বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Covid-19 Vaccine Updates: 'আপনার প্রস্তুতি সবার প্রয়োজনীয়তা মেটাবে',করোনা টিকা নিয়ে মোদীর প্রশংসায় সেরাম
প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী (ছবি সৌজন্য ব্লুমবার্গ)
প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী (ছবি সৌজন্য ব্লুমবার্গ)

Covid-19 Vaccine Updates: 'আপনার প্রস্তুতি সবার প্রয়োজনীয়তা মেটাবে',করোনা টিকা নিয়ে মোদীর প্রশংসায় সেরাম

  •  বিশ্বে সবথেকে বেশি টিকার ডোজ তৈরি করে সেরাম।

সমগ্র বিশ্বে করোনাভাইরাস টিকা প্রদানের আশ্বাস দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। সেজন্য তাঁর প্রশংসায় পঞ্চমুখ হলেন সেরাম ইনস্টিটিউট অফ ইন্ডিয়ার (এসআইআই) সিইও আদর পুনাওয়ালা। জানালেন, এটা ভারতের জন্য গর্বের মুহূর্ত।

রবিবার সকালে একটি টুইটবার্তায় সেরাম কর্তা বলেন, 'প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীজির মতোই লক্ষ্য আমাদের এবং প্রধানমন্ত্রী যে লক্ষ্য নিয়েছেন, তারও প্রশংসা করছি আমরা। এটা ভারতের জন্য গর্বের মুহূর্ত, আপনার নেতৃত্ব এবং সমর্থনের জন্য ধন্যবাদ।'

শনিবার সন্ধ্যায় রাষ্ট্রসংঘের সাধারণ সভায় মোদী আশ্বস্ত করেছিলেন, সবথেকে বড় টিকা উৎপাদনকারী দেশ হিসেবে করোনা-মুক্ত বিশ্ব গড়ে তোলার জন্য গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে ভারত। তিনি বলেছিলেন, ‘বর্তমানে বিশ্বের সবথেকে বড় টিকা উৎপাদনকারী দেশ হিসেবে বিশ্বের দেশগুলিকে আমি আশ্বাস দিতে চাই যে ভারতের টিকা উৎপাদন ও বণ্টনের ক্ষমতা পুরো মানবজাতিকে এই মহামারী থেকে বের করে আনার ক্ষেত্রে সহায়তা করবে।’

একইসঙ্গে তিনি বলেছিলেন, ‘ভারত ও প্রতিবেশি দেশে তৃতীয় পর্যায়ের ক্লিনিকাল ট্রায়ালের দিকে এগোচ্ছি। টিকার ডেলিভারির ক্ষেত্রে কোল্ড চেন এবং সংগ্রহের বাড়ানোর ক্ষেত্রেও ভারত সবার সাহায্য করবে।’

নিজের ভাষণে কোনও সংস্থার নাম উল্লেখ না করলেও ভারতে টিকা উৎপাদনের ক্ষেত্রে সেরামের ভূমিকা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। কারণ বিশ্বে সবথেকে বেশি টিকার ডোজ তৈরি করে সেই সংস্থাই। তারপরই মোদীর প্রশংসার পঞ্চমুখ হয়েছেন সেরাম কর্তা। তিনি বলেন, ‘এটা স্পষ্ট যে ভারতের জন্য আপনি যে প্রস্তুতি নিয়েছেন, তা ভারতীয়দের সব প্রয়োজনীয়তা মেটাবে।’

যদিও শনিবার দুপুরেই সেরাম কর্তা প্রশ্ন তুলেছিলেন, আগামী এক বছরে প্রত্যেক ভারতীয়কে করোনা টিকা দেওয়ার জন্য যে অর্থের প্রয়োজন, তা কেন্দ্রের কাছে থাকবে কিনা। তিনি বলেছিলেন, বলেন, 'দ্রুত প্রশ্ন; আগামী এক বছরে ভারত সরকারের কাছে কি ৮০,০০০ কোটি টাকা থাকবে? কারণ টিকা কিনতে এবং ভারতের প্রত্যেকের কাছে পৌঁছে দিতে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের ওই পরিমাণ অর্থ লাগবে। এটাই আগামিদিনের উদ্বেগজনক চ্যালেঞ্জ। যা আমাদের সামলাতে হবে।' সেই টুইটে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়কেও ট্যাগ করেছিলেন তিনি।

পরে অবশ্য আরও একটি টুইটবার্তায় পুনাওয়ালা বলেছিলেন, 'আমি এই প্রশ্নটা করেছিলাম, কারণ টিকা জোগাড় ও বণ্টনের ক্ষেত্রে দেশের প্রয়োজনীয়তা পূরণের জন্য ভারত ও বিদেশের টিকা উৎপাদনকারীদের সঙ্গে পরিকল্পনা ও তাদের পথ দেখাতে হবে আমাদের।'

বন্ধ করুন