বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > ভিন্ন ধর্মাবলম্বীদের ভিন্ন আইন অনুসরণ দেশের ঐক্যের জন্য ক্ষতিকর: কেন্দ্র
দিল্লি হাইকোর্ট। (ফাইল ছবি, সৌজন্য মিন্ট)

ভিন্ন ধর্মাবলম্বীদের ভিন্ন আইন অনুসরণ দেশের ঐক্যের জন্য ক্ষতিকর: কেন্দ্র

  • দিল্লি হাই কোর্টে জমা দেওয়া হলফনামায় কেন্দ্রের তরফে অভিন্ন দেওয়ান নিধির পক্ষে সওয়াল করা হল।

বিভিন্ন ধর্মের লোকেরা যেভাবে বিভিন্ন ব্যক্তিগত আইন অনুসরণ করে, তা দেশের ঐক্যের জন্য ক্ষতিকর। ভারতে অভিন্ন সিভিল কোডের প্রয়োজনীয়তাকে সমর্থন করে দিল্লি হাই কোর্টকে এমনটাই বলল কেন্দ্র। এই বিষয়ে হলফনামায় কেন্দ্রের তরফে বলা হয়, ‘বিভিন্ন ধর্ম ও সম্প্রদায়ের নাগরিকরা বিভিন্ন সম্পত্তি এবং বৈবাহিক আইন মেনে চলে, যা জাতির ঐক্যের অবমাননা।’

সংবিধানের অনুচ্ছেদ ৪৪ নম্বর ধারা উদ্ধৃত করে কেন্দ্র দাবি করে যে, রাজ্যের দায়িত্ব সারা দেশে অভিন্ন দেওয়ান নিধি লাগুর বিষয়টি নিশ্চিত করা। কেন্দ্র জানায়, এই বিধানের উদ্দেশ্য হল ‘ধর্মনিরপেক্ষ গণতান্ত্রিক প্রজাতন্ত্র’ স্থাপন করা। হলফনামায় কেন্দ্রের তরফে বলা হয়, ‘বর্তমানে বিভিন্ন সম্প্রদায়ের দ্বারা যেসকল ব্যক্তিগত আইন প্রয়োগ করা হয়, তা নিয়ন্ত্রণ করে ভারতের একীকরণকে কার্যকর করাই হল এই বিধানের আসল উদ্দেশ্য।’

কেন্দ্রের তরফে আরও বলা হয়েছে যে অনুচ্ছেদ নম্বর ৪৪ সামাজিক সম্পর্ক এবং ব্যক্তিগত আইন থেকে ধর্মকে বিচ্ছিন্ন করে বিবাহ, বিবাহবিচ্ছেদ, উত্তরাধিকার, রক্ষণাবেক্ষণ, হেফাজত, সন্তানদের অভিভাবকত্ব এবং দত্তক নেওয়ার মতো বিষয়ে সকল নাগরিকের জন্য সাধারণ আইন লাগুর কথা বলে। কেন্দ্রীয় আইন মন্ত্রকের মাধ্যমে দাখিল করা হলফনামায় বলা হয়েছে যে অভিন্ন দেওয়ান নিধির গুরুত্ব এবং সংবেদনশীলতা বিবেচনা করে অভিন্ন দেওয়ান নিধির বিষয়টি বিস্তৃত পরামর্শের জন্য আইন কমিশনের কাছে পাঠানো হয়েছে। আইন কমিশনের চূড়ান্ত প্রতিবেদন পাওয়ার পরেই সরকারের তরফে স্টেকহোল্ডারদের সাথে এই বিষয়ে পরামর্শ করা হবে।

বন্ধ করুন