বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > হিন্দু না হলে প্রবেশ নিষিদ্ধ, দুর্গাপুজোর মণ্ডপে ফতোয়া বিশ্ব হিন্দু পরিষদের
প্রতীকী ছবি : সৌমিক মজুমদার (Soumick Majumdar)
প্রতীকী ছবি : সৌমিক মজুমদার (Soumick Majumdar)

হিন্দু না হলে প্রবেশ নিষিদ্ধ, দুর্গাপুজোর মণ্ডপে ফতোয়া বিশ্ব হিন্দু পরিষদের

  • ভিএইচপি ক্ষমতাসীন ভারতীয় জনতা পার্টির (BJP) আদর্শ উপস্থাপক এবং রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সংঘের সহযোগী।

হিন্দু মহিলাদের হয়রানি হতে পারে। তাই গরবার সময়ে হিন্দু বাদে অন্য ধর্মের কারও মণ্ডপে প্রবেশ নিষিদ্ধ। মধ্যপ্রদেশের রতলম জেলার প্রায় সব পুজোর মণ্ডপে এমনই পোস্টার সাঁটল বিশ্ব হিন্দু পরিষদ (VHP)।

VHP-র ধর্ম প্রসার শাখার ইনচার্জ চন্দন শর্মা বলেন, 'প্রতি বছর অন্য সম্প্রদায়ের কিছু অসত্ ব্যক্তি গরবার সময়ে ইচ্ছা করে আসেন। তাঁরা হিন্দু মহিলাদের উত্ত্যক্ত করেন। কুরুচিকরভাবে ভিডিয়ো বানান। সেই কারণেই এমন পোস্টার।' চন্দন শর্মা জানান, এবারে কোনও এমন অব্যবস্থা হতে দেবে না বিশ্ব হিন্দু পরিষদ। পরিচয়পত্র ছাড়া গরবার সময়ে মণ্ডপে প্রবেশ করতে দেওয়া হবে না। এ বিষয়ে জানানো হয়েছে প্রশাসনকেও। তবে বাকি সময়ে অন্য ধর্মের ব্যক্তিদের প্রবেশে কোনও বাধা নেই।

বিশ্ব হিন্দু পরিষদের পোস্টারকে স্বাগত জানিয়েছেন সেখানকার পুজোর আয়োজকরাও। মা অম্বি দুর্গা উৎসব সমিতির সভাপতি ময়ূর পুরোহিত বলেন, 'আমরা কোনও অপ্রীতিকর ঘটনা চাই না। তাই পোস্টার লাগাতে দিয়েছি। আমরা সেই সময়ে পরিচয়পত্র যাচাই করেই প্রবেশে অনুমতি দেব।' এদিকে, রতলম জেলার কালেক্টর কুমার পুরুষোত্তম এই বিষয়ে মন্তব্য করতে অস্বীকার করেন। তিনি বলেন, এটি ভিএইচপি এবং আয়োজকের মধ্যেকার বিষয়।

আগামী বছর সমগ্র মধ্যপ্রদেশ জুড়েই এই নীতি কার্যকর করার পরিকল্পনা আছে বিশ্ব হিন্দু পরিষদের। ভিএইচপির নেতা রাজেশ তিওয়ারি বলেন, 'আমরা রাজ্য জুড়ে এই নীতির বাস্তবায়ন করব। কারণ প্রধানত একটি সম্প্রদায়ের মানুষ প্রতিবার হিন্দু সম্প্রদায়ের মহিলাদের সঙ্গে অসভ্যতামো করছে। ধর্মীয় অনুষ্ঠানের পরিবেশ নষ্ট করছে। এমনকী ভুয়ো পরিচয় দিয়ে ধর্ম বদলে বিয়ের জন্যও চাপ দেওয়ার মতো ঘটনা ঘটেছে। এর একমাত্র সুরাহা এটিই।'

বন্ধ করুন