শ্রীনগরের গোবিন্দ বল্লভ পন্থ হাসপাতালে জীবাণুমুক্তির কাজে ব্যস্ত পুরকর্মীরা। বিধবার এএফপির ছবি।
শ্রীনগরের গোবিন্দ বল্লভ পন্থ হাসপাতালে জীবাণুমুক্তির কাজে ব্যস্ত পুরকর্মীরা। বিধবার এএফপির ছবি।

Covid-19 facts: বাতাসে ৩ ঘণ্টা বাঁচে করোনাভাইরাস, প্লাস্টিকের উপরে ৩ দিন

  • নোভেল করোনাভাইরাস বাতাসে বেঁচে থাকে বেশ কয়েক ঘণ্টা এবং ভূ স্তর ও কঠিন কোনও পদার্থের উপর থাকলে তার আয়ু কয়েক দিন পর্যন্ত বেড়ে যেতে পারে।

এ পর্যন্ত প্রায় ৮,০০০ মানুষের মৃত্যু এবং বিশ্বের আরও ২ লাখ মানুষের শরীরে সংক্রমণ ঘটানো নোভেল করোনাভাইরাস বাতাসে বেঁচে থাকে বেশ কয়েক ঘণ্টা এবং ভূ স্তর ও কঠিন কোনও পদার্থের উপর থাকলে তার আয়ু কয়েক দিন পর্যন্ত বেড়ে যেতে পারে বলে জানিয়েছেন বিজ্ঞানীরা।

সম্প্রতি নিউ ইংল্যান্ড জার্নাল অফ মেডিসিন-এ প্রকাশিত নিবন্ধে জানানো হয়েছে, Covid-19 এর পিছনে সক্রিয় Sars-CoV-2 ভাইরাস বায়ুস্তরে তিন ঘণ্টা পর্যন্ত জীবিত থাকে। তামার ওপরে এই জীবাণু টিকে থাকে ৪ ঘণ্টা, কার্ডবোর্ডের উপরে টিকে থাকে ২৪ ঘণ্টা এবং প্লাস্টিক ও স্টেনলেস স্টিলের উপরে তা বেঁচে থাকে ২-৩ দিন পর্যন্ত।

এই ভাইরাসের সঙ্গে বেশ কিছু সাদৃশ্য রয়েছে ২০০২-২০০৩ সালে বিশ্বের একাধিক দেশে ছড়িয়ে পড়া Sars-Cov ভাইরাসের, যার সুবাদে ছোঁয়াচে সার্স রোগে প্রায় ৮ হাজার মানুষ অসুস্থ হয়ে পড়েন। ২০০৪ সালের পরে সেই ভাইরাসের আর দেখা মেলেনি।

তবে সার্স আক্রান্তদের চিহ্নিত করতে যে চূড়ান্ত তল্লাশি এবং আইসোলেশন প্রক্রিয়া প্রয়োজন হত, করোনাভাইরাস আক্রান্তদের বেলায় তা খাটে না। এ ক্ষেত্রে সম্প্রদায় ও সমাজ ভিত্তিক সংক্রমণের জেরে অচিরেই মহামারীতে রূপান্তরিত হয়েছে Covid-19।

গবেষণাভিত্তিক নিবন্ধে জানানো হয়েছে, Covid-19 এর কোনও উপসর্গ দেখা না গেলেও অথবা সামান্য পরিমাণে দেখা গেলেও সেই সমস্ত ব্যক্তির থেকে সংক্রমণের প্রবল সম্ভাবনা থাকে। আর এই কারণেই অনেক সময় চিকিত্সকদের নজরের বাইরে বেড়ে চলে রোগের প্রকোপ। গত ২৩ জানুয়ারি নিষিদ্ধ ঘোষণা হওয়ার আগে উহান উহান থেকে চিনের অন্যত্র ৭৯% সংক্রমণ বেড়ে যায়।

নিবন্ধে জানানো হয়েচে, হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে কর্তব্যরত চিকিত্সক, নার্স ও স্বাস্থ্যকর্মীদের মধ্যে সংক্রমণের সম্ভাবনা সবচেয়ে বেশি। তাই তাঁদের অতিরিক্ত সতর্ক থাকতে নির্দে দিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংগঠন ‘হু’।

দেখে নেওয়া যাক কোথায় কত ক্ষণ টিকে থাকতে পারে নোভেল করোনাভাইরাস।

# বাতাসে ভাসমান জলকণায়- ৩ ঘণ্টা

# তামার উপরে- ৪ ঘণ্টা

# কার্ডবোর্ডের উপরে- ২৪ ঘণ্টা পর্যন্ত

# প্লাস্টিক ও স্টেনলেস স্টিলের উপর- ২-৩ দিন


সংক্রমণের শিকার হলে কী কী করণীয়:

  • অসুস্থ হলে বাড়িতেই থাকুন
  • টিস্যু পেপার বা নিজের কনুইয়ের ভেতরে হাঁচুন
  • সামাজিক দূরত্ব তৈরি করার চেষ্টা করুন
  • জ্বর-কাশিতে ভোগা মানুষের সঙ্গে ঘনিষ্ঠতা এড়িয়ে চলুন
  • নিজের মুখ, নাক ও চোখ স্পর্শ করবেন না
  • প্রায়ই যে সমস্ত স্থান স্পর্শ করেন, তা শুদ্ধ ও জীবাণুমুক্ত রাখুন


বন্ধ করুন