তিহাড় জেল (ফাইল ছবি, সৌজন্য হিন্দুস্তান টাইমস)
তিহাড় জেল (ফাইল ছবি, সৌজন্য হিন্দুস্তান টাইমস)

'তিহাড় সব কাগজ দিয়েছে', নির্ভয়ার দোষীদের আইনজীবীর আর্জি খারিজ

দিল্লি পুলিশের আইনজীবী বলেন, তিহাড় জেল কর্তৃপক্ষ প্রাসঙ্গিক সব নথি ইতিমধ্যে দিয়েছে।

রায় সংশোধনী (কিউরেটিভ পিটিশন) ও রাষ্ট্রপতির কাছে প্রাণভিক্ষার আর্জি জানানোর জন্য প্রয়োজনীয় নথি দেয়নি তিহাড় জেল। এই দাবিতে আদালতে গিয়েছিলেন নির্ভয়াকাণ্ডের তিন দোষীর (বিনয় শর্মা, অক্ষয় কুমার ও পবন গুপ্ত) আইনজীবী এ পি সিং। সেই আর্জি খারিজ করে দিল দিল্লির একটি আদালত।

আরও পড়ুন : নির্ভয়া কাণ্ডের সাত বছর- ফাঁসুড়ে হতে চেয়ে বিদেশ থেকে চিঠি তিহাড়ে

অতিরিক্ত দায়রা বিচারক অজয় কুমার জৈন জানান, দণ্ডিতদের আইনজীবীদের কোনও আঁকা ছবি, ডায়েরি বা প্রাসঙ্গিক নথির ছবি তুলতে পারেন।

আরও পড়ুন : নির্ভয়া-দোষীদের ফাঁসির ড্রেস রিহার্সাল হল তিহাড়ে

আজ শুনানির সময় সরকারি আইনজীবী ইরফান আহমেদ জানান, সব প্রাসঙ্গিক নথি ইতিমধ্যে দিয়েছে তিহাড় জেল কর্তৃপক্ষ। ফাঁসির দিন পিছোনোর দোষীরা বারবার আবেদন জানাচ্ছে। তিনি বলেন, 'আমরা ইতিমধ্যে সব নথি দিয়েছি। ওরা যা চেয়েছে, সব নথি দিয়েছে জেল কর্তৃপক্ষ।'

আর পড়ুন : 'মেয়ের মৃত্যু নিয়ে রাজনীতি হচ্ছে', কাঁদতে কাঁদতে বললেন নির্ভয়ার মা

তারপর বিনয় শর্মার একটি ডায়েরি, ছবি ও অন্যান্য নথি আদালতে পেশ করেন সরকারি আইনজীবী। তিনি বলেন, 'আমাদের কাছে এই যা আছে। যদি আদালত নির্দেশ দেয় তাহলে আমরা এখনই সেগুলি দোষীর হাতে তুলে দেব।'

আরও পড়ুন : 'ইন্দিরা জয়সিংয়ের মতো লোকের জন্য ধর্ষণ হয়', কড়া জবাব নির্ভয়ার মা

যদিও দণ্ডিতদের আইনজীবী অভিযোগ করেন, 'বিনয়কে বিষ দিয়ে ধীরে ধীরে মারা হচ্ছিল। সেজন্য তাকে হাসপাতালে পাঠানো হয়। তা নিয়ে একাধিক ছবি এঁকেছিল বিনয়। সেটা আমরা রাষ্ট্রপতিকে জানাতে চাই। সেই ছবিগুলি থেকে ও অর্থ পেয়েছে, সেটাও রাষ্ট্রপতিকে জানাতে চাই।' বিনয়ের মেডিকেল রিপোর্টও দেওয়া হয়নি বলে দাবি তার আইনজীবীর।

আরও পড়ুন : কঙ্গনার তোপের মুখে আইনজীবী ইন্দিরা জয়সিং, বললেন 'এঁরাই ধর্ষকদের জন্ম দেয়'


মান্ডোলি জেলে অপর এক দণ্ডিত পবনের মাথা 'ফাঁকা' হয়ে গিয়েছিল বলে দাবি করেন এ পি সিং। সেজন্য তাকে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছিল। অক্ষয়ের স্বাস্থ্য নিয়েও নথি দেওয়া হয়নি বলে দাবি করেন দোষীদের আইনজীবী।






বন্ধ করুন