বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > হাসপাতাল থেকে দুদিনের শিশুকে টেনে নিয়ে গেল কুকুর, কামড়ে ছিঁড়ে ফেলল শরীর

হাসপাতাল থেকে দুদিনের শিশুকে টেনে নিয়ে গেল কুকুর, কামড়ে ছিঁড়ে ফেলল শরীর

শিশুটিকে কামড়ে মেরে ফেলল কুকুরটি । প্রতীকী ছবি।

রাত ২টো ১৫ নাগাদ তারা দেখেন শিশুটি নেই। হাসপাতালের বিভিন্ন জায়গায় তারা খোঁজাখুজি শুরু করেন। হাসপাতালের বাইরে এসে দেখেন একটি কুকুর শিশুটিকে কামড়ে ধরে রেখেছে। এরপর কুকুরের মুখ থেকে শিশুটিকে ছাড়িয়ে তারা হাসপাতালে নিয়ে আসেন। চিকিৎসকরা শিশুটিকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

শিউরে ওঠার মতোই ঘটনা।হরিয়ানার পানিপতে ২দিন বয়সী একটি শিশুকে হাসপাতাল থেকে টেনে নিয়ে গেল একটি সারমেয়। এরপর কামড়ে, ছিড়ে শেষ করে ফেলল শিশুটিকে। সূত্রের খবর, শিশুটি হার্ট অ্যান্ড মাদার কেয়ার হাসপাতালের জেনারেল ওয়ার্ডে তার কাকিমার পাশে শুয়ে ছিল। সেখান থেকেই কুকুরটি টেনে নিয়ে যায় শিশুটিকে। 

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, শবনম বলে এক মহিলা গত ২৫ জুন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন। ওইদিনই সন্ধ্যা ৮টা ১৫ মিনিট নাগাদ তাঁর একটি পুত্র সন্তান হয়। তাঁর স্বামী আস মহম্মদও সেই সময় হাসপাতালে ছিলেন।

হাসপাতালের একতলায় জেনারেল বেডেই সন্তান নিয়ে ছিলেন তিনি। সোমবার রাতে স্বামী, শাশুড়ি, কাকিমা সকলেই হাসপাতালেই ছিলেন। রাতে সবাই হাসপাতালের মেঝেতে শুয়ে পড়েন। শুধু শবনম বাচ্চাটিকে দুধ খাইয়ে বেডে চলে যান। কাকিমার পাশেই শুয়েছিল শিশুটি।

রাত ২টো ১৫ নাগাদ তারা দেখেন শিশুটি নেই। হাসপাতালের বিভিন্ন জায়গায় তারা খোঁজাখুজি শুরু করেন। হাসপাতালের বাইরে এসে দেখেন একটি কুকুর শিশুটিকে কামড়ে ধরে রেখেছে।

এরপর কুকুরের মুখ থেকে শিশুটিকে ছাড়িয়ে তারা হাসপাতালে নিয়ে আসেন। চিকিৎসকরা শিশুটিকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। গোটা ঘটনায় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের ভূমিকা নিয়েও প্রশ্ন উঠছে। সিসি ক্যামেরার ফুটেজে দেখা যাচ্ছে রাত ২টো ০৭ মিনিট নাগাদ কুকুরটি শিশুটিকে মুখে তুলে নিয়ে যাচ্ছে।

বন্ধ করুন