আট তারিখ দিল্লি বিধানসভা নির্বাচন। গতবার ৬৭ আসন পেয়ে একতরফা জিতেছিল আম আদমি পার্টি (আপ)। তারপর অবশ্য পৌরনির্বাচন ও লোকসভায় কার্যত বিজেপির কাছে হাওয়ায় উড়ে যায় আপ। এবার ফের পাঁচ বছর ঘুরে বিধানসভা নির্বাচনের পালা। চূড়ান্ত ফল ১১ ফেব্রুয়ারি পাওয়া যাবে কিন্তু তার আগে বিভিন্ন জনমত সমীক্ষায় কিছুটা আভাস মিলছে কেমন হতে পারে দিল্লি বিধানসভা নির্বাচনের ফল।


টাইমস নাও ও ইপসোসের সমীক্ষায় দেখা যাচ্ছে অনেকটাই এগিয়ে আপ। সমীক্ষার বিচারে আপ ৫৪-৬০ আসন পেতে পারে। অন্যদিকে বিজেপি পেতে পারে ১০-১৪। কংগ্রেসের ভাগ্যে সাকুল্যে দুটি জুটতে পারে।

ভোট শেয়ারেের নিরিখে আপ পাচ্ছে ৫২ শতাংশ, বিজেপি ৩৪ শতাংশ। মজার ব্যাপার হচ্ছে সমীক্ষায় উঠে এসেছে, এখন লোকসভা ভোট হলে ফের ৭-০ জিতবে বিজেপি। এর মানে অনেক ভোটারই কেন্দ্রে মোদী, দিল্লিতে কেজরি মন্ত্রে বিশ্বাস করেন।

তবে এই মুহূর্তের সবচেয়ে বড়ো ইস্যু সিএএ নিয়ে দিল্লিবাসী বিজেপির সঙ্গে। ৭১ শতাংশ মানুষ মনে করেন সঠিক করেছে বিজেপি। অন্যদিকে দক্ষিণ দিল্লির শাহিন বাগে রাস্তা আটকে যেভাবে মহিলারা বিরোধ করছেন, সেটিকেও ভালো চোখে দেখছে না আম দিল্লিবাসী। এতে কিছুটা বিজেপির পালে হাওয়া লাগলেও ভোট শেয়ারে এতটাই এগিয়ে আপ, যে গেরুয়া দলের তেমন সুযোগ নেই বলে সমীক্ষার দাবি।

বিজেপির অভ্যন্তরীণ সমীক্ষায় অবশ্য উঠে এসেছে যে অনেকটা ব্যবধান কমাতে সক্ষম হয়েছে তারা। শাহিন বাগ আন্দোলনের ফলে বিজেপির দিকে হাওয়া ঘুরে গিয়েছে বলে বিজেপি নেতারা মনে করছেন। প্রধানমন্ত্রী সোমবার জনসভায় বলেন শ্রীলমপুর, জামিয়া, শাহিন বাগে প্রতিবাদগুলি পরিকল্পনা মাফিক পরীক্ষা।




বন্ধ করুন