বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > উজ্জ্বল বাংলার করোনা পরিস্থিতি, সক্রিয় আক্রান্তের নিরিখে নেই প্রথম দশেও
সাম্প্রতিক পরিসংখ্যান অনুযায়ী, সক্রিয় আক্রান্তের নিরিখে দেশে একাদশ স্থানে আছে বাংলা{ (ছবি সৌজন্য পিটিআই)
সাম্প্রতিক পরিসংখ্যান অনুযায়ী, সক্রিয় আক্রান্তের নিরিখে দেশে একাদশ স্থানে আছে বাংলা{ (ছবি সৌজন্য পিটিআই)

উজ্জ্বল বাংলার করোনা পরিস্থিতি, সক্রিয় আক্রান্তের নিরিখে নেই প্রথম দশেও

  • সক্রিয় আক্রান্তের নিরিখে কোন কোন রাজ্যে প্রথম দশে আছে দেখে নিন -

সোমবার ভারতে মোট করোনাভাইরাস আক্রান্তের সংখ্যা ৬০ লাখের গণ্ডি ছাড়িয়ে গেল। সুস্থতার হার ৮২.৫৮ শতাংশ হলেও যা নিঃসন্দেহে রীতিমতো উদ্বেগজনক মাইলস্টোন। তবে কেন্দ্রের তরফে একাধিকবার দাবি করা হয়েছে, দেশের সাম্প্রতিক করোনা পরিস্থিতি অনুধাবনের ক্ষেত্রে সক্রিয় আক্রান্তের গুরুত্ব অত্যন্ত বেশি। সেই সক্রিয় আক্রান্তের নিরিখে কোন কোন রাজ্যে প্রথম দশে আছে দেখে নিন -

1

মহারাষ্ট্র : ভারতের সর্বাধিক করোনা প্রভাবিত রাজ্যে সক্রিয় আক্রান্তের সংখ্যা সবথেকে বেশি। সোমবার সকাল আটটা পর্যন্ত সেই রাজ্যের সক্রিয় আক্রান্তের সংখ্যা ২৭৩,৬৪৬। সবমিলিয়ে সেখানে মোট সংক্রমিতের সংখ্যা ১,৩৩৯,২৩২। সেরে উঠেছেন ১,০৩০,০১৫ জন। মৃত্যু হয়েছে ৩৫,৫৭১ জনের।

2

কর্নাটক : সক্রিয় আক্রান্তের নিরিখে দ্বিতীয় স্থানে আছে কর্নাটক। সেখানে সক্রিয় আক্রান্তের সংখ্যা ১০৪,৭৪৩। মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৫৭৫,৫৬৬। সেরে উঠেছেন ৪৬২,২৪১ জন। মৃত্যু হয়েছে ৮,৫৮২ জনের।

3

অন্ধ্রপ্রদেশ : দক্ষিণ ভারতের আরও এক রাজ্যে সক্রিয় আক্রান্তের সংখ্যা ৬০,০০০-এর বেশি। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের সাম্প্রতিক পরিসংখ্যান অনুযায়ী, অন্ধ্রপ্রদেশে এখনও ৬৪,৮৭৬ জন করোনার কবলে আছেন। সবমিলিয়ে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৬৭০,১৩৬। সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৬০৫,০৯০ জন। মৃতের সংখ্যা ৫,৭০৮।

4

কেরালা : সক্রিয় আক্রান্তের নিরিখে দেশে চতুর্থ স্থানে আছে কেরালা। সেখানে এখনও ৫৬,৭৮৬ জনের শরীরে করোনার অস্তিত্ব আছে। রাজ্যে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ১৭৫,৩৮৪। সেরে উঠেছেন ১১৭,৯২১ জন। তবে কেরালায় প্রাণহানির সংখ্যা ঢের কম - ৬৭৭।

5

উত্তরপ্রদেশ : গত ২৪ ঘণ্টায় সংখ্যাটা কমলেও সক্রিয় আক্রান্তের নিরিখে সারা দেশের মধ্যে পঞ্চম স্থানে আছে উত্তরপ্রদেশ। সেখানে মোট ৩৮৭,০৮৫ জন আক্রান্তের মধ্যে এখনও ৫৫,৬০৩ জনের শরীরে করোনার অস্তিত্ব আছে। সেরে উঠেছেন ৩২৫,৮৮৮ জন। মৃত্যু হয়েছে মোট ৫,৫৯৪ জনের।

6

তামিলনাড়ু : তামিনলাড়ুতে মোট সক্রিয় আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৪৬,৩৪১। সেই রাজ্যে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৫৮০,৮০৮। করোনাকে হারিয়ে সেরে উঠেছেন ৫২৫,১৫৪ জন। মৃত্যু হয়েছে ৯,৩১৩ জনের।

7

ওড়িশা : সক্রিয় আক্রান্তের নিরিখে সপ্তম স্থানে আছে পশ্চিমবঙ্গের প্রতিবেশি রাজ্য ওড়িশা। সেখানে মোট ২০৯,৩৭৪ জন সংক্রমিতের মধ্যে ৩৫,০০৬ জন সক্রিয় আক্রান্ত আছেন। সেরে উঠেছেন ১৭৩,৫৭১ জন। মৃতের সংখ্যা ৭৯৭। যা পশ্চিমবঙ্গের থেকে অনেকটা কম।

8

ছত্তিশগড় : অষ্টম স্থানে আছে ছত্তিশগড়। সোমবার সকাল আটটা পর্যন্ত সেই রাজ্যের সক্রিয় আক্রান্তের সংখ্যা ৩১,৬৬১। সবমিলিয়ে সেখানে মোট সংক্রমিতের সংখ্যা ১০৪,৭৩৩। সেরে উঠেছেন ৭২,২২৪ জন। মৃত্যু হয়েছে ৮৪৮ জনের।

9

তেলাঙ্গানা : দেশে সর্বাধিক সক্রিয় আক্রান্ত বিশিষ্ট রাজ্যের তালিকায় দক্ষিণ ভারতের আরও একটি রাজ্য আছে। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের সাম্প্রতিক পরিসংখ্যান অনুযায়ী, তেলাঙ্গানায় এখনও ২৯,৬৭৩ জন করোনার কবলে আছেন। সবমিলিয়ে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৮৭,২১১। সুস্থ হয়ে উঠেছেন ১৫৬,৪৩১ জন। মৃতের সংখ্যা ১,১০৭।

10

অসম : সক্রিয় আক্রান্তের নিরিখে দেশে দশম স্থানে আছে অসম। সেখানে এখনও ২৯,৩৫০ জনের শরীরে করোনার অস্তিত্ব আছে। রাজ্যে মোট আক্রান্তের সংখ্যা  ১৬৯,৯৮৫। সেরে উঠেছেন ১৩৯,৯৮০ জন। সেখানে করোনায় প্রাণ হারিয়েছেন ৬৫৫ জন।

11

দিল্লি : একাদশ স্থানে আছে দিল্লি। সোমবার সকাল আটটা পর্যন্ত সেই রাজ্যের সক্রিয় আক্রান্তের সংখ্যা ২৯,২২৮। সবমিলিয়ে সেখানে মোট সংক্রমিতের সংখ্যা ২৭১,১১৪। সেরে উঠেছেন ২৩৬,৬৫১ জন। মৃত্যু হয়েছে মোট ৫,২৩৫ জনের।

12

পশ্চিমবঙ্গ : বাংলায় মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ২.৫ লাখ ছুঁইছুঁই হলেও করোনাকে হারিয়ে দিয়েছেন ২১৬,৯২১ জন (৮৭.৬৭ শতাংশ)। অর্থাৎ দেশের থেকেও বাংলায় সুস্থতার হার বেশি। রাজ্যে করোনায় মৃত্যু হয়েছে ৪,৭৮১ জনের। আর সক্রিয় আক্রান্তের সংখ্যা ২৫,৭২৩। সক্রিয় আক্রান্তের নিরিখে দেশে দ্বাদশ স্থানে আছে বাংলা।

বন্ধ করুন