বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Covid-19 vaccination: বিক্ষিপ্তভাবে হোঁচট Co-WIN অ্যাপের, বাংলার কয়েকটি স্থানে হাতেকলমে নথিভুক্তিকরণ
কলকাতা মেডিক্যাল কলেজ এবং হাসপাতালে প্রদান করা হচ্ছে করোনা টিকা। (ছবি সৌজন্য পিটিআই)
কলকাতা মেডিক্যাল কলেজ এবং হাসপাতালে প্রদান করা হচ্ছে করোনা টিকা। (ছবি সৌজন্য পিটিআই)

Covid-19 vaccination: বিক্ষিপ্তভাবে হোঁচট Co-WIN অ্যাপের, বাংলার কয়েকটি স্থানে হাতেকলমে নথিভুক্তিকরণ

  • পুরোপুরি এড়ানো গেল না বিভ্রাট।

একাধিকবার মহড়া চলেছে। তা সত্ত্বেও পুরোপুরি এড়ানো গেল না বিভ্রাট। করোনাভাইরাস টিকাকরণ প্রক্রিয়া শুরুর দিনে দেশে কয়েকটি জায়গা থেকে বিক্ষিপ্তভাবে কো-উইন অ্যাপের হোঁচট খাওয়ার খবর মিলল। সফটওয়্যার জনিত সমস্যার কারণে পশ্চিমবঙ্গের কয়েকটি জায়গায় কাজ করছে না কেন্দ্রের সেই অ্যাপ। কো-উইন অ্যাপে গোলযোগের কারণে মহারাষ্ট্রের থানেতে টিকাকরণ প্রক্রিয়া সাময়িক ব্যাহত হয়েছে বলে খবর মিলেছে। তবে দেশের বেশিরভাগ প্রান্তে স্বাভাবিকভাবেই চলছে কো-উইন অ্যাপ।

ইতিমধ্যে কেন্দ্র জানিয়েছে, যাঁরা করোনাভাইরাস টিকা নেবেন, তাঁদের কো-উইন অ্যাপে নথিভুক্ত করতে হবে। তাতে টিকা প্রাপকদের যাবতীয় তথ্য জমা রাখা হবে। কিন্তু শনিবার টিকাকরণ প্রক্রিয়ার শুরুতে বিভ্রাটের মুখে পড়েছে সেই অ্যাপ। সফটওয়্যারের সমস্যার কারণে বাংলার কয়েকটি জায়গায় টিকাকরণ প্রক্রিয়ায় অ্যাপটি ব্যবহার করা যাচ্ছে না। বাধ্য হয়েই আপাতত হাতেকলমে টিকা প্রাপকদের নথিভুক্তিকরণ, তথ্য জোগাড় করা হচ্ছে।

স্বাস্থ্য দফতরের এক শীর্ষ আধিকারিক বলেন, ‘কিছু প্রযুক্তিগত সমস্যা হচ্ছে। শুক্রবার থেকে অ্যাপটি ঢিমেতালের হয়ে গিয়েছে। শনিবার সকালে যে স্বাস্থ্যকর্মীদের টিকা পাওয়ার কথা ছিল, তাঁদের কাছে সব মেসেজ যাচ্ছে না। যিনি এই বিষয়টির দায়িত্বে আছেন, তাঁকে ফোন করা হয়েছিল এবং তাঁকে পুরো ঘটনাটি জানানো হয়েছে।’ 

শনিবার সকালে রাজ্যের ২০৭ টি কেন্দ্রে টিকাকরণ শুরুর সময় কো-উইন অ্যাপ সমস্যার মুখে পড়েছে। মুর্শিদাবাদের কান্দি মহকুমা হাসপাতালের এক চিকিৎসক বলেন, ‘যাঁরা টিকা পাচ্ছেন, তাঁদের তথ্য (অ্যাপে) আপলোড করার কথা ছিল। কিন্তু অ্যাপটি এত ঢিমেতালে কাজ করছে যে অনেক সময় লাগছে। বাকি সব ঠিকঠাক আছে।’ একই সমস্যার সম্মুখীন হয়েছে দক্ষিণ ২৪ পরগনার একটি হাসপাতালও। সেখানকার এক চিকিৎসক বলেন, ‘অ্যাপ খুলছে না। বারবার লগ-ইন, লগ-আউট করতে হচ্ছে। অত্যন্ত ঢিমেতালে চলছে। হাতকলমে তথ্য সংগ্রহ করা হচ্ছে।’

প্রদান করা হচ্ছে টিকা। (ছবি সৌজন্য রয়টার্স)
প্রদান করা হচ্ছে টিকা। (ছবি সৌজন্য রয়টার্স)

স্বাস্থ্য দফতর সূত্রে খবর, শনিবার করোনাভাইরাস যোদ্ধাদের টিকা প্রদান করা হওয়ায় হাতেকলমে তথ্য জোগাড় করতে সমস্যা হবে না। কারণ আগে থেকেই তাঁদের জমা রাখা ছিল। সেই তথ্য মিলিয়ে দেখছেন ভলান্টিয়ার অফিসাররা। তারপর টিকা প্রদান করা হচ্ছে। যেখানে যেখানে কো-উইন অ্যাপে সমস্যা হচ্ছে, সেখান থেকে সেই সকল তথ্যপঞ্জি স্বাস্থ্য ভবনে পাঠানো হবে। টিকার দ্বিতীয় ডোজ নেওয়ার আগে সেই তথ্য কো-উইন অ্যাপে তুলে দেওয়ার চেষ্টা করা হবে বলে সূত্রের খবর।

সেই বিক্ষিপ্ত বিভ্রাট ছাড়া মোটের উপর নির্বিঘ্নেই রাজ্যে টিকাকরণ চলছে। স্বাস্থ্য দফতরের এক শীর্ষ কর্তা বলেন, ‘কেন্দ্র অ্যাপটি তৈরি করেছে। দায়িত্বপ্রাপ্ত ব্যক্তিকে বিষয়টি জানিয়েছি এবং তিনি তা দেখছেন। কয়েকটি ছোটোখাটো গোলযোগ ছাড়া বাকি সবকিছুই ঠিকঠাকভাবে চলছে। কোনও টিকাপ্রাপকের কোনও পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া হয়নি। সব কেন্দ্রেই মসৃণভাবে চলছে টিকাকরণ প্রক্রিয়া।’

তবে শুধু বঙ্গে নয়, থানেতেও কো-উইন পোর্টালে বিভ্রাটের খবর মিলেছে। থানে সিভিল হাসপাতালের টিকা কেন্দ্রে প্রায় ২০ মিনিট টিকাকরণ প্রক্রিয়া বন্ধ আছে। তখনও মাত্র একজনকে টিকা প্রদান করা হয়েছিল। হাসপাতাল সূত্রে খবর, কো-উইন পোর্টালে কিছু সমস্যা হয়েছে। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত এখনও সেখানে টিকাকরণ শুরু হয়নি। একইভাবে নবি মুম্বই এবং পানভেলে শুরু করা যায়নি টিকাকরণ। সূত্রের খবর, টিকাকরণ প্রক্রিয়া শুরুর জন্য সরকারের থেকে য়ে ওটিপির প্রয়োজন, তা এখনও মেলেনি।

বন্ধ করুন