বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > বায়ুদূষণ রুখতে উত্সবের মরশুমে বাজির উপর সম্পূর্ণ নিষেধাজ্ঞ, টুইট মুখ্যমন্ত্রীর
ছবি সৌজন্য পিটিআই
ছবি সৌজন্য পিটিআই

বায়ুদূষণ রুখতে উত্সবের মরশুমে বাজির উপর সম্পূর্ণ নিষেধাজ্ঞ, টুইট মুখ্যমন্ত্রীর

  • তীয় ঢেউ আসার সম্ভাবনা আসার সম্ভাবনার মাঝে করোনা আবহে বায়ুদূষণ বড় চিন্তার কারণ। 

এই বছরও বাজি বিক্রি, ফাটানো বা মজুত করার উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করল দিল্লি সরকার। প্রতি বছরই দীপাবলি এবং পরবর্তী সময়ে শীতকালে দিল্লির বাতাসে দূষণের পরিমাণ বেড়ে যায় কয়েকগুণ। স্বাভাবিক সময়েই সেই দূষণে নাজেহাল পরিস্থিতি হত দিল্লিবাসীদের। তবে করোনা আবহে এই দূষণ আরও বড় চিন্তার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। এই বছরের শেষের দিকে করোনা সংক্রমণের তৃতীয় ঢেউ আসার সম্ভাবনা রয়েছে। বুধবার মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল ঘোষণা করেন, 'গত তিন বছর দীপাবলির মরশুমে বাজি ফাটানোর জেরে দূষণের পরিমাণ অতিরিক্ত ছিল। সেই মাত্রা বিবেচনা করেই দিল্লি সরকার এই বছর সিদ্ধান্ত নিয়েছে যে গতবারের মতো এবছরও বাজির উপর নিষেধাজ্ঞা বহাল থাকবে।'

গতবছর বাজির উপর নিষেধাজ্ঞা অনেক দেরিতে লাগু করা হয়েছিল। এর জেরে অনেক ক্ষতির মুখে পড়তে হয়েছিল বাজি ব্যবসায়ীদের। এই বছর যাতে তাদের সেই ক্ষতির মুখে না পড়তে হয়, সেই কারণেই অনেক আগেই বাজির উপর নিষেধাজ্ঞা জারির ঘোষণা করা হয় সরকারের তরফে। এর আগে গত বছর ৭ নভেম্বর থেকে ৩০ নভেম্বর পর্যন্ত জাতীয় রাজধানী এবং তার আশেপাশের এলাকায় বাজির ওপরে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছিল।

এই বিষয়ে দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল একটি টুইট করে লেখেন, 'গত বছর ব‍্যবসায়ীরা বাজি মজুদ করে নেওয়ার পর, অনেক দেরিতে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছিল। দূষণের ভয়াবহতা বিবেচনা করে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হলেও এর জেরে ক্ষতির মুখে পড়েছিলেন ব‍্যবসায়ীরা‌। সকল ব‍্যবসায়ীদের কাছে আবেদন করছি, এই বছর সম্পূর্ণ নিষেধাজ্ঞা পরিপ্রেক্ষিতে কোনও প্রকার বাজি মজুত করবেন না।'

বন্ধ করুন