বার বার দাবি জানিয়েও বকেয়া বেতন পাননি কর্মীরা।
বার বার দাবি জানিয়েও বকেয়া বেতন পাননি কর্মীরা।

শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সব কর্মীর বকেয়া বেতন মেটাতে হবে, AICTE-এর নির্দেশ

  • বর্তমান পরিস্থিতির অজুহাত দিয়ে কর্মীদের বেতন বন্ধ করতে পারবে না কারিগরি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলি।

সব ইঞ্জিনিয়ারিং ও কারিগরি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানকে তাদের সমস্ত কর্মীর বেতন মিটিয়ে দেওয়ার নির্দেশ দিল অল ইন্ডিয়া কাউন্সিল ফর টেকনিক্যাল এডুকেশন (AICTE)। 

দেশজুড়ে বেশ কিছু ইঞ্জনিয়ারিং কলেজের শিক্ষক-অশিক্ষক কর্মীদের বেতন দিতে দেরি হচ্ছে বলে এর আগে অভিযোগ পাওয়া যায়। তারপরই এই নির্দেশ দিল AICTE।

AICTE-র তরফে এক বিজ্ঞপ্তি জারি করে বলা হয়েছে, বর্তমান পরিস্থিতির অজুহাত দিয়ে কর্মীদের বেতন বন্ধ করতে পারবে না কারিগরি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলি।

কাউন্সিল জানিয়েছে, লকডাউনের কারণে দেশজুড়ে এখন জরুরি অবস্থা চলেছে। এই পরিস্থিতিতে বেতন বন্ধ করার অর্থ কর্মীদের প্রবল চাপ ও অনাহারে দিন কাটানোর দিকে ঠেলে দেওয়া। তাই সমস্ত কারিগরি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানকে এই সংকটের সময়ে কর্মীদের সময় মতো বেতন দিয়ে উদ্বেগ কমানোর আবেদন জানিয়েছে AICTE।

বলা হয়েছে, যে সব শিক্ষক ও অশিক্ষক কর্মী ফেব্রুয়ারি ও মার্চ মাসের বেতন পাননি, তাঁদের বকেয়া বেতন অবিলম্বে মিটিয়ে দিতে হবে।

করোনা সংক্রমণের এই অভূতপর্ব পরিস্থিতিতে কলেজ ছাত্রছাত্রীদের সুরক্ষা নিশ্চিত করতে তাদের পাশে দাঁড়িয়েছে AICTE। যে সব শিক্ষার্থী গ্রীষ্মকালীন ইন্টার্নশিপ-এর খোঁজ করছিলেন তাঁদের জীবন বিপন্ন করার ঝুঁকি এড়িয়ে যাওয়ার জন্য গত এপ্রিল মাসেই আর্জি জানিয়েছিল AICTE।

বন্ধ করুন