত্র নয়, শুধুমাত্র হটস্পটগুলিতেই আপাতত র‌্যাপিড টেস্ট হবে। এ নিয়ে মন্ত্রকের যুগ্মসচিব বলেন, 'ইনফ্লুয়েঞ্জার মতো অসুস্থতার জন্য হটস্পট, উদ্ধারকার্যের কেন্দ্র ও বড় জমায়েতের এলাকায় র‌্যাপিড ডায়াগনস্টিক টেস্ট করা হবে।'

বন্ধ করুন