বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > ‘যৌন সঙ্গমের প্রত্যাশা ভুল নয়, জোর করা ভুল’, মত আদালতের নিরপেক্ষ পরামর্শদাতার
দিল্লি হাইকোর্ট। (ফাইল ছবি, সৌজন্য মিন্ট)
দিল্লি হাইকোর্ট। (ফাইল ছবি, সৌজন্য মিন্ট)

‘যৌন সঙ্গমের প্রত্যাশা ভুল নয়, জোর করা ভুল’, মত আদালতের নিরপেক্ষ পরামর্শদাতার

  • রেবেকা জন বলেন, ‘বিয়েতে যৌন সম্পর্কের প্রত্যাশা থাকবেই। সেই প্রত্যাশা কখনও শাস্তিযোগ্য হতে পারে না।'

যৌন সম্পর্কের প্রত্যাশার ফলে স্বামীর নিজের স্ত্রীর সাথে জোর করে যৌন সম্পর্ক স্থাপন করতে পারেন না। দিল্লি হাই কোর্টে বৈবাহিক ধর্ষণ সম্পর্কিত মামলার শুনানি চলাকালীন এমনই জানান আদালতের নিযুক্ত অ্যামিকাস কিউরি (নিরপেক্ষ পরামর্শদাতা) রেবেকা জন।

রেবেকা জন আদালতে বলেন, ‘প্রত্যাশা থাকা ভুল নয়। উভয় পক্ষের প্রত্যাশা থাকতেই পারে। তবে সেই প্রত্যাশার ফলে স্বামী নিজের স্ত্রীর সাথে জোরপূর্বক সহবাস করতে পারেন না। বিষয়টি প্রত্যাশার নয়; এটি স্ত্রীর উপর তার আধিপত্যের অধিকার প্রয়োগ করা। স্ত্রী যৌন সম্পর্কে রাজি না হলেও তার উপর নিজের কর্তৃত্ব বিস্তার করার চেষ্টা।’

রেবেকা জন বলেন, ‘বিয়েতে যৌন সম্পর্কের প্রত্যাশা থাকবেই। সেই প্রত্যাশা কখনও শাস্তিযোগ্য হতে পারে না। কিন্তু প্রত্যাশার কারণেই অনেক ক্ষেত্রে জবরদস্তি বলপ্রয়োগ করা হয়। বিবাহের বন্ধনে আবদ্ধ বলেই জোর করে শারীরিক সম্পর্ক স্থাপন করা হলে সেটা অবশ্যই অপরাধ হিসেবে গণ্য হওয়া উচিত।’ উল্লেখ্য, ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩৭৫ ধারাকে চ্যালেঞ্জ করে একাধিক পিটিশন জমা পড়ে আদালতে। ওই ধারায় স্ত্রীর বয়স ১৫ বছরের বেশি হলে তার সঙ্গে বলপূর্বক যৌন সঙ্গমকে ব্যাতিক্রম হিসেবে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। অর্থাত যা অপরাধ বলে গণ্য হবে না। আর এই ধারা নিয়েই দীর্ঘদিনের বিতর্ক, আপত্তি।

বন্ধ করুন