বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Drunk man Urinates on female in Flight: মত্ত হয়ে এয়ার ইন্ডিয়ার উড়ানে বিজনেস ক্লাসে মহিলার গায়ে মূত্র বিসর্জন ব্যক্তির!

Drunk man Urinates on female in Flight: মত্ত হয়ে এয়ার ইন্ডিয়ার উড়ানে বিজনেস ক্লাসে মহিলার গায়ে মূত্র বিসর্জন ব্যক্তির!

মত্ত হয়ে এয়ার ইন্ডিয়ার উড়ানে বিজনেস ক্লাসে মহিলার গায়ে মূত্র বিসর্জন ব্যক্তির (REUTERS)

সম্প্রতি ৭০ বছর বয়সি সেই মহিলা এই গোটা ঘটনা জানিয়ে টাটা গোষ্ঠীর চেয়ারম্যান এন চন্দ্রশেখরনকে একটি চিঠি লেখেন। এরপর ঘটনার তদন্ত শুরু করে এয়ার ইন্ডিয়া। এদিকে এয়ার ইন্ডিয়ার তরফে অভিযুক্ত ব্যক্তিকে 'নো-ফ্লাই' লিস্টে অন্তর্ভুক্ত করার দাবি জানানো হয়েছে সরকারের কাছে।

নিউইয়র্কের জেএফকে আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে নয়াদিল্লিগামী বিমানে এক মহিলা সহযাত্রীর গায়ে মূত্র বিসর্জন করার অভিযোগ উঠেছে ব্যক্তির বিরদ্ধে। ঘটনাটি গত ২৬ নভেম্বর ঘটেছিল। তবে এখন সেই ঘটনাটি প্রকাশ্যে এসেছে। জানা গিয়েছে, অভিযুক্ত ব্যক্তি এই কাণ্ড ঘটানোর সময় মত্ত অবস্থায় ছিলেন। এদিকে দিল্লি বিমানবন্দরে নেমে সেই ব্যক্তি নিজের বাড়ি চলে যান। অভিযোগ, মহিলার তরফে ঘটনা সম্পর্কে কেবিন ক্রুকে অবগত করা হলেও অভিযুক্ত যাত্রীর বিরুদ্ধে কোনও পদক্ষেপ করা হয়নি। জানা গিয়েছে, যে মহিলার গায়ে সেই ব্যক্তি মূত্র বিসর্জন করেছিলেন, তাঁর বয়স ৭০ বছর।

সম্প্রতি ৭০ বছর বয়সি সেই মহিলা এই গোটা ঘটনা জানিয়ে টাটা গোষ্ঠীর চেয়ারম্যান এন চন্দ্রশেখরনকে একটি চিঠি লেখেন। এরপর ঘটনার তদন্ত শুরু করে এয়ার ইন্ডিয়া। এদিকে এয়ার ইন্ডিয়ার তরফে অভিযুক্ত ব্যক্তিকে 'নো-ফ্লাই' লিস্টে অন্তর্ভুক্ত করার দাবি জানানো হয়েছে সরকারের কাছে। এই বিষয়টি নিয়ে সরকারি কমিটি আলোচনা করছে বলে জানা গিয়েছে। শীঘ্রই এই সংক্রান্ত সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হবে বলেও জানা গিয়েছে।

রিপোর্ট অনুযায়ী, এআই-১০২ নং উড়ানে ঘটনাটি ঘটেছে। নিউইয়র্ক বিমানবন্দর থেকে উড়ানটি টেকঅফ করার পর লাঞ্চ দেওয়া হয় যাত্রীদের। এরপর বিমানের লাইট বন্ধ করে দেওয়া যাত্রীদের বিশ্রাম নেওয়ার স্বার্থে। এরপরই অভিযুক্ত ব্যক্তি বৃদ্ধার আসনের সামনে এসে নিজের প্যান্টের জিপ খুলে মূত্র বিসর্জন শুরু করেন। অভিযোগকারী বলেন, সেই ব্যক্তি পুরো মত্ত অবস্থায় ছিলেন। মূত্র বিসর্জন করার পরও অনেকক্ষণ নিজের গোপনাঙ্গ প্রদর্শন করে সেখানেই দাঁড়িয়ে ছিলেন সেই ব্যক্তি। এরপর বাকি যাত্রীরা প্রতিবাদ শুরু করলে সেই অভিযুক্ত সেখান থেকে চলে যান। তার আগে অবশ্য সেই বৃদ্ধার শরীর, জামা কাপড়, জুতো, ব্যাগ, আসন সেই অভিযুক্তের মূত্রে ভিজে যায়। এরপরে কেবিন ক্রু সেই বৃদ্ধাকে কিছু জামাকাপড় দেয়। তবে অন্য আসন ফাঁকা না থাকায় সেই মূত্রে ভেজা আসনেই যাত্রীকে বসতে হয়। আসনের ওপর দিয়ে একটি চাদর বিছিয়ে দিয়েছিলেন এক কেবিন ক্রু।

বন্ধ করুন