বাড়ি > ঘরে বাইরে > Covid-19: জটিল করোনা রোগীর নিরিখে বিশ্বে দ্বিতীয় ভারত, ব্রাজিলের থেকেও বেশি : রিপোর্ট
জটিল করোনা রোগীর নিরিখে বিশ্বে দ্বিতীয় ভারত (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য এপি)
জটিল করোনা রোগীর নিরিখে বিশ্বে দ্বিতীয় ভারত (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য এপি)

Covid-19: জটিল করোনা রোগীর নিরিখে বিশ্বে দ্বিতীয় ভারত, ব্রাজিলের থেকেও বেশি : রিপোর্ট

  • রাশিয়ায় জটিল রোগীর সংখ্যা ভারতের এক-চতুর্থাংশ।

এমনিতেই ভারতে করোনাভাইরাস আক্রান্তের ক্রমশ বাড়ছে। তার জেরে বাড়ছে উদ্বেগ। সেই উদ্বেগ আরও কিছুটা বাড়াল নয়া পরিসংখ্যান। সেই তথ্য অনুযায়ী, বিশ্বে সর্বাধিক করোনাভাইরাস প্রভাবিত দেশের তালিকায় পঞ্চম স্থানে থাকলেও জটিল করোনা রোগীর সংখ্যা নিরিখে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে। 

‘হিন্দুস্তান’-এর তথ্য অনুযায়ী, ভারতে ৮,৯৪৪ জন করোনা রোগীর অবস্থা জটিল। সেখানে আমেরিকায় জটিল রোগীর সংখ্যা ১৬,৯৭৩। আমেরিকার জটিল রোগীর সংখ্যা ভারতের প্রায় দ্বিগুণ হলেও ভারতের তুলনায় মার্কিন মুলুকে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ন'গুণ বেশি। জন হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, আমেরিকায় মোট করোনা আক্রান্তের সংথ্যা ১,৯৬১,১৮৭। সেখানে ভারতে মোট সংক্রামিতের সংখ্যা ২৬৭,৬৫২ (কেন্দ্রের পরিসংখ্যান অনুযায়ী মঙ্গলবার সকাল আটটা পর্যন্ত করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ২৬৬,৫৯৮)।

ভারতের থেকে ব্রাজিলেও জটিল রোগীর সংখ্যা। ‘হিন্দুস্তান’-এর তথ্য অনুযায়ী, বর্তমানে করোনার হটস্পটে পরিণত হওয়া ব্রাজিলে ৮,৩১৮ জন করোনা আক্রান্তের শারীরিক অবস্থা জটিল। অথচ সেদেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ভারতের তিন গুণ। রাশিয়ায় জটিল রোগীর সংখ্যা ভারতের এক-চতুর্থাংশ। 

এর আগে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রক জানিয়েছে, দেশে করোনা আক্রান্তদের মধ্যে পাঁচ শতাংশেরও কম মানুষকে ইনটেনসিভ কেয়ারে রাখতে হবে। তাঁদের মধ্যে ২.২৫ শতাংশ রোগী আইসিইউতে ভরতি এবং ১.৯১ শতাংশ রোগীর বাইরে থেকে অক্সিজেন সাপোর্টের প্রয়োজন পড়ে। পাশাপাশি কেন্দ্রের দাবি, খুব কম সংখ্যক রোগীকে ভেন্টিলেটরে রাখতে হয়েছে। তাঁরা অধিকাংশই মহারাষ্ট্র, দিল্লি, মধ্যপ্রদেশ এবং পশ্চিমবঙ্গের হাসপাতালে ভরতি আছেন। ভারতে করোনায় মৃতের সংখ্যা নিরিখে প্রথম পাঁচটির মধ্যে এই চারটি রাজ্য রয়েছে।

অন্যদিকে, মঙ্গলবার সকাল আটটা পর্যন্ত ভারতে সক্রিয় করোনা রোগীর সংখ্যা ১২৯,৯১৭। আর সেরে উঠেছেন ১২৯,২১৪ জন। অর্থাৎ ফারাকটা মাত্র ৭০৩। গত ২৪ ঘণ্টায় যেখানে সক্রিয় আক্রান্তের সংখ্যা ৪,৫৩৬, সেখানে ওই সময়ের মধ্য়ে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৫,১২০ জন। 

তবে আক্রান্তের সংখ্যা ক্রমশ বাড়ছে। গত ২৪ ঘণ্টায় ৯,৯৮৭ জন সংক্রামিত হয়েছেন। যা একদিনে রেকর্ড বৃদ্ধি। গত বৃহস্পতিবার থেকে টানা ছ'দিন দৈনিক করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৯,০০০-এর গণ্ডি ছাড়িয়েছে। ওই পাঁচদিনে দেশে সংক্রামিত হয়েছেন মোট ৫৮,৫৮৮ জন। পাশাপাশি গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে ৩৩১ জন করোনা আক্রান্তের বৃদ্ধি হয়েছে। সেটাও একদিনে দৈনিক মৃত্যুর নিরিখে রেকর্ড।

বন্ধ করুন