বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > ২০২২ বিধানসভা নির্বাচন : করোনাকালে জনসভা,রোড শো নিয়ে বড় সিদ্ধান্ত কমিশনের
ভারতের নির্বাচন কমিশন(File photo) (HT_PRINT)
ভারতের নির্বাচন কমিশন(File photo) (HT_PRINT)

২০২২ বিধানসভা নির্বাচন : করোনাকালে জনসভা,রোড শো নিয়ে বড় সিদ্ধান্ত কমিশনের

  • রোড শো ও জনসভায় নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ বাড়ানো হল ৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত।

২০২২ সালের বিধানসভা ভোট মহারণে রয়েছে ৫ রাজ্য। উত্তরপ্রদেশ, গোয়া, মনিপুর, পঞ্জাব, উত্তরাখণ্ডে রয়েছে ভোট পর্ব। এদিকে, কোভিডের বাড়বাড়ন্তের মধ্যে ভোট আয়োজন নিয়ে বহু প্রশ্ন উঠছে। সেদিকে তাকিয়ে নির্বাচন কমিশন আগেই জানিয়েছিল, ৫ রাজ্যের ভোটে জনসভা ও রোড শো নিয়ে বিধি নিষেধ।এবার সেই রোড শো ও জনসভায় নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ বাড়ানো হল ৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত।

 আসন্ন বিধানসভা ভোট ঘিরে পাঁচ রাজ্যের জন্য আপাতত জনসভা বা রোডশো ঘিরে নিষেধাজ্ঞা তোলা হবে না বলে শনিবার জানিয়েছে নির্বাচন কমিশন।  এই বিধির মেয়াদ লাগু থাকবে আগামী ৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত। উল্লেখ্য, আগামী ১০ ফেব্রুয়ারি থেকে  ৭ মার্চ পর্যন্ত চলবে পাঁচটি রাজ্যে ভোট।  একদিকে যখন ভোট প্রস্তুতি চলছে, তখন আরেকদিকে রাজ্যগুলিতে হু হু করে বেড়ে যাচ্ছে ওমিক্রন নির্ভর করোনার নয়া স্রোত। এই পরিস্থিতিতে ভোটমুখী পাঁচ রাজ্যের কমিশনারদের সঙ্গে আলোচনায় বসে কমিশন। সেখানেই পরিস্থিতি পর্যালোচনা করে এই জনসভা ও রোড শো ঘিরে নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ বৃদ্ধিক সিদ্ধান্তে উপনীত হয়েছে নির্বাচন কমিশন। তবে নিষেধাজ্ঞার কড়াকড়ির মাঝেও কিছু বিষয়ে ছাড় দিয়েছে কমিশন। জানানো হয়েছে, ঘরের ভিতর ছোট করে কোনও বৈঠক আয়োজনে বাঁধা নেই। এছাড়াও ২০২২ ভোটেপ প্রথম পর্বের আগে সর্বোচ্চ ৫০০ জনকে নিয়ে খোলা জায়গায় ২৮ জানুয়ারি পর্যন্ত সভা করতে পারবে দলগুলি। দ্বিতীয় দফার ভোটের জন্য এই ছাড় রয়েছে ১ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত। এর আগে, ঘরে ঘরে গিয়ে রাজনৈতিক প্রচারে ৫ জন পর্যন্ত উপস্থিতির অনুমতি দেওয়া হয়। এবার ১০ জন পর্যন্ত সেই ছাড়কে বাড়িয়ে দিয়েছে কমিশন।  

এছাড়াও ভিডিয়ো ভ্যান নিয়েও প্রচার চালানো যাবে। সেক্ষেত্রে খোলা জায়গায় সর্বোচ্চ ৫০০ জন দর্শক থাকতে পারবেন বলে জানানো হয়েছে। এর আগে নির্বাচনী নির্ঘণ্ট ঘোষণার সময়ই নির্বাচন কমিশন জানিয়ে দেয় যে করোনা পরিস্থিতিতে ২২ জানুয়ারি পর্যন্ত সমস্ত রাজনৈতিক প্রচারে রোড শো ও জনসভা নিষিদ্ধ করা হবে। এরপর ২২ জানুয়ারি শনিবার সেই নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ ৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত বাড়িয়ে দেওয়া হয়। এছাড়াও ভোটের সময় একাধিক নির্বাচনী বিধি পালনের কথাও উল্লেখ করেছে কমিশন।

 

 

 

বন্ধ করুন