বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Sputnik V: বিশ্বে প্রথম ন্যাজাল স্প্রে কোভিড টিকা হিসাবে স্পুটনিক পেল ছাড়পত্র, কার্যকরী ওমিক্রন দমনে
 রাশিয়ার দাবি, যদি কেউ ছ'মাসের মধ্যে স্পুটনিক লাইটের বুস্টার ডোজ নেন, তাহলে ওমিক্রনের বিরুদ্ধে ১০০ শতাংশ প্রতিরোধ ক্ষমতা গড়ে উঠবে। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্যে রয়টার্স)

Sputnik V: বিশ্বে প্রথম ন্যাজাল স্প্রে কোভিড টিকা হিসাবে স্পুটনিক পেল ছাড়পত্র, কার্যকরী ওমিক্রন দমনে

  • রাশিয়ার গামালেয়া সেন্টারের আলেক্সান্ডার গিন্টসবার্গকে উল্লেখ করে বক্তব্য রেখেছিল টাস। উল্লেখ্য, তখনই গিন্টসবার্গ জানিয়েছিলেন যে, আর তিন থেকে চার মাসের মধ্যে রাশিয়ার নাগরিকদের জন্য কোভিডের এই ন্যাজাল স্প্রে টিকাকে ছাড় দেওয়া হবে।

বিশ্বের প্রথম ন্যাজাল স্প্রে কোভিড টিকা হিসাবে ছাড়পত্র পেল রাশিয়ার স্পুটনিক। রাশিয়ার স্বাস্থ্যমন্ত্রক সূত্রে এই খবর জানানো হয়েছে। 'রাশিয়ার স্বাস্থ্যমন্ত্রক স্পুটনিকের ন্যাজাল ভার্সান রেজিস্টার করেছে, কোভিডের বিরুদ্ধে বিশ্বের প্রথম ন্যাজাল ভ্যাকসিন এটি।'

এর আগে রাশিয়ার নিউজ এজেন্সি টাস জানিয়েছিল যে আর তিন থেকে চার মাসের মধ্যে নাগরিকদের জন্য ছাড়পত্র পাবে ন্যাজাল ভ্যাকসিন। এবিষয়ে রাশিয়ার গামালেয়া সেন্টারের আলেক্সান্ডার গিন্টসবার্গকে উল্লেখ করে বক্তব্য রেখেছিল টাস। উল্লেখ্য, তখনই গিন্টসবার্গ জানিয়েছিলেন যে, আর তিন থেকে চার মাসের মধ্যে রাশিয়ার নাগরিকদের জন্য কোভিডের এই ন্যাজাল স্প্রে টিকাকে ছাড় দেওয়া হবে। তিনি বলেছিলেন, 'ল্যাবরেটারির পরীক্ষা জানাচ্ছে যে, ওমিক্রনের বিরুদ্ধে সাধারণ ইনজেকশনের মাধ্যমে স্পুটনিক ভি প্রয়োগ করলে তা কার্যকরী ফল দেয়। আর ন্যাজাল স্প্রে হিসাবেও এটি কার্যকরী হবে।' এর আগে অক্টোবরে গামালেয়া সেন্টারকে এই টিকার দ্বিতীয় ট্রায়ালের জন্য অনুমোদন দেয় রাশিয়া। আর এই অনুমোদন ছিল স্পুটনিককে ন্যাজাল স্প্রে হিসাবে কার্যকরী করার বিষয়ে।

উল্লেখ্য, ২০২১ সালে প্রথমবার ভারতের হায়দরাবাদে শুরু হয় স্পুটনিকের পথ চলা। মে মাসের প্রথমেই সে বছর ১.৫০ লাখ স্পুটনিক কোভিড টিকা ভারতে আসে। ভারতে রাশিয়ার ডিরেক্ট ইনভেস্টমেন্ট ফান্ড থেকে এই টিকা ভারতের হাতে তুলে দেওয়া হয়। আর এই উদ্যোগে ভারতের 'ডক্টর রেড্ডিস' এর সঙ্গে সহযোগিতা ছিল স্পুটনিকের। এদিকে, রাশিয়া যেদিন স্পুটনিকের ন্যাজাল স্প্রে নিয়ে বার্তা দিয়েছে আশার, সেদিনই জানা গিয়েছে, যে ওমিক্রনের আরও এক নয়া স্ট্রেন মিউটেট হয়ে আক্রমণ শানাতে চলেছে। একথা জানিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা হু। এক্সই নামের এই নয়া মিউট্যান্টকে রাশিয়ার ন্যাজাল স্প্রে ভ্যাকসিন কতটা টেক্কা দিতে পারে, তার দিকে তাকিয়ে গোটা বিশ্ব।

বন্ধ করুন