(প্রতীকী ছবি)
(প্রতীকী ছবি)

হাতকাটা গেঞ্জি পরে এজলাসে হাজির আইনজীবী, শুনানি মুলতুবি বিরক্ত বিচাপতির

  • ভিডিয়ো কনফারেন্সে শুনানি চললেও সেখানে প্রথাগত পোশাকেই আইনজীবীদের উপস্থিত থাকতে হবে বলে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

মামলার শুনানিতে হাতকাটা গেঞ্জি পরে হাজির হওয়ার কারণে আইনজীবীকে ভর্ৎসনা করে শুনানি মুলতুবি রাখলেন রাজস্থান হাইকোর্টের বিচারপতি সঞ্জীব প্রকাশ শর্মা।

দেশজুড়ে লকডাউন আরোপ হওয়ার কারণে ভিডিয়ো কনফারেন্সের মাধ্যমে মামলার শুনানির বিধান দিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট। কিন্তু ভিডিয়ো কনফারেন্সে শুনানি চললেও সেখানে প্রথাগত পোশাকেই আইনজীবীদের উপস্থিত থাকতে হবে বলে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। সম্প্রতি সেই বিধি লঙ্ঘন করে জামিনের আবেদনের শুনানিতে উপস্থিত হলেন আবেদনকারীর আইনজীবী।

বিচারপতি শর্মা তাঁর রায়ে বলেছেন, ‘আবেদনকারীর আইনজীবীকে ভিডিয়ো কনফারেন্সিং-এর মাধ্যমে যোগাযোগ করা হয়েছিল। তিনি শুনানিতে বেনিয়ান পরে উপস্থিত হয়েছিলেন। ভিডিয়ো কনফারেন্সিং হলেও আদালতে উপস্থিত হতে গেলে প্রয়োজনীয় রীতি মেনে চলতে হয়। এই কারণে শুনানি স্থগিত রাখা হল।’

প্রসঙ্গত, গত ৭ এপ্রিল আরও একটি মামলার শুনানিতে এক আইনজীবী হাতকাটা গেঞ্জি করে ভিডিয়ো কনফারেন্সিংয়ে উপস্থিত হয়েছিলেন। ঘটনাচক্রে সেই মামলাটিও উঠেছিল বিচারপতি শর্মার এজলাসেই। তখনও আদালতের রীতি-রেওয়াজ উপেক্ষা করার কারণে শুনানি স্থগিত ঘোষণা করেন বিচারপতি। পাশাপাশি, ভিডিয়ো কনফারেন্সিংয়ের মাধ্যমে শুনানিতে উপস্থিত আইনজীবীদের নিয়ম মেনে যথাযথ পোশাকে এজলাসে হাজিরা দেওয়ার জন্য রাজস্থান বার অ্যাসোসিয়েনের কাছে আবেদন জানান বিচারপতি। এই বিষয়ে তাঁকে আশ্বাস দিয়েছিলেন বার অ্যাসোসিয়েশনের সদস্যরাও।

আইনজীবী আইনের ৪৯(১)(জিজি) ধারা অনুযায়ী, আদালতে উপস্থিত আইনজীবীদের আবহাওয়া পরিস্থিতির ভিত্তিতে পোশাক রীতি মেনে চলতে প্রয়োজনীয় নিয়মাবলী তৈরির ক্ষমতা দেওয়া হয়েছে বার অ্যাসোসিয়েশনকে।

তার ভিত্তিতে বার অ্যাসোসিয়েশনের তৈরি করা নিয়ম অনুযায়ী, আদালতে হাজিরা দেওয়ার সময়ে আইনজীবীদের কালো স্ট্রাইপ, সাদা অথবা ধুসর রঙের ট্রাউজার্স, সাদা জামা এবং বুক-খোলা কোট পরা রীতি। এজলাসে উপস্থিত থাকলে এর উপরে তাঁদের গাউন পরতে হয়।

ট্রাউজার্স পরার অসুবিধা থাকলে কালো, ধুসর অথবা সাদা ধুতি পরতে পারেন আইনজীবীরা।



বন্ধ করুন