বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > অউশভিত্স-এর সঙ্গে তুলনা টেনে সেন্ট্রল ভিস্তা নির্মাণ বন্ধের দাবি, স্থগিত রায়দান
সেন্ট্রাল ভিস্তা প্রকল্প বন্ধ রাখার দাবিতে মামলা (ফাইল ছবি) (HT_PRINT)
সেন্ট্রাল ভিস্তা প্রকল্প বন্ধ রাখার দাবিতে মামলা (ফাইল ছবি) (HT_PRINT)

অউশভিত্স-এর সঙ্গে তুলনা টেনে সেন্ট্রল ভিস্তা নির্মাণ বন্ধের দাবি, স্থগিত রায়দান

  • করোনা ভাইরাস অতিমারীর সময়ে সেন্ট্রাল ভিস্তা প্রকল্প বন্ধ রাখার দাবিতে মামলা দায়ের হয়েছিল দিল্লি হাইকোর্টে।

করোনা ভাইরাস অতিমারীর সময়ে সেন্ট্রাল ভিস্তা প্রকল্প বন্ধ রাখার দাবিতে মামলা দায়ের হয়েছিল দিল্লি হাইকোর্টে। সেই মামলার প্রেক্ষিতে এদিন শুনানি হয় দিল্লি হাইকোর্টে। তবে এদিন এই মামলায় রায়দান স্থগিত রাখল দিল্লির আদালত। দিল্লি হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতি ডিএন প্যাটেল এবং বিচারপতি জ্যোতি সিংয়ের ডিভিশন বেঞ্চ এই মামলাটি শুনছেন।

এদিন মামলার আবেদনকারীদের পক্ষ থেকে আদালতে প্রতিনিধিত্ব করেছিলেন অভিজ্ঞ আইনীজী সিদ্ধার্থ লুথরা। এদিকে কেন্দ্রীয় সরকারের পক্ষে প্রতিনিধিত্ব করেন সলিসিটর জেনারেল তুষার মেহতা। তাছাড়া সেন্ট্রাল ভিস্তা প্রকল্পের বরাত পাওয়া নির্মাণকারী শাপুরজি পালোনজির প্রতিনিধিত্ব করেন মনিন্দর সিং।

এদিন সেন্ট্রাল ভিস্তা প্রকল্পের কাজ চালিয়ে যাওয়ার বিরোধিতা করে আইনজীবী লুথরা বলেন, 'কার্ফু জারি ছিল। এই অবস্থায় সব বন্ধ। হঠাত্ করে আমরা জানতে পারলাম, সময়সীমার কথা উল্লেখ্য করে শাপুরজি পালোনজির কাজ চালিয়ে যাওয়ার অনুমতি চেয়ে একটি চিঠি লেখা হল। এরপর এই কাজের সঙ্গে যুক্ত কর্মী এবং শ্রমিকদের পাস দেওয়া হল। আমরা ভীত যে দিল্লির উদ্যানগুলিতে 'অউশভিত্স'-এ পরিণত হবে।'

এদিকে লুথরার এই যুক্তিকে খণ্ডন করে সরকারি আইনজীবী তুষার মেহতা বলেন, 'ওঁরা কখনই এই প্রকল্পের পক্ষে নয়। জনস্বার্থেক মোড়কে নিজেদের স্বার্থের জন্যে সওয়াল করছেন তাঁরা। তাঁরা কোনও শ্রমিকের বিষয়েই ভাবেন না। সবার অধিকার রয়েছে কোনও কিছুর সমালোচনা করার। তবে আদালতের প্ল্যাটফর্মকে কাজে লাগিয়ে 'অউশভিত্স'-এর মতো টার্ম ব্যবহার করা উচিত নয়। এটি একটি কনসেন্ট্রেশন ক্যাম্প ছিল।'

উল্লেখ্য, বর্তমান পরিস্থিতিতে সেন্ট্রাল ভিস্তার যৌক্তিকতা নিয়ে প্রথম থেকেই প্রশ্ন তুলতে শুরু করেছিল বিরোধীরা। সেই প্রশ্ন আরও জোরদার হয় করোনা আবহে। কোভিডের দ্বিতীয় ঢেউ আছড়ে পড়েছে গোটা দেশে। এই পরিস্থিতিতে বর্তমানে দিল্লিতে জারি হয়েছে লকডাউন। তারপরও নতুন সংসদ ভবন তৈরির সিদ্ধান্ত থেকে সরেনি নরেন্দ্র মোদীর সরকার। এমনকি, অতিমারীর আবহে লকডাউন জারি হলেও যাতে সেন্ট্রাল ভিস্তার নির্মাণকাজ বন্ধ না হয়, তার জন্য এই প্রকল্পকে 'জরুরি পরিষেবা' হিসাবে ঘোষণা করেছে কেন্দ্র। এর বিরোধিতায় সরব হয়েছে বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলি। তাদের দাবি, ভিস্তা প্রকল্পের কাজ স্থগিত রেখে সেই টাকা ব্যয় হোক কোভিড যুদ্ধে। এই আবহে এই মামলা গড়িয়েছে আদালতে।

বন্ধ করুন