বাড়ি > ঘরে বাইরে > কেজরিওয়ালের আপত্তি, দিল্লির কোয়ারেন্টাইন নীতি লঘু করলেন এলজি
দিল্লিতে করোনা পরীক্ষা চলছে (REUTERS)
দিল্লিতে করোনা পরীক্ষা চলছে (REUTERS)

কেজরিওয়ালের আপত্তি, দিল্লির কোয়ারেন্টাইন নীতি লঘু করলেন এলজি

যাদের বাড়িতে উপায় নেই, তাদেরই প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে রাখা হবে, এবার থেকে। 

 চাপের মুখে দিল্লির বাধ্যতামূলক পাঁচদিন প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনের নীতি প্রত্যাহার করলেন দিল্লির লেফটেন্যান্ট গভর্নর অনিল বইজাল। দিল্লির শাসক দল আম আদমি পার্টির তীব্র আপত্তির জেরে শনিবার বিকালে নিজের সিদ্ধান্ত লঘু করার সিদ্ধান্ত নেন বইজাল। প্রসঙ্গত শুক্রবারই বইজাল বাধ্যতামূলক প্রাতিষ্ঠানিক কায়োরেন্টাইনের নিয়মটি চালু করেছিলেন।

বইজাল জানান, যে সব করোনা আক্রান্তদের হাসপাতালে রাখতে হবে না বলে ডাক্তাররা বলবেন  ও তাদের বাড়িতেও কোয়ারেন্টাইন করার জায়গা নেই, সে সব রোগীকে এখন থেকে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে রাখতে হবে। বাকিদের ক্ষেত্রে এই নিয়ম প্রযোজ্য হবে না, সাফ করেন তিনি।   

এর আগে, রাজধানীতে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকা প্রত্যেক বাসিন্দাকে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে ৫ দিনের বাধ্যতামূলক আইসোলেশনে রাখা নিয়ে লেফটেন্যান্ট গভর্নর অনিল বইজলের নির্দেশের বিরোধিতা করেছিলেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল।

শনিবার দুপুরে দিল্লির বিপর্যয় মোকাবিলা দফতরের সঙ্গে বৈঠকে বইজলের নির্দেশের বিরুদ্ধে মন্তব্য করেন কেজরিওয়াল। তিনি বলেন, এই নির্দেশের জেরে মাঝারি ও গুরুতর সংক্রমণে আক্রান্তদের পরিবর্তে মৃদু ও উপসর্গহীন রোগীরাই বেশি গুরুত্ব পাবেন।

বৈঠকে উপস্থিত লেফটেন্যান্ট গভর্নরকে কেজরিওয়াল প্রশ্ন করেন, ‘এই সময় আমাদের দরকার সুস্থতার হার বাড়ানো এবং মৃত্যুহার কমানোর। সে ক্ষেত্রে সংকটাপন্ন রোগীদের প্রতি বেশি গুরুত্ব আরোপ করা উচিত না কি মৃদু উপসর্গ ও উপসর্গহীনদের দিকে নজর বাড়ানো দরকার?’

মুখ্যমন্ত্রী বলেন, যেখানে ICMR মৃদু উপসর্গ ও উপসর্গহীনদের বাড়িতে বিচ্ছিন্ন থাকার নিদান দিচ্ছে, সেখানে দিল্লিতে ভিন্ন নিয়ম পালন করা হবে কেন? বইজলকে তিনি বলেন, এর পর লোকে প্রাতিষ্ঠানিক আইসোলেশনে থাকার ভয়ে করোনা পরীক্ষা এড়িয়ে চলবে।

আপ নেতারাও শনিবার সকাল থেকেই বলতে শুরু করেছিলেন যে তাদের ভোটররা বলছেন ভয় তারা টেস্টই করবেন না কারণ করোনা হলেই তো ধরে নিয়ে যাবে। এই সব আপত্তির জেরে খুব দ্রুতই নিজের সিদ্ধান্ত বদলালেন বইজাল। দিল্লিতে এই মুহূর্তে করোনা আক্রান্ত ৫৩ হাজার। আগামী কিছুদিনে হুহু করে সংখ্যা বাড়তে পারে। তার মধ্যেই একে অপরের প্রতি আস্থার সুন্দর নিদর্শন দেখল রাজধানী। 

বন্ধ করুন