দ্বারকার নির্বাচনী জনসভায় নরেন্দ্র মোদী (ছবি সৌজন্য পিটিআই)
দ্বারকার নির্বাচনী জনসভায় নরেন্দ্র মোদী (ছবি সৌজন্য পিটিআই)

Delhi Assembly Election: বিজেপি ঝড়ে অনেকের ঘুম উড়েছে, কটাক্ষ মোদীর

  • এদিনও জাতীয়তাবাদ ভাবাবেগকে হাতিয়ার করেন মোদী। তাঁর অভিযোগ, সার্জিক্যাল স্ট্রাইক, এয়ার স্ট্রাইকের সময় দেশের সুরক্ষা বাহিনীর পাশে দাঁড়াননি বিরোধীরা।

হাতে রয়েছে মাত্র চারদিন। তারপরই ইভিএমে ভাগ্য পরীক্ষা। তার আগে যে গেরুয়া ঝড় উঠেছে, তা দেখে অনেকের রাতের ঘুম উড়ে গিয়েছে বলে দাবি করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

আরও পড়ুন : Delhi Assembly Election ওপিনিয়ন পোল- AAP vs BJP পাল্লা ভারি কার?

মঙ্গলবার দ্বারকায় নির্বাচনী জনসভা করেন প্রধানমন্ত্রী। সেখানে তিনি বলেন, 'গত চারদিন ধরে বিজেপির পক্ষে যে হাওয়া উঠেছে, তাতে অনেকের রাত বিনিদ্র কাটছে।'

আরও পড়ুন : শাহিন বাগ বিক্ষোভের ফলে দিল্লি ভোটে লাভ হবে বিজেপির, ইঙ্গিত দলের অভ্যন্তরীণ সমীক্ষায়

মোদী অভিযোগ করেন, রাজনৈতিক কারণে কেন্দ্রের বিভিন্ন জনকল্যাণমূলক প্রকল্প আটকে দিয়েছে দিল্লির আপ সরকার। তবে মোদীর বিশ্বাস, আগামী ১১ ফেব্রুয়ারির (দিল্লিতে ভোটের ফল ঘোষণার দিন) পর অবশ্য সেই সব প্রকল্প দিল্লিতে চালু হবে।

আরও পড়ুন : হনুমান চালিশা পাঠ করলেন কেজরিওয়াল, স্কুলে দেশভক্তির পাঠ দেবে আপ

মোদী বলেন, 'দিল্লির কোনও ব্যক্তি যদি গোয়ালিয়রে গিয়ে অসুস্থ হয়ে পড়েন তাহলে মহল্লার ক্লিনিক কি সেখানে যাবে? যদি আয়ুষ্মান ভারত চালু করা হত, তাহলে একজন সেখানে (গোয়ালিয়রে) গিয়ে অসুস্থ হয়ে পড়েন, বিনামূল্য তাঁর চিকিৎসা হত। যদি একজনকেও বাঁচানো যায়, তাহলেও সেটা শান্তির হবে। কিন্তু এখানে অমানবিক সরকার রয়েছে, যারা আপনাদের বিষয়ে চিন্তিত নয়।'

আরও পড়ুন : জামিয়া-শাহিনবাগের প্রতিবাদ কাকতলীয় নয়, পিছনে রাজনীতি আছে, দাবি মোদীর

প্রধানমন্ত্রী দাবি করেন, দিল্লিতে এমন একটি সরকারের প্রয়োজন, যারা অন্যদের ঘাড়ে দোষ চাপানোর জন্য সময় নষ্ট করবে না, বরং গরিবদের জন্য কাজ করবে। মোদীর কথায়, '(এমন সরকার) নয়, যারা ঘৃণার রাজনীতি করবে।'

পাশাপাশি, এদিনও জাতীয়তাবাদ ভাবাবেগকে হাতিয়ার করেন মোদী। তাঁর অভিযোগ, সার্জিক্যাল স্ট্রাইক, এয়ার স্ট্রাইকের সময় দেশের সুরক্ষা বাহিনীর পাশে দাঁড়াননি বিরোধীরা। সেজন্য বিরোধীদের বিরুদ্ধে দিল্লির মানুষের মনে ক্ষোভ পুঞ্জীভূত হয়ে আছে। বিষয়টি নিয়ে তিনি জনসভায় উপস্থিত শ্রোতাদের উদ্দেশ্যে প্রশ্ন ছুঁড়ে দেন, 'সেজন্য ওঁদের বিরুদ্ধে রাগ জমে আছে কিনা? সেই রাগ ভোটের দিন প্রকাশ পাবে কিনা?' তাতে সমস্বরে সম্মতি জানান জনসভায় উপস্থিত শ্রোতারা।

বন্ধ করুন