বান্দ্রা ওয়েস্ট স্টেশনের বাইরে জমায়েত পরিযায়ী শ্রমিকদের (ছবি সৌজন্য পিটিআই)
বান্দ্রা ওয়েস্ট স্টেশনের বাইরে জমায়েত পরিযায়ী শ্রমিকদের (ছবি সৌজন্য পিটিআই)

COVID-19 Updates: 'টাকা শেষ, খাবার নেই', বাড়ি ফিরতে চেয়ে বান্দ্রায় আকুতি মালদার শ্রমিকের

  • তাঁর মতো শয়ে শয়ে শ্রমিক মঙ্গলবার বান্দ্রা স্টেশনে জড়ো হয়েছিলেন। সবাই বাড়ি ফিরতে চান।

লকডাউনের জেরে বন্ধ হয়ে গিয়েছে কাজ। প্রথম ২১ দিন সঞ্চয় ভাঙিয়ে কোনওক্রমে খিদে মিটিয়েছেন। কিন্তু আগামী ১৯ দিন কী করবেন - জানা নেই। তাই কোনওক্রমে বাড়ি ফেরার জন্য মঙ্গলবার বান্দ্রা ওয়েস্ট স্টেশনে এসেছিলেন মালদার আসাদুল্লাহ শেখ।

আরও পড়ুন : Covid-19 Updates: লকডাউনের ফলে আর্থিক ক্ষতি হলেও তা দেশবাসীর জীবনের কাছে তুচ্ছ, বললেন মোদী

শুধু আসদুল্লাহ নয়, মহারাষ্ট্রে কর্মরত বিভিন্ন রাজ্যের শ্রমিকরা একই আকুতি নিয়ে দুপুর তিনটে নাগাদ বান্দ্রা ওয়েস্ট স্টেশনের কাছে জড়ো হচ্ছিলেন। শ্রমিকের সংখ্যাটা কম করে হলেও ১,০০০ হবে। বাড়ি ফেরার জন্য রেল পরিষেবা চালুর দাবি জানান তাঁরা। প্রায় দু'ঘণ্টা পর লাঠি চালিয়ে শ্রমিকদের ছত্রভঙ্গ করে পুলিশ।

আসদুল্লাহ জানান, তাঁর সঞ্চয়ের ভাঁড়ার শূন্য হয়ে গিয়েছে। তিনি বলেন, 'লকডাউনের প্রথম পর্যায়ে আমাদের সঞ্চয় নিঃশেষ হয়ে গিয়েছে। আমাদের খাবার কিছু নেই। আমরা শুধু নিজেদের ভিটেয় ফিরতে চাই। আমাদের জন্য বন্দোবস্ত করুক সরকার।'

আরও পড়ুন : COVID-19 Updates: তিন মে পর্যন্ত দেশে লকডাউন, ঘোষণা মোদীর

একই দাবি অপর এক শ্রমিক আবদুল কায়ুনের। তিনি বলেন, 'অনেক বছর ধরেই আমি মুম্বইয়ে রয়েছিল। কিন্তু এরকম পরিস্থিতি কখনও দেখিনি। এখান থেকে আমাদের ভিটেয় ফেরার জন্য রেল পরিষেবা চালু করতে হবে।'

আরও পড়ুন : রাস্তায় পড়ে থাকা দুধ খাচ্ছে কুকুর, বাটিতে তুলে রাখছেন ব্যক্তি, ভাইরাল ভিডিয়ো

তবে তা করা হয়নি। আপাতত মহারাষ্ট্র সরকারের তরফে শ্রমিকদের আশ্বস্ত করা হয়েছে। এক পুলিশ আধিকারিক, লকডাউন পর্যন্ত তাঁদের খাবার ও থাকার ক্ষেত্রে কোনও সমস্যার মুখে পড়তে হবে না বলে আশ্বাস দেওয়া হয়েছে। কিন্তু কোনওমতেই আশঙ্কা কাটছে না আসদুল্লাহর মতো শ্রমিকদের। তাঁরা শুধু বাড়ি ফিরতে চান।

বন্ধ করুন