বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > প্রার্থী–তারকা প্রচারকদের উপর চাপ বাড়াল নির্বাচন কমিশন, আরও কড়া হচ্ছে নিয়ম
নির্বাচন কমিশনের দফতর। ফাইল ছবি। সৌজন্যে–এএনআই।
নির্বাচন কমিশনের দফতর। ফাইল ছবি। সৌজন্যে–এএনআই।

প্রার্থী–তারকা প্রচারকদের উপর চাপ বাড়াল নির্বাচন কমিশন, আরও কড়া হচ্ছে নিয়ম

  • করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে তাই আরও কড়া সিদ্ধান্ত নিতে হচ্ছে।

পাঁচ রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচন থেকে শিক্ষা নিয়েছে নির্বাচন কমিশন। তাই আর কোনও ঝুঁকি নিতে চাইছেন না নির্বাচন কমিশনের আধিকারিকরা। তাই আসন্ন ৩০টি বিধানসভা কেন্দ্রের নির্বাচন এবং তিনটি লোকসভা কেন্দ্রের নির্বাচনে সমস্তরকম পদযাত্রা এবং প্রচারকে বাধ্যতামূলক নিষেধাজ্ঞা জারি করতে চলেছে বলে খবর। তবে সেটা শুধু প্রার্থী এবং তারকা প্রচারকদের জন্য।

কেন এই নিষেধাজ্ঞা?‌ নির্বাচন কমিশন সূত্রে খবর, তারকা প্রচারক এবং রাজনৈতিক দলের প্রার্থীরা প্রচার করতে নামছেন তাঁরা নির্বাচনী বিধি ভাঙছেন। করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে তাই আরও কড়া সিদ্ধান্ত নিতে হচ্ছে। এই বিষয়ে নির্বাচন কমিশনের এক আধিকারিক বলেন, ‘‌নির্বাচন কমিশন পূর্বে যে গাইডলাইন জারি করেছিল তা পরিবর্তন করতে চলেছে। কারণ সেখানের পরিকল্পনায় অনেক ফাঁক থেকে গিয়েছিল। তাই সিদ্ধান্ত নেওয়া হচ্ছে বিধিভঙ্গকারীদের উপর স্থায়ী নিষেধাজ্ঞা জারি করা হবে।’‌

গত এপ্রিল–মে মাসে অসম, পশ্চিমবঙ্গ, তামিলনাড়ু, কেরল এবং পদুচেরীতে ভোট হয়েছিল। তখন দেখা গিয়েছিল, অনেক প্রার্থী এবং তারকা প্রচারক নির্বাচনী বিধি ও কোভিড–বিধি ভেঙে ছিল। এবার আগামী ৩০ অক্টোবর বেশ কয়েকটি জায়গায় ভোট রয়েছে। তাই বাড়তি সতর্কতা নিতেই এই সিদ্ধান্ত নিতে চলেছে নির্বাচন কমিশন বলে সূত্রের খবর।

কোথায় কোথায় নির্বাচন আছে?‌ নির্বাচন কমিশনের তথ্য অনুযায়ী, তিনটি লোকসভা কেন্দ্র দাদরা এবং নগর হাভেলি, দমন ও দিউ। এছাড়া মধ্যপ্রদেশ, হিমাচল প্রদেশে উপনির্বাচন রয়েছে। আর অন্ধ্রপ্রদেশ, হরিয়ানা, মিজোরাম, মহারাষ্ট্র, নাগাল্যান্ড, তেলঙ্গানাতেও উপনির্বাচন আছে। একইসঙ্গে কর্ণাটক, বিহার, রাজস্থান, পশ্চিমবঙ্গ ও অসমেও উপনির্বাচন আছে।

নির্বাচন কমিশন সম্প্রতি একটি বৈঠক করেন। সেখানে ছিলেন সুশীল চন্দ্র, রাজীব কুমার এবং অনুপ চন্দ্র পান্ডে। তাঁরা নিজেদের মধ্যে সমস্যাটি নিয়ে আলোচনা করেন। সেখানে তাঁরা মোটামুটি ঠিক করেন, অন্দরের যে প্রচার হবে সেখানে ৩০ শতাংশ বা ২০০ জনের মধ্যে সীমাবদ্ধ রাখতে হবে। বাইরের প্রচারের ক্ষেত্রে ৫০ শতাংশ বা তারকা প্রচারকদের ক্ষেত্রে কত রাখা হবে তা পরে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

বন্ধ করুন