বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > গ্রামের রাস্তায় দুলকি চালে ঘুরে বেড়াচ্ছে কুমির, ‘অতিথির’ কীর্তির ভিডিয়ো ভাইরাল
গ্রামের রাস্তায় কুমির। (ছবি সৌজন্য পিটিআই)
গ্রামের রাস্তায় কুমির। (ছবি সৌজন্য পিটিআই)

গ্রামের রাস্তায় দুলকি চালে ঘুরে বেড়াচ্ছে কুমির, ‘অতিথির’ কীর্তির ভিডিয়ো ভাইরাল

  • সাত-সকালে গ্রামে হাজির ‘অতিথি’।

সাত-সকালে গ্রামে হাজির ‘অতিথি’। গ্রামের কংক্রিটের রাস্তায় একেবারে বিন্দাস মেজাজে হেঁটে যাচ্ছে। কাউকে অবশ্য বিরক্ত করেনি সে। তবুও কুমির দেখে আতঙ্কিত হয়ে পড়েন গ্রামবাসীরা। শেষপর্যন্ত বন বিভাগের কর্মীরা সেই ‘অতিথি’-কে নদীতে ছেড়ে দেন। কর্নাটকের সেই ভিডিয়ো সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে গিয়েছে।

সংবাদসংস্থা এএনআইয়ের টুইট করা একটি ভিডিয়োয় দেখা গিয়েছে, উত্তর কানাড়া জেলার কোগিলাবান্না গ্রামের রাস্তায় দুলকি চালে হেঁটে যাচ্ছে কুমির। মাঝে কিছুক্ষণ বসেও পরে। অচেনা ‘অতিথি’ গ্রামের সারমেয়রা চিৎকার করতে থাকেন। আতঙ্কিত হয়ে পড়েন স্থানীয়রাও। বনকর্মীরা জানিয়েছেন, গ্রামবাসীরা দাবি করেছেন যে বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে সাতটা নাগাদ গ্রামে ঢুকে পড়ে কুমিরটি। সেটি দেখে ভিড় জমতে থাকে। তবে কুমিরকে কোনওভাবে আঘাত করা হয়নি বলে দাবি গ্রামবাসীদের।

বন বিভাগের তরফে জানানো হয়েছে, সম্ভবত গ্রামের কাছে অবস্থিত কালী নদী থেকে এসেছিল কুমিরটি। দান্দেলির ডেপুটি রেঞ্জ ফরেস্ট অফিসার রাম গৌড়া জানান, কালী নদীতে প্রচুর কুমিরের বাস। নদী থেকে উঠে গ্রামে ঢুকে পড়ার কয়েকটি ঘটনা আগেও সামনে এসেছে। এরকম ঘটনা যথেষ্ট বিরল। কিন্তু গত ছ'মাসে দু'বার নদী থেকে উঠে লোকালয়ে ঢুকে পড়েছে কুমির। প্রথমবার নদীর তীরের কাছে একটি ছাগলকে আক্রমণ করেছিল। দ্বিতীয় ক্ষেত্রে বন বিভাগের চেকপোস্টে হাজির হয়েছিল কুমির। বৃহস্পতিবার কোগিলাবান্না গ্রামে যে কুমিরটি দেখা গিয়েছে, সেটিকে পাকড়াও করা হয়নি। স্রেফ রাস্তা দেখিয়ে নদীতে ফেরত পাঠানো হয়েছে। গৌড়া বলেন, ‘আমরা নিশ্চিত করতে চাইছিলাম যে কেউ কারও যেন ক্ষতি না হয়। সেক্ষেত্রে পালটা আক্রমণ চালাত (কুমির)’।

বন্ধ করুন