বাড়ি > ঘরে বাইরে > Covid-19 Vaccine Updates: ভারতেও স্থগিত হল অক্সফোর্ডের করোনা টিকার ট্রায়াল
ভারতেও স্থগিত হচ্ছে অক্সফোর্ডের করোনা টিকার ট্রায়াল (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য ব্লুমবার্গ)
ভারতেও স্থগিত হচ্ছে অক্সফোর্ডের করোনা টিকার ট্রায়াল (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য ব্লুমবার্গ)

Covid-19 Vaccine Updates: ভারতেও স্থগিত হল অক্সফোর্ডের করোনা টিকার ট্রায়াল

  • বুধবার সন্ধ্যায় ডিসিজিআইয়ের শো-কজের মুখে পড়েছিল সেরাম।

ভারতে স্থগিত রাখা হল অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় ও সুইডিশ-ব্রিটিশ বায়োটেক সংস্থা অ্যাস্ট্রাজেনেকার ‘ভ্যাকসিন ক্যান্ডিডেট’-এর ট্রায়াল। বৃহস্পতিবার একথা জানিয়েছে সেরাম ইনস্টিটিউট অফ ইন্ডিয়া (এসআইআই)।

টিকা উৎপাদনকারী সংস্থার তরফে বলা হয়েছে, ‘আমরা (সেরাম ইনস্টিটিউট অফ ইন্ডিয়া) পরিস্থিতির পর্যালোচনা করছি  এবং অ্যাস্ট্রাজেনেকা তা (ট্রায়াল) আবার শুরু না করা পর্যন্ত ভারতেও ট্রায়াল স্থগিত রাখছি। আমরা ডিসিজিআইয়ের (ড্রাগ কন্ট্রোলার জেনারেল অফ ইন্ডিয়া) নির্দেশ মেনে চলছি এবং এ বিষয়ে আর কোনও মন্তব্য করতে পারব না। এই বিষয়ে আরও তথ্যের জন্য আপনারা ডিসিজিআইয়ের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারেন।’

মঙ্গলবার অ্যাস্ট্রাজেনেকা জানিয়েছিল, একজন স্বেচ্ছাসেবকের অসুস্থতার কারণে ‘ভ্যাকসিন ক্যান্ডিডেট’-এর চূড়ান্ত পর্যায়ের ট্রায়াল স্থগিত রাখা হচ্ছে। অ্যাস্ট্রাজেনেকার মুখপাত্র মিশেল মেক্সেলের বিবৃতি উদ্ধৃত করে সংবাদসংস্থা রয়টার্স জানায়, টিকাকরণের প্রক্রিয়া স্থগিত রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সংস্থা। একটি স্বতন্ত্র কমিটি ‘সেফটি ডেটা’ (সুরক্ষাজনিত তথ্য) পর্যালোচনা করবে।

ব্রিটেনের এক স্বেচ্ছাসেবকের ‘সন্দেহজনক গুরুতর বিরূপ প্রতিক্রিয়া’-র জন্য চারটি দেশে ট্রায়াল স্থগিত করে দেওয়া হয়েছিল। যদিও বুধবার দুপুরের দিকে সেরামের তরফে বলা হয়, ‘আমরা ব্রিটেনের ট্রায়াল নিয়ে বেশি কিছু বলতে পারব না। তবে আরও পর্যালোচনার জন্য তা স্থগিত রাখা হয়েছে এবং শীঘ্রই আবারও শুরু করার আশা করা হচ্ছে। ভারতীয় ট্রায়াল চলছে এবং আমরা কোনওরকম সমস্যার সম্মুখীন হইনি।’

সন্ধ্যার দিকে অবশ্য পরিস্থিতির পরিবর্তন হতে থাকে। সেরামকে কড়া নোটিস পাঠায় কেন্দ্রীয় ড্রাগ নিয়ন্ত্রক সংস্থা। বিদেশের ট্রায়াল স্থগিতের তথ্য না দেওয়ায় রীতিমতো ক্ষোভ প্রকাশ করা হয়। যতদিন সম্ভাব্য টিকায় ক্ষতি হবে না বলে নিশ্চিত হওয়া যাচ্ছে, ততদিন কেন দ্বিতীয় ও তৃতীয় পর্যায়ের হিউম্যান ট্রায়াল বন্ধ করা হবে, তা জানতে চাওয়া হয়।

কড়া নোটিসের মুখে পড়ে সেরামের তরফে একটি বিবৃতিতে বলা হয়, ‘আমরা ডিজিসিআইয়ের নির্দেশ মেনে এগোচ্ছিলাম এবং ট্রায়াল স্থগিত রাখতে আমরা কোনও নির্দেশ পায়নি। ডিসিজিআইয়ের সুরক্ষা সংক্রান্ত কোনও উদ্বেগ থাকলে আমরা ওদের নির্দেশ মেনে নেব এবং নির্ধারিত প্রোটোকল মেনে চলব।’

আর সেই বিবৃতির পর ২৪ ঘণ্টা কাটতে না কাটতেই নিজেদের অবস্থান থেকে সরে এল সেরাম। জানিয়ে দেওয়া হল, আপাতত ভারতে স্থগিত থাকছে অক্সফোর্ডের সম্ভাব্য টিকার ট্রায়াল। 

বন্ধ করুন