ভিডিয়ো কনফারেন্সে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী (ছবি সৌজন্য এএনআই)
ভিডিয়ো কনফারেন্সে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী (ছবি সৌজন্য এএনআই)

COVID-19 Updates: দু'সপ্তাহ লকডাউন বাড়ানোর বিষয়ে একমত রাজ্যগুলি, বললেন মোদী

  • মোদী বলেন, করোনা মোকাবিলায় এখনও পর্যন্ত য়ে পদক্ষেপ করা হয়েছে, তার প্রভাব কতটা পড়েছে, তা আগামী তিন-চার সপ্তাহে বোঝা যাবে।

একাধিক রাজ্যে লকডাউন বাড়ানোর আর্জি জানিয়েছে। অর্থনীতিতে করোনাভাইরাসের প্রভাব নিয়ে শঙ্কা প্রকাশ করে আর্থিক প্যাকেজও দাবি করেছে একাধিক রাজ্য। তবে সরকারিভাবে লকডাউনের ভবিষ্যৎ নিয়ে কোনও সিদ্ধান্ত জানালেন না প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

আরও পড়ুন : COVID-19 Live Updates: মোদীর 'লকডাউন বাড়ানো'-র সিদ্ধান্ত সঠিক, বললেন কেজরিওয়াল

সরকারের মুখ্য মুখপাত্র জানিয়েছেন, বেশিরভাগ রাজ্যই আরও দু'সপ্তাহ লকডাউন বাড়ানোর পক্ষে সওয়াল করেছে। একটি টুইটবার্তায় তিনি বলেন, 'কেন্দ্রীয় সরকার সেই আর্জি বিবেচনা করছে।'

আরও পড়ুন : শীঘ্রই DTH বা কেবল সেট টপ বক্স (STB) না পাল্টে আপনি বদলাতে পারবেন অপারেটর

তবে লকডাউন ওঠার পর কী হবে, শনিবারের মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে বৈঠকে সেই সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে আলোচনা করেন প্রধানমন্ত্রী। সব রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদের আর্জি শোনার পর তিনি বলেন, 'সব রাজ্যই লকডাউনের মেয়াদ দু'সপ্তাহ বাড়ানোর পক্ষে একমত মনে হচ্ছে। আগে সরকারের নীতি ছিল - জীবন আছে তো দেশ আছে। এখন তা হয়েছে - জীবন এবং দেশও।'

আরও পড়ুন : করোনা পরীক্ষায় গোটা দেশে সবার পিছনে পশ্চিমবঙ্গ, তাই কি আক্রান্তের সংখ্যা এত কম?

এদিন বৈঠকের শুরুতেই মোদী রাজ্যগুলিকে বার্তা দেন, করোনার বিরুদ্ধে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে লড়তে হবে। এরকম জরুরি অবস্থায় রাজনীতির কোনও জায়গা নেই। তিনি বলেন, 'আমি সবসময় আছি। যে কোনও মুখ্যমন্ত্রী আমার সঙ্গে কথা বলতে পারেন। যে কোনও সময় (করোনাভাইরাস নিয়ে) পরামর্শ দিতে পারেন। কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে আমাদের একসঙ্গে থাকা উচিত।'

আরও পড়ুন : Covid-19: দশ দিনে PF অ্যাকাউন্ট থেকে ২৮০ কোটি টাকা তুলেছেন লক্ষাধিক ভারতীয়

করোনা মোকাবিলায় কেন্দ্র ও রাজ্যেগুলির যৌথ উদ্যোগের ফলে করোনার প্রভাব কমেছে বলে জানান মোদী। তবে প্রতি মুহূর্তে পরিস্থিতির পরিবর্তন হওয়ায়, সর্বদা সতর্ক থাকার পরামর্শ দেন তিনি। বলেন, 'আগামী তিন-চার সপ্তাহ খুব গুরুত্বপূর্ণ। কারণ করোনা মোকাবিলায় এখনও পর্যন্ত যে পদক্ষেপ করা হয়েছে, তার প্রভাব কতটা পড়েছে, তা সেই সময়ে বোঝা যাবে। আর এই চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি মূল হওয়ার মূল মন্ত্র হল - টিমওয়ার্ক।'

আরও পড়ুন : Covid-19: একমাত্র ভারতীয় ধনকুবের, যিনি এই বাজারেও ১১ শতাংশ লাভ করেছেন!

শনিবার আবারও সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার আর্জি জানান মোদী। তিনি বলেন, 'এক দেশের উজ্জ্বল ভবিষ্যৎ এবং সমৃদ্ধশালী ও স্বাস্থ্যবান ভারতের জন্য জীবন এবং দেশ - দু'দিকেই নজর দিতে হবে। যখন দেশের প্রত্যেকে জীবন ও দেশ - দুটির বিষয়ে চিন্তা করে দায়িত্ব পালন করবেন, সরকার আর প্রশাসনের নির্দেশ পালন করবেন, তখন করোনার বিরুদ্ধে আমাদের লড়াই আরও মজবুত হবে।'

আরও পড়ুন : COVID-19 Updates: করোনা নজরদারিতে রাজ্যে বিশেষজ্ঞের অভাব, বলে দিল কেন্দ্র

পাশাপাশি, করোনা মোকাবিলার ওষুধ হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন রফতানিতে দেশের অন্দরে একাধিক প্রশ্ন উঠেছিল। ভারতের হাতে পর্যাপ্ত পরিমাণ হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন আছে কিনা, তা নিয়েও একটি মহল থেকে শঙ্কা প্রকাশ করা হচ্ছিল। যদিও কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রক ইতিমধ্যে জানিয়ে দিয়েছে, দেশের মোট চাহিদার তিনগুণ হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন আছে। তাতেও আশঙ্কা কাটছিল না। শনিবার সে বিষয়ে নিজেই মুখ খোলেন মোদী। সরাসরি হাইড্রক্সিক্লোরোকুইনের বিষয়ে মন্তব্য না করলেও তিনি জানান, প্রয়োজনীয় সব ওষুধ দেশে পর্যাপ্ত পরিমাণে রয়েছে। একইসঙ্গে করোনা মোকাবিলায় যাঁরা সামনে থেকে কাজ করছেন, তাঁদের পর্যাপ্ত সুরক্ষাবরণী (পিপিই বা পার্সোনাল প্রোটেক্টিভ ইক্যুপমেন্ট) জোগান নিশ্চিত করার বিষয়েও আশ্বস্ত করেন মোদী।

বন্ধ করুন