বাড়ি > ঘরে বাইরে > Cyclone Nisarga Updates: প্রবল ঘূর্ণিঝড় হিসেবে আছড়ে পড়বে নিসর্গ, মুম্বই ও পার্শ্ববর্তী জেলায় সতর্কতা
প্রবল ঘূর্ণিঝড় হিসেবে আছড়ে পড়বে নিসর্গ (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য হিন্দুস্তান টাইমস)
প্রবল ঘূর্ণিঝড় হিসেবে আছড়ে পড়বে নিসর্গ (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য হিন্দুস্তান টাইমস)

Cyclone Nisarga Updates: প্রবল ঘূর্ণিঝড় হিসেবে আছড়ে পড়বে নিসর্গ, মুম্বই ও পার্শ্ববর্তী জেলায় সতর্কতা

  • আমফানের তুলনায় অনেকটাই গতি কম থাকবে নিসর্গের।

প্রবল ঘূর্ণিঝড় হিসেবে ভারতের পশ্চিম প্রান্তে আছড়ে পড়তে পারে নিসর্গ। তবে আগের থেকে ঝড়ের বেগ কিছুটা কমেছে। একটা সময় ঘণ্টায় ১০৫-১১৫ কিলোমিটার বেগে আছড়ে পড়ার আশঙ্কা থাকলেও এখন ঝড়ের গতি ১০০-র কাছাকাছি থাকবে।

মৌসম ভবনের বুলেটিন অনুযায়ী, সোমবার বিকেল সাড়ে পাঁচটার সময় মুম্বইয়ের দক্ষিণ ও দক্ষিণ-পশ্চিমে ৫৭০ কিলোমিটার দূরে ছিল নিসর্গ। মঙ্গলবার ভোর সাড়ে ৫ টার সময় তা মুম্বইয়ের দক্ষিণ ও দক্ষিণ-পশ্চিমে ৪৯০ কিলোমিটার দূরে রয়েছে। অর্থাৎ উপকূলের দিকে ধেয়ে আসার গতি তেমন বেশি নয়। পাশাপাশি পানজিমের দক্ষিণ-পশ্চিমে ২৮০ কিলোমিটার, এবং সুরাতের দক্ষিণ ও দক্ষিণ-পশ্চিমে ৭১০ কিলোমিটার দূরে আছে নিসর্গ।

আবহাওয়া দফতর জানিয়েছে, আগামী ১২ ঘণ্টায় নিসর্গ ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হবে এবং পরবর্তী ১২ ঘণ্টায় তা প্রবল ঘূর্ণিঝড়ের রূপ ধারণ করবে। আগামী ছ'ঘণ্টায় নিসর্গ উত্তরদিকে যাবে। পরে উত্তর ও উত্তর-পশ্চিম দিকে বাঁক খেয়ে আগামী বুধবার বিকেল নাগাদ হরিহরেশ্বর (মহারাষ্ট্রের রায়গড় জেলায়) এবং দমনের মধ্য দিয়ে উত্তর মহারাষ্ট্র এবং দক্ষিণ গুজরাত উপকূল পার করবে।

স্থলভূমিতে আছড়ে পড়ার সময় নিসর্গের গতিবেগ আমফানের থেকে অনেকটাই কম থাকবে বলে জানিয়েছেন আবহাওয়া বিজ্ঞানীরা। আমফান যেখানে ঘণ্টায় ১৫৫-১৬৫ কিলোমিটার বেগে তাণ্ডব চালিয়েছিল, সেখানে নিসর্গের গতিবেগ ১০০-র কাছাকাছি থাকবে। হাওয়া অফিস জানিয়েছে, বুধবার দুপুরে মহারাষ্ট্রের রত্নাগিরি, সিন্ধুদুুর্গ জেলা এবং গুজরাতের ভালসাদ ও নবসারি জেলায় ঘণ্টায় ৮০-৯০ কিলোমিটার বেগে ঝড় বইবে। কখনও কখনও সেই বেগ ঘণ্টায় ১০০ কিলোমিটারে পৌঁছাতে পারে। সুরাতে অবশ্য ঝড়ের গতি আরও কিছুটা কম থাকবে। সেখানে ঘণ্টায় ৭০-৮০ কিলোমিটার বেগে হাওয়া বইবে। বিকেল সাড়ে পাঁচটার সময় ঝড়ের গতিবেগ হবে ঘণ্টায় ৯০-১০০ কিলোমিটার। কখনও কখনও ঘণ্টায় ১১০ কিলোমিটারে পৌঁছে যাবে।

নিসর্গে ঝড়ের বেগ কমলেও কোনওরকম ঝুঁকি নিতে চাইছে না প্রশাসন। ইতিমধ্যে মুম্বই এবং পার্শ্ববর্তী জেলায় সতর্কতা জারি করা হয়েছে। উপকূলবর্তী পালঘর এবং রায়গড় জেলায় বিশেষ গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে। সেখানকার রাসায়নিক এবং পরমাণু প্ল্যান্টকে সুরক্ষিত রাখতে সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। মহারাষ্ট্রে যে জেলাগুলিতে নিসর্গের প্রভাব পড়তে পারে, সেখানে ইতমধ্যে ১০ টি দলকে মোতায়েন করেছে জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনী (এনডিআরএফ)। ছ'টি দলকে রিজার্ভ হিসেবে তৈরি থাকতে বলা হয়েছে।

নিসর্গ প্রস্তুতি নিয়ে এনডিআরএফের ডিজি এস এন প্রধান জানিয়েছেন, নিসর্গের গতিবেগ যা তাতে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের মধ্যেই থাকবে। তবে সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসেবে মহারাষ্ট্র এবং গুজরাতের উপকূলবর্তী জেলার বাসিন্দাদের সরানো হচ্ছে। 

বন্ধ করুন