বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > হোটেলের ঘরে চুপি চুপি মালাবদল, বিয়ে অবৈধ, ২৫ হাজার টাকা জরিমানা করল আদালত
হোটেলের ঘরে বিয়ে সারলেন তরুণ, তরুণী, কোর্ট জানিয়েছে এই বিয়ে অবৈধ (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য হিন্দুস্তান টাইমস)
হোটেলের ঘরে বিয়ে সারলেন তরুণ, তরুণী, কোর্ট জানিয়েছে এই বিয়ে অবৈধ (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য হিন্দুস্তান টাইমস)

হোটেলের ঘরে চুপি চুপি মালাবদল, বিয়ে অবৈধ, ২৫ হাজার টাকা জরিমানা করল আদালত

  • ১৯ বছরের ছেলেটি ২০ বছরের এক তরুণীর সঙ্গে পালিয়ে গিয়েছিল। 

মেয়ের বয়স ২০ বছর। আর ছেলের বয়স ১৯ বছর ৫ মাস। এদিকে দুজনে সম্প্রতি পঞ্জাব ও হরিয়ানা আদালতের দ্বারস্থ হয়েছিলেন। তাদের দাবি, তারা পালিয়ে গিয়ে হোটেলের রুমে ছিলেন। সেখানকার বাসনে অগ্নিসাক্ষী করে সাতপাকে ঘুরে বিয়ে করেছেন তারা। কিন্তু পরিবারের ইচ্ছার বিরুদ্ধে বিয়ে করার জন্য তাদেরকে অত্যাচার করা হতে পারে বলে তারা আদালতের কাছে সুরক্ষা প্রার্থনা করেছেন। তবে আদালতের দাবি তাদের এই বিয়ে বৈধ নয়।

এদিকে ওই  তরুণ, তরুণীর দাবি, গত ২৬ সেপ্টেম্বর তারা একটি হোটেলের রুমে ছিলেন। এরপর ওই তরুণ, তরুণীর সিঁথিতে সিঁদুর দেন। মালাবদলও হয় হোটেলের রুমে।এদিকে হোটেলের একটি বাসনে আগুন জ্বালিয়ে, সেটিকে সাক্ষী রেখে সাত পাকে ঘুরে তাদের বিয়ে হয়েছে বলে তারা দাবি করেছেন। কিন্তু সেই বিয়ের কোনও ছবি বা ম্যারেজ সার্টিফিকেট তারা কোর্টের সামনে হাজির করতে পারেননি। এদিকে সাতপাকে ঘোরা, মালা বদল, সিঁদুর দানের সময় কোনও মন্ত্রোচ্চারণও হয়নি। আদালতের পর্যবেক্ষণ, ছেলেটির বয়স এখনও বিয়ের উপযুক্ত হয়নি। তাছাড়া তারা কোর্টকে অন্যপথে চালনা করার  চেষ্টা করছেন। 

 

এরপর আদালত জানিয়েছে, ওদের দুজনের মধ্যে কোনও বৈধ বিবাহ হয়নি। তাদের ২৫ হাজার টাকার জরিমানার নির্দেশ দিয়েছে আদালত। হাইকোর্টের লিগাল সার্ভিস কমিটির কাছে এই টাকা জমা দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি আদালত পুলিশকে নির্দেশ দিয়েছে, তাদের জীবনের সুরক্ষা যাতে বজায় থাকে সেব্যাপারে পুলিশকে উদ্যোগ নিতে হবে।  

 

মেয়ের বয়স ২০ বছর। আর ছেলের বয়স ১৯ বছর ৫ মাস। এদিকে দুজনে সম্প্রতি পঞ্জাব ও হরিয়ানা আদালতের দ্বারস্থ হয়েছিলেন। তাদের দাবি, হোটেলের রুমে সেখানকার বাসনে অগ্নিসাক্ষী করে সাতপাকে ঘুরে বিয়ে করেছেন তারা। কিন্তু পরিবারের ইচ্ছার বিরুদ্ধে বিয়ে করার জন্য তাদেরকে অত্যাচার করা হতে পারে বলে তারা আদালতের কাছে সুরক্ষা প্রার্থনা করেছেন। তবে তাদের এই বিয়ে বৈধ নয় বলে আদালত কার্যত জানিয়ে দিয়েছে।

এদিকে ওই  তরুণ, তরুণীর দাবি গত ২৬ সেপ্টেম্বর তারা একটি হোটেলের রুমে ছিলেন। এরপর ওই তরুণ তরুণীর সিঁথিতে সিঁদুর দেন। মালাবদলও হয় হোটেলের রুমে।এদিকে হোটেলের একটি পাত্র আগুন জ্বালিয়ে, সেটিকে সাক্ষী রেখে সাত পাকে ঘুরে তাদের বিয়ে হয়েছে বলে তারা দাবি করেছেন। কিন্তু সেই বিয়ের কোনও ছবি বা ম্যারেজ সার্টিফিকেট তারা কোর্টের সামনে হাজির করতে পারেননি। এদিকে সাতপাকে ঘোরা, মালা বদল, সিঁদুর দানের সময় কোনও মন্ত্রোচ্চারণও হয়নি। এদিকে আদালতের পর্যবেক্ষণ যে ছেলেটির বয়স এখনও বিয়ের উপযুক্ত হয়নি। তাছাড়া তারা কোর্টকে অন্যপথে চালনা করার  চেষ্টা করছে। এরপর আদালত জানিয়েছে, ওদের দুজনের মধ্যে কোনও বৈধ বিবাহ হয়নি। এরপরই তাদের ২৫ হাজার টাকার জরিমানা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে আদালত। হাইকোর্টের লিগাল সার্ভিস কমিটির কাছে এই টাকা জমা দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এরসঙ্গেই আদালত পুলিশকে নির্দেশ দিয়েছে তাদের জীবনের সুরক্ষা যাতে বজায় থাকে সেব্যাপারে পুলিশকে উদ্যোগ নিতে হবে।  

|#+|

 

 

 

বন্ধ করুন