বাড়ি > ঘরে বাইরে > Covid-19 updates: সেরে ওঠার পরে দ্বিতীয় বার আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা কম, বলছে গবেষণা
যাঁরা কোভিড সংক্রমণ থেকে সেরে উঠেছেন, তাঁদের সুস্থ হওয়ার পরে তিন মাসের জন্য কোয়ারেন্টাইনে থাকার দরকার নেই বলে মনে করছে আমেরিকান চিকিৎসা বিজ্ঞানীরা।
যাঁরা কোভিড সংক্রমণ থেকে সেরে উঠেছেন, তাঁদের সুস্থ হওয়ার পরে তিন মাসের জন্য কোয়ারেন্টাইনে থাকার দরকার নেই বলে মনে করছে আমেরিকান চিকিৎসা বিজ্ঞানীরা।

Covid-19 updates: সেরে ওঠার পরে দ্বিতীয় বার আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা কম, বলছে গবেষণা

  • সেরে ওঠা রোগীদের তিন মাস কোয়ারেন্টাইনে থাকার প্রয়োজন নেই, বলছেন মার্কিন বিশেষজ্ঞরা।

সেরে ওঠার পরে কোভিড রোগীদের দ্বিতীয় বার করোনাভাইরাস আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা প্ নেই, জানাল সাম্প্রতিক সমীক্ষা। পাশাপাশি, ওই রোগীদের তিন মাস কোয়ারেন্টাইনে থাকার প্রয়োজন নেই, বলছেন মার্কিন বিশেষজ্ঞরা।

সম্প্রতি আমেরিকার সিয়াটল থেকে রওনা হওয়া এক মাছধরা জাহাজে Covid-19 হানায় অধিকাংশ আরোহী আক্রান্ত হলেও রক্ষা পেয়েছেন তিন প্রাক্তন কোভিড রোগী। জাহাজ রওনা হওয়ার আগের স্বাস্থ্য পরীক্ষা রিপোর্টের ভিত্তিতে গবেষকরা সিদ্ধান্তে পৌঁছেছেন যে, শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা একবার তৈরি হয়ে গেলে দ্বিতীয় বার সংক্রমিত হওয়ার সম্ভাবনা নেই।

জানা গিয়েছে, ১০৮ দিন সমুদ্রে থাকাকালীন ওই জাহাজের ১২২ জন আরোহীর মধ্যে ১০৪ জন কোভিড সংক্রমিত হন। সংক্রমণ ছড়ায় মাত্র একজনের থেকে। 

ওয়াশিংটন বিশ্ববিদ্যালয়ের মেডিসিন ক্লিনিক্যাল ভাইরোলজি ল্যাবরেটরির সহকারি অধিকর্তা তথা গবেষণাকারী দলের অন্যতম সদস্য আলেকজান্ডার গ্রেনিনগার হিন্দুস্তান টাইমস-কে ই মেল মারফৎ জানিয়েছেন, ‘এর থেকে বোঝা যাচ্ছে যে, কোভিড সৃষ্টিকারী Sars-CoV-2 ভাইরাস সংক্রমণ থেকে প্রতিরোধের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক রয়েছে জীবাণুনাশক অ্যান্টিবডির, যদিও এই সিদ্ধান্তে পৌঁছতে গেলে আরও গবেষণা প্রয়োজন।’

গত শুক্রবার প্রিপ্রিন্ট সার্ভার medRxiv তে গবেষণাপত্রটি প্রকাশিত হয়েছে। গবেষকদের মধ্যে রয়েছেন ওয়াশিংটন বিশ্ববিদ্যালয় এবং সিয়াটল-এর ফ্রেড হাচ ক্যানসার রিসার্চ সেন্টারের বিজ্ঞানীরা। 

গবেষণায় আরও একটি বিষয়স্পষ্ট হয়েছে যে, বিশ্বজুড়ে কোভিড প্রতিষেধক ভ্যাক্সিন আবিষ্কারের যে প্রচেষ্টা চলছে, তাতে শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধিতে জোর দেওয়ার প্রক্রিয়া যথাযথ এবং অতিমারী রোধে সক্ষম। তবে এর জেরে এই প্রশ্নও উঠতে শুরু করেছে যে, সংক্রমণ রুখতে শুধুমাত্র অ্যান্টিবডির অস্তিত্বই যথেষ্ট কি না।

যদিও গবেষকদের মতে, এই তত্ত্বে পৌঁছনোর জন্য সঠিক অ্যান্টিবডি টেস্ট প্রক্রিয়া বাছাই গুরুত্বপূর্ণ। সেই সঙ্গে নিয়মিত কোভিড পরীক্ষাও করে যাওয়া দরকার হবলে জানিয়েছেন গবেষকরা।

অন্য দিকে, যাঁরা কোভিড সংক্রমণ থেকে সেরে উঠেছেন, তাঁদের সুস্থ হওয়ার পরে তিন মাসের জন্য কোয়ারেন্টাইনে থাকার দরকার নেই বলে মনে করছে আমেরিকান সেন্টার্স ফর ডিজিস কন্ট্রোল দফতর। নিউ ইয়র্ক টাইমস পত্রিকা জানিয়েছে, সম্প্রতি এই মর্মে সংস্থার নিজস্ব ওয়েবসাইটে নির্দেশিকা প্রকাশ করা হয়েছে। অর্থাৎ, সুস্থ হয়ে ওঠা কোভিড রোগীদের সামাজিক মেলামেশায় বাধানিষেধ তুলে নিল ট্রাম্প প্রশাসন।

কোভিড সংক্রমণের পরে ঠিক কত দিন শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা টিকে থাকে, সে বিষয়ে এখনও পাকাপাকি সিদ্ধান্তে পৌঁছতে পারেননি বিশ্বজুড়ে বিজ্ঞানীরা। প্রাথমিক ভাবে দেখা গিয়েছিল যে, সংক্রমণ থেকে সেরে ওঠার ৮ মাস বা তার কিছু দিন পরে ফের জীবাণু সংক্রমণের সম্ভাবনা থেকে যাচ্ছে। গবেষণায় দেখা গিয়েছে, এই সময়কালে ২-৩ মাস পর থেকে শরীরে প্রতিরোধ ক্ষমতা ফিকে হতে থাকে। 

আবার উহান বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষণায় দেখা গিয়েছে যে, শরীরে প্রায় ৬ মাস ধরে অ্যান্টিবডির অস্তিত্ব থেকে যাচ্ছে। 

এ ছাড়া জীবাণু সংক্রমণ থেকে রক্ষা করে শরীরে উপস্থিত মেমোরি টি সেল, যা সরাসরি সংক্রমণ না ঠেকালেও জীবাণু হামলা শুরু হলে দ্রুত শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়িয়ে তোলে এবং জীবাণু ধ্বংসকারী কোষ উৎপাদনে সহায়ক হয়। এর জোরেই দ্বিতীয় বার কোভিড আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা দূর হয় বলে জানিয়েছেন গবেষকরা। 

 

বন্ধ করুন