বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > কয়লা তদন্তে কলকাতা পুলিশের সমন খারিজের দাবিতে আদালতে ইডি
দিল্লি হাইকোর্ট। (ফাইল ছবি, সৌজন্য মিন্ট)
দিল্লি হাইকোর্ট। (ফাইল ছবি, সৌজন্য মিন্ট)

কয়লা তদন্তে কলকাতা পুলিশের সমন খারিজের দাবিতে আদালতে ইডি

  • কয়লা মামলায় ইডি যাতে ঠিকভাবে তদন্ত প্রক্রিয়া চালাতে না পারে, সেজন্য পরিকল্পনা করেই ইডি কাজে বাধা দেওয়ার চেষ্টা করছে কলকাতা পুলিশ।

কলকাতা পুলিশের পাঠানো নোটিশ বাতিলের আবেদন জানিয়ে দিল্লি হাই কোর্টের দ্বারস্থ হল এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট বা ইডি। চলতি সপ্তাহেই এই মামলার শুনানি হতে পারে। কয়লা কাণ্ডে যে ইডি আধিকারিকরা তদন্ত করছেন, তাঁদের নামে সমন পাঠায় কলকাতা পুলিশ। সেই সমনকেই চ্যালেঞ্জ করে আদালতের দ্বারস্থ হয়েছে ইডি।

ইডির তরফে অভিযোগ করা হয়েছে, কয়লা মামলায় ইডি যাতে ঠিকভাবে তদন্ত প্রক্রিয়া চালাতে না পারে, সেজন্য পরিকল্পনা করেই ইডি কাজে বাধা দেওয়ার চেষ্টা করছে কলকাতা পুলিশ। তদন্তকারী সংস্থার মতে, যেহেতু ইডি কয়লা কাণ্ডে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের যোগসূত্র নিয়ে তদন্ত করছে, তাই নানাভাবে সেই তদন্ত প্রক্রিয়ায় বাধা দেওয়ার কাজ চলছে। অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় একজন প্রভাবশালী ব্যক্তিত্ব। তিনি প্রভাব খাটাতে পারেন বলে কেন্দ্রীয় এই তদন্তকারী সংস্থার আশঙ্কা। সেজন্য কলকাতা পুলিশের তরফ থেকে যে সমন ইডি আধিকারিকদের পাঠানো হয়েছে, তা যেন আদালত খারিজ করে দেয়।

কলকাতা পুলিশ সূত্রে খবর, ইডি আধিকারিকদের বিরুদ্ধে এমন কিছু তথ্য তাদের হাতে রয়েছে, যা নিয়ে ওই আধিকারিকদের জিজ্ঞাসাবাদ করা প্রয়োজন। চলতি বছরেই বিধানসভা নির্বাচনের আগে কয়লাপাচার কাণ্ডের অন্যতম অভিযুক্ত ব্যবসায়ী গণেশ বাগারিয়ার সঙ্গে কয়েকজন ইডি অফিসারদের কথোপকথনের অডিও টেপ প্রকাশ্যে আসে। মূলত এই বিষয়ে তদন্তের জন্যই ইডি কর্তাদের ডাকা হয়ে থাকতে পারে বলে ওয়াকিবহাল মহলের মত।এদিকে কয়লা কাণ্ডে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ইডি আধিকারিকরা তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে দিল্লিতে ডেকে পাঠিয়েছিলেন। গত ৮ সেপ্টেম্বর প্রথমবার ৯ ধরে অভিষেককে জিজ্ঞাসাবাদ করে ইডি। এরপর দ্বিতীয়বার তাঁকে ফের ডাকা হয়। কিন্তু অভিষেক হাজিরা দেননি। এরপর তৃতীয়বার ফের অভিষেককে ডেকে পাঠানো হয়েছে। কিন্তু কোনওবারই কলকাতার অফিসে তাঁকে ডাকা হয়নি।

বন্ধ করুন