বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > দানিশ হলেন দীনেশ, জারিনা হলেন মিথলেশ, ১৮ বছর পর হিন্দু ধর্মে ফিরলেন ১৫ জন
দানিশ হলেন দীনেশ, জারিনা হলেন মিথলেশ, ১৮ বছর পর হিন্দু ধর্মে ফিরলেন ১৫ জন। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই) (PTI)
দানিশ হলেন দীনেশ, জারিনা হলেন মিথলেশ, ১৮ বছর পর হিন্দু ধর্মে ফিরলেন ১৫ জন। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই) (PTI)

দানিশ হলেন দীনেশ, জারিনা হলেন মিথলেশ, ১৮ বছর পর হিন্দু ধর্মে ফিরলেন ১৫ জন

  • চারটি মুসলিম পরিবারের ১৫ জন সদস্য আবার হিন্দু ধর্ম গ্রহণ করলেন।

দানিশ হলেন দীনেশ। জারিনা হলেন মিথলেশ। এভাবেই উত্তরপ্রদেশের মুজফ্ফরনগরের বঘরার চারটি মুসলিম পরিবারের ১৫ জন সদস্য আবার হিন্দু ধর্ম গ্রহণ করলেন। তাঁদের দাবি, ১৮ বছর আগে ভয়ে ধর্ম পরিবর্তন করেছিলেন। এবার স্বেচ্ছায় ধর্মান্তরিত হয়েছেন।

‘হিন্দুস্তান টাইমস’ গ্রুপের ‘লাইভ হিন্দুস্তান’-এর প্রতিবেদন অনুযায়ী, বঘরার যশবীরাশ্রমের পরিচালক ও প্রতিষ্ঠাতা যশবীরজি মহারাজ দাবি করেছেন যে ওই পরিবারের সদস্যরা নিজে থেকেই তাঁর সঙ্গে যোগাযোগ করেছেন। বিনোলি এলাকার ওই ১৫ জন বাসিন্দা সোমবার আশ্রমে এসে আবারও হিন্দু ধর্ম গ্রহণ করিয়ে দেওয়ার আর্জি জানান। সেইমতো বঘরার যশবীরাশ্রমের পরিচালক ও প্রতিষ্ঠাতা আশ্রমেই যাবতীয় আয়োজন করেন। ওই ১৫ জনের ‘শুদ্ধিকরণ’ হয়। গায়ন্ত্রী মন্ত্র জপ করেন ওই ১৫ জন। হোমেরও আয়োজন করা হয়।

‘লাইভ হিন্দুস্তান’-এর প্রতিবেদন অনুযায়ী, পরিবারের সদস্যরা দাবি করেন যে ১৮ বছর আগে এতটাই ভয় দেখানো হয়েছিল যে ধর্ম পরিবর্তন করে নিয়েছিলেন। যে পরিবারের সদস্যরা বিনোলি এলাকায় দিনমজুরির কাজ করেন। এবার পরিবারের পাঁচ পুরুষ, সাত মহিলা এবং তিন মেয়ে হিন্দু ধর্ম গ্রহণ করেছেন।

আশ্রমের ব্যবস্থাপক আচার্য মৃগেন্দ্রের দাবি, ওই ১৫ জনের পরিচয় গোপন রাখা হবে। যাতে তাঁরা আতঙ্কিত না হয়ে পড়েন বা তাঁদের কেউ ভয় দেখাতে না পারেন। সেইসঙ্গে দাবি করেন, হিন্দু ধর্ম গ্রহণ করতে পেরে অত্যন্ত খুশি হয়েছেন পরিবারের সদস্যরা। দীর্ঘদিন ধরেই ‘ঘর ওয়াপসি’ করতে চাইছিলেন। কিন্তু তা সম্ভব হচ্ছিল না। তাঁদের স্বপ্নপূরণ করেছেন যশবীরজি মহারাজ। ১৮ বছর আগে তাঁরা ভয়ের কারণে ধর্ম পরিবর্তন করলেও এবার একেবারে স্বেচ্ছায় হিন্দু ধর্ম গ্রহণ করেছেন বলে দাবি করেছেন আশ্রমের ব্যবস্থাপক।

বন্ধ করুন