রাধাকৃষ্ণন দামানি
রাধাকৃষ্ণন দামানি

Covid-19: একমাত্র ভারতীয় ধনকুবের, যিনি এই বাজারেও ১১ শতাংশ লাভ করেছেন!

আম্বানি-আদানিরা পারেননি,পারলেন রাধাকৃষ্ণন।

টাটা-আম্বানিরা পারেননি। কিন্তু এই করোনার বাজারে নিজের সম্পত্তির মূল্য ১১ শতাংশ বৃদ্ধি করেছেন এই ব্যবসায়ী। মূলত লকডাউনের বাজারে সবাই মাল কেনার হিড়িকের জেরেই লাভবান হয়েছেন এই ব্যবসায়ী।

জনপ্রিয় ডি-মার্ট চেনের প্রতিষ্ঠাতা রাধাকৃষ্ণন দামানির ধন-সম্পত্তির মূল্য এবছর ১১ শতাংশ বেড়ে ১০.৭ বিলিয়ন ডলার হয়েছে। ব্লুমবার্গের হিসাব অনুযায়ী ১২জন ধনীতম ভারতীয়ের মধ্য এবছর সবচেয়ে টাকা বেড়েছে দামানির। অ্যাভিনিউ সুপারমার্কেটসের শেয়ার বেড়েছে ২৪ শতাংশ।

মুম্বইয়ের একটি ঘরের বাড়িতে বড় হয়ে ওঠা দামানির।সেখান থেকে তৈরী করেছেন এতবড় ব্যবসা।তাঁর সুপারমার্কেট চেইনে সস্তায় জিনিস পাওয়া যায়, এটাই ইউএসপি। কতদিন লকডাউন চলবে, মাল যথেষ্ট মজুত আছে কিনা, এই নিয়ে আমআদমি উদ্বিগ্ন হওয়ায় ঢালাও বিক্রি হয়েছে ডি-মার্টে।

দামানি ছাড়া এই বাজারেও ধন বৃদ্ধি হয়েছে প্রতিষেধক প্রস্তুতকারী সেরাম ইনস্টিটিউট অফ ইন্ডিয়ার মালিক সাইরাস পুনাওয়ালার। ওনার ধনরাশি বৃদ্ধি পেয়েছে ২.৬ শতাংশ।

ডি-মার্টের হোল্ডিং সংস্থার শেয়ারের দাম বাড়লেও বিগ বাজারের হোল্ডিং সংস্থা ফিউচার গ্রুপের শেয়ারের দাম কমেছে ৮০ শতাংশ।যতদিন সাপ্লাই চেইন অটুট থাকবে, ডি মার্টের ব্যবসায় সমস্যা হবে না বলে বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন। কিন্তু লকডাউন বাড়লে যেটার সম্ভাবনা ক্রমশই বাড়ছে, দামানির বৃহস্পতি এরকম তুঙ্গে থাকে কিনা, সেটাই দেখার।


বন্ধ করুন