বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > 'দুর্নীতির পর্দা ফাঁস', গোয়ার মুখ্যমন্ত্রীকে পদত্যাগের 'আল্টিমেটাম' তৃণমূলের
ডেরেক ও'ব্রায়েন (ছবি সৌজন্যে টুইটার)
ডেরেক ও'ব্রায়েন (ছবি সৌজন্যে টুইটার)

'দুর্নীতির পর্দা ফাঁস', গোয়ার মুখ্যমন্ত্রীকে পদত্যাগের 'আল্টিমেটাম' তৃণমূলের

  • একের পর এক দুর্নীতির অভিযোগ সামনে আসতেই ডেরেক ও'ব্রায়েন গোয়ার মুখ্যমন্ত্রীকে আল্টিমেটাম দিয়েছেন পদত্যাগ করার।

গোয়া সরকারের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ এনে গোয়ার রাজনীতিতে ঝড় তুলেছেন রাজ্যের প্রাক্তন রাজ্যপাল সত্যপাল মালিক। প্রমোদ সাওয়ান্তের সরকারের বিরুদ্ধে একের পর এক দুর্নীতির অভিযোগের পর গোয়ার বিরোধী দলগুলি প্রমোদ সাওয়ান্তের পদত্যাগের দাবি তুলেছে। কংগ্রেস নেতা এবং বিধানসভায় বিরোধী দলের নেতা দিগম্বর কামাত বলেন যে রাজ্যপালের অভিযোগের পরে সাওয়ান্তের সরকার চালিয়ে যাওয়ার কোনও নৈতিক অধিকার নেই। এদিকে এই আবহে রাজনৈতিক ফায়দা তুলতে ময়দানে ঝাঁপিয়েছে তৃণমূলও। এই বিষয়ে একটি টুইট করে ডেরেক ও'ব্রায়েন গোয়ার মুখ্যমন্ত্রীকে আল্টিমেটাম দিয়েছেন পদত্যাগ করার।

ডেরেক বলেন, 'বিজেপির নিয়োগ করা মেঘালয়ের রাজ্যপাল তথা গোয়ার প্রাক্তন রাজ্যপাল বললেন যে গোয়া সরকার, গোয়ার মুখ্যমন্ত্রী একটি দুর্নীতিগ্রস্ত সরকার চালায়। সব স্তরে এই সরকার দুর্নীতিগ্রস্ত। তিনি (রাজ্যপাল সত্যপাল মালিক) কোভিড, রাস্তা নির্মাণসহ সব বিষয়ে দুর্নীতির কথা বলেছেন। আর এটা বলেছেন কে? বিজেপি সরকারের নিয়োগ করা মেঘালয়ের বর্তমান রাজ্যপাল।'

তৃণমূল নেতা আরও বলেন, 'মেঘালয়ের রাজ্যপাল সেই সময়কার কথা বলছেন যখন তিনি একবছরের জন্য গোয়ায় ছিলেন। আপনারা কী এই পরিস্থিতিটা বুঝতে পারছেন? আর তিনি দাবি করেছেন যে এই কারণে (দুর্নীতি নিয়ে প্রশ্ন করা) তাঁকে মেঘালয়ে পাঠানো হয়। তাঁর (রাজ্যপাল সত্যপাল মালিক) উচিত ছিল বিজেপি সরকারকে ও মুখ্যমন্ত্রীকে বরখাস্ত করা।'

ডেরেকের হুঁশিয়ারি, 'তৃণমূল কংগ্রেস এবং ১৫ লক্ষ গোয়াবাসীর তরফে আমাদের দাবি যে গোয়ার মুখ্যমন্ত্রীকে পদত্যাগ করতে হবে আগামী ৭২ ঘণ্টার মধ্যে। সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতির তত্ত্বাবধানে উচ্চ স্তরের বিচার বিভাগীয় তদন্ত করতে হবে এই অভিযোগের। এটা খুবই গুরুতর একটা বিষয়। আমার মনে হয় না ১৯৪৭ সালে দেশ স্বাধীন হওয়ার পর এমন কোনও ঘটনা ঘটেছে। একজন রাজ্যপাল মুখ্যমন্ত্রীর দুর্নীতির প্রসঙ্গে মুখ খুলেছেন।'

বন্ধ করুন