সুপ্রিম কোর্টের প্রাক্তন প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈকে রাষ্ট্রপতি রাম নাথ কোবিন্দ রাজ্য সভার সদস্য হিসেবে মনোনীত করেছেন। ছবি সৌজন্যে পিটিআই। (PTI)
সুপ্রিম কোর্টের প্রাক্তন প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈকে রাষ্ট্রপতি রাম নাথ কোবিন্দ রাজ্য সভার সদস্য হিসেবে মনোনীত করেছেন। ছবি সৌজন্যে পিটিআই। (PTI)

বিচারপতি নিয়োগের ক্ষেত্রে সরকার হস্তক্ষেপ করেনি-প্রাক্তন সুপ্রিম কোর্টের মুখ্য বিচারপতি রঞ্জন গগৈ

কলেজিয়াম প্রক্রিয়া বিচারপতি নির্বাচনের জন্য খুব ভালো, বলেন গগৈ। 

রাজ্যসভার সাংসদ ও প্রাক্তন চিফ জাস্টিস অফ ইন্ডিয়া (সিজেআই) রঞ্জন গগৈ বলেছেন যে বিচারপতি নিয়োগের ক্ষেত্রে তিনি কোনও সরকারি হস্তক্ষেপের সম্মুখীন হননি। বুধবার গগৈ জানান যে কলেজিয়াম স্বাধীন ভাবে হাইকোর্ট ও সুপ্রিম কোর্টের জন্য বিচারপতি বাছাই করেছ। স্বাধীন বিচারব্যবস্থা সংক্রান্ত একটি ওয়েবিনারে অংশ নিয়ে এই কথা বলেন তিনি। 

সুপ্রিম কোর্টের প্রাক্তন মুখ্য বিচারপতি বলেন তাঁর আমলে ১৪টি নাম সুপারিশ করা হয়েছিল শীর্ষ আদালতে বিচারপতি হওয়ার জন্য। সেগুলিতে নিয়োগ সময়মতো হয়। একই সঙ্গে হাইকোর্টের জন্য যা সুপারিশ ছিল, সেগুলিও সময়মতো প্রসেস হয়ে যায়। কোনও সরকারি হস্তক্ষেপ ছিল না। 

বিচারপতি নিয়োগের ক্ষেত্রে কলেজিয়াম সিস্টেম অত্যন্ত ভালো বলে মত দেন তিনি। তিনি বলেন এতে সরকারি হস্তক্ষেপ থেকেও বাঁচা যায়। 

বিচারকদের জন্য নিরাপত্তা আরও বৃদ্ধি করা উচিত যাতে তারা নির্ভয়ে কাজ করতে পারেন, বলেন গগৈ। তিনি বলেন যে বিচারক হওয়ার সঙ্গে যে নানান ঝুঁকি জড়িয়ে আছে, তার ফলেই এই কাজ করতে চাইছেন না উকিলরা। তিনি বলেন যে উকিল থেকে বিচারক হওয়ার জন্য যে আত্মত্যাগ করতে হয়, তা ভুললে চলবে না। 

এক শ্রেণির সমাজকর্মী ও মিডিয়াকেও একহাত নেন তিনি। গগৈ বলেন যে কিছু সমাজসেবী, ওয়েব পোর্টাল ও মেইনস্ট্রিম মিডিয়া এখন চিহ্নিত করছে কারা কারা  ‘ স্বাধীন বিচারক’। গগৈ বলেন যে এই শ্রেণির একটা প্রত্যাশা আছে বিচারকদের থেকে। সেটি পূর্ণ না হলেই তাদের আক্রমণ করা হয়। এটির দ্বারা বিচারব্যবস্থার স্বাধীনতা ধ্বংস হচ্ছে বলে জানান প্রাক্তন সিজেআই। 

 

 

বন্ধ করুন