মুখ্য নির্বাচন কমিশনার সুনীল অরোরা (ছবি সৌজন্য এএনআই)
মুখ্য নির্বাচন কমিশনার সুনীল অরোরা (ছবি সৌজন্য এএনআই)

এক দফাতে দিল্লি বিধানসভা নির্বাচন, ৮ ফেব্রুয়ারি ভোটগ্রহণ, গণনা ১১ তারিখ

মুখ্য নির্বাচন কমিশনার বলেন, 'যদি কোনও অভাবনীয় পরিস্থিতির তৈরি হয়, তাহলে সবসময় ভোট পিছিয়ে দেওয়ার সুযোগ খোলা রয়েছে। কমিশনকে সেই ক্ষমতা দিয়েছে সংবিধান।'

ঘোষিত হল দিল্লি বিধানসভা নির্বাচনের নির্ঘণ্ট। ৮ ফেব্রুয়ারি ভোটগ্রহণ হবে। ভোটগণনা ১১ ফেব্রুয়ারি।

আজ দিল্লিতে সাংবাদিক বৈঠকে মুখ্য নির্বাচন কমিশনার সুনীল অরোরা বলেন, 'সবপক্ষের সঙ্গে আলোচনার পর তারিখ চূড়ান্ত হয়েছে। আজ থেকেই লাগু হচ্ছে আদর্শ আচরণবিধি।'

JNU-তে তাণ্ডব : রক্তাক্ত পড়ুয়া-অধ্যাপক, ভাঙচুর ক্যাম্পাসে

মুখ্য নির্বাচন কমিশনার জানান, ২২ ফেব্রুয়ারি শেষ হবে দিল্লি বিধানসভার মেয়াদ শেষ। তার আগেই ভোট প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ হবে। তিনি বলেন, '১৪ জানুয়ারি নির্বাচনের বিজ্ঞপ্তি জারি করা হবে। ২১ জানুয়ারি পর্যন্ত মনোনয়নপত্র জমা দেওয়া যাবে। পরদিন মনোনয়নপত্রের স্ক্রুটিনি হবে।'

কমিশন জানিয়েছে, ১ জানুয়ারি পর্যন্ত দিল্লিতে নথিভুক্ত ভোটারের সংখ্যা ১,৪৬,৯২,১৩৬। ১৩,৭৫০ ভোটকেন্দ্র থাকবে। সুষ্ঠুভাবে নির্বাচন প্রক্রিয়া সম্পন্নের জন্য প্রায় ৯০,০০০ ভোটকর্মী মোতায়েন করা হবে।

সাড়া মিলল না বিজেপির উদ্যোগে, সিএএ সমর্থনে বৈঠকে এলেন না বলিউডের শীর্ষ তারকারা

তবে দিল্লির বর্তমান পরিস্থিতিতে কী ভোটগ্রহণ সম্ভব? এনিয়ে মুখ্য নির্বাচন কমিশনার বলেন, 'পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে থাকার বিষয়ে আমরা আশাবাদী। ভোটের জন্য উপযুক্ত পরিবেশ থাকবে। যদি কোনও অভাবনীয় পরিস্থিতির তৈরি হয়, তাহলে সবসময় ভোট পিছিয়ে দেওয়ার সুযোগ খোলা রয়েছে। কমিশনকে সেই ক্ষমতা দিয়েছে সংবিধান।'

নির্ঘণ্ট ঘোষণার পর দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল টুইট করেন, 'কাজের ভিত্তিতে এই নির্বাচন হবে।'


বন্ধ করুন