বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > দু'দেশের নয়া করোনা প্রজাতির সন্ধান, বিদেশফেরত যাত্রীদের জন্য জারি নয়া বিধি
দু'দেশের নয়া করোনা প্রজাতি সন্ধান, বিদেশফেরত যাত্রীদের জন্য জারি নয়া বিধি। (ফাইল ছবি, সৌজন্য রয়টার্স)
দু'দেশের নয়া করোনা প্রজাতি সন্ধান, বিদেশফেরত যাত্রীদের জন্য জারি নয়া বিধি। (ফাইল ছবি, সৌজন্য রয়টার্স)

দু'দেশের নয়া করোনা প্রজাতির সন্ধান, বিদেশফেরত যাত্রীদের জন্য জারি নয়া বিধি

উড়ানের ৭২ ঘণ্টা আগে করা আরটিপিসিআর পরীক্ষায় করোনা রিপোর্ট নেগেটিভ থাকতে হবে।

দক্ষিণ আফ্রিকা এবং ব্রাজিল থেকে আসা যাত্রীদের পরীক্ষা করে নয়া প্রজাতির করোনা সংক্রমণ ধরা পড়েছে। তারপরই বিদেশ থেকে ভারতে আসা বিমানযাত্রীদের জন্য নয়া বিধি তৈরি করে দিল কেন্দ্রীয় অসামরিক বিমান পরিবহণ মন্ত্রক। এই নয়াবিধি বা স্ট্যান্ডার্ড অপারেটিং প্রসিডিওর অনুযায়ী, আগামী ২৩ ফেব্রুয়ারি থেকে ভারতে আসতে হলে করোনা পরীক্ষার নেগেটিভ রিপোর্ট দেখানো বাধ্যতামূলক করা হচ্ছে। এমনকী দেখাতে হবে যাত্রী কোথায় কোথায় গিয়েছেন। আর উড়ানের ৭২ ঘণ্টা আগে করা আরটিপিসিআর পরীক্ষায় করোনা রিপোর্ট নেগেটিভ থাকতে হবে।

করোনা সংক্রমণের নয়া প্রজাাতিই অনেক দেশেই ছড়াচ্ছে। এই পরিস্থিতিতে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের সঙ্গে বৈঠকে বসেছিল অসামরিক বিমান পরিবহণ মন্ত্রক। ওই বৈঠকের পরই এই নয়াবিধি বা এসওপি তৈরি করা হয়েছে বলে সরকারি টুইটারে বিবৃতি দিয়ে জানানো হয়েছে। নয়া গাইডলাইন অনুযায়ী, প্রত্যেক যাত্রীকে দিল্লি বিমানবন্দরের নির্দিষ্ট পোর্টালে মুচলেকা দিতে হবে এবং ১৪ দিনের ভ্রমণ ইতিহাসও জানাতে হবে। মধ্য এশিয়া বাদে সমস্ত দেশ থেকে আসা যাত্রীদের মেনে চলতে হবে নতুন নিয়ম। কোভিড রিপোর্ট নেগেটিভ হলে তবেই মিলবে উড়ানে ওঠার অনুমতি।

ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অফ মেডিক্যাল রিসার্চ (আইসিএমআর) প্রধান বলরাম ভার্গব জানান, এই নয়াবিধি তৈরি করেছে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রক। এটা জানিয়েছে অসামরিক বিমান পরিবহণ মন্ত্রক। দক্ষিণ আফ্রিকার চারজন এবং ব্রাজিলের একজনের শরীরে এই নয়া প্রজাতির করোনা সংক্রমণ দেখা গিয়েছে। যদিও এই নিয়মে ছাড় দেওয়া হয়েছে সেই সব যাত্রীদের, যাঁরা কোনও নিকটজনের মৃত্যুর কারণে বিমান যাত্রা করছেন।

বন্ধ করুন