বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Edible oil prices: ভোজ্য তেলের আমদানিতে কর হ্রাস কেন্দ্রের, খুচরো বাজারে আরও কমতে পারে দাম
ভোজ্য তেলের আমদানিতে কর হ্রাস কেন্দ্রের, খুচরো বাজারে আরও কমতে পারে দাম। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য লাইভ হিন্দুস্তান)

Edible oil prices: ভোজ্য তেলের আমদানিতে কর হ্রাস কেন্দ্রের, খুচরো বাজারে আরও কমতে পারে দাম

  • কর বিশেষজ্ঞদের মতে, কেন্দ্রের সেই সিদ্ধান্তের ফলে ভারতীয় বাজারে ভোজ্য তেলের দাম আরও কমতে পারে।

ভোজ্য তেলের আমদানিতে কর হ্রাস করল কেন্দ্র। আমদানির ক্ষেত্রে টনপিছু প্রায় ১১২ ডলার মার্কিন ডলার পর্যন্ত কর হ্রাস করা হয়েছে। তার ফলে ভারতীয় বাজারে ভোজ্য তেলের দাম কিছুটা কমতে পারে বলে জানালেন বিশেষজ্ঞরা।

একটি বিজ্ঞপ্তি জারি করে সেন্ট্রাল বোর্ড অফ ইনডিরেক্ট ট্যাক্সেস অ্যান্ড কাস্টমস (সিবিআইসি) জানিয়েছে, টনপিছু অপরিশোধিত পাম তেলের আমদানিতে ৮৬ মার্কিন ডলার কর হ্রাস হয়েছে। অপরিশোধিত সয়াবিন তেলের ভিত্তি আমদানিকৃত দামও কমানো হয়েছে। যে নয়া কর গত বৃহস্পতিবার (১৭ জুন) থেকে কার্যকর হয়েছে।

কর বিশেষজ্ঞদের মতে, কেন্দ্রের সেই সিদ্ধান্তের ফলে ভারতীয় বাজারে ভোজ্য তেলের দাম আরও কমতে পারে। এএমআরজি অ্যান্ড অ্যাসোসিয়েটসের সিনিয়র পার্টনার রজত মোহন জানান, ভারতে ভোজ্য তেলের চাহিদা এবং উৎপাদনের মধ্যে বিস্তর ফারাক আছে। তার ফলে ভারতকে প্রচুর পরিমাণে ভোজ্য তেল দাম আমদানি করতে হয়। তার ফলে গত কয়েক মাস খুচরো বাজারে দাম বেড়েছে ভোজ্য তেলের। তবে আমদানিতে কর হ্রাসের প্রভাবে খুচরো বাজারে ভোজ্য তেলের দাম তখনই কমবে, যখন উৎপাদক, বণ্টনকারী এবং খুচরো দোকানদার সেই সুবিধা ক্রেতার কাছে পৌঁছে দিতে চাইবেন।

এমনিতে দেশে ব্যবহৃত দুই-তৃতীয়াংশ ভোজ্য তেল বিদেশ থেকে আমদানি করে ভারত। বিশ্ব বাজারে দাম বৃদ্ধির কারণে গত এক বছরে ভারতের বাজারে ভোজ্য তেলের দাম প্রায় দ্বিগুণ হয়ে গিয়েছে। তারইমধ্যে গত সপ্তাহের বুধবার কেন্দ্রীয় খাদ্য মন্ত্রকের তরফে জানানো হয়েছে, ‘গত এক মাসে ভোজ্য তেলের দাম কমেছে। কয়েকটি ক্ষেত্রে দাম পড়েছে প্রায় ২০ শতাংশ পর্যন্ত।’ সঙ্গে যোগ করা হয়েছে, ‘বিভিন্ন জটিল বিষয়ের উপর ভোজ্য তেলের দাম নির্ভর করে। তার মধ্যে আছে - আন্তর্জাতিক বাজারের দর এবং ঘরোয়া উৎপাদন। দেশে উৎপাদন এবং চাহিদার মধ্যে যেহেতু বড়সড় ফারাক আছে, তাই ভোজ্য তেলের একটা বড় অংশ বিদেশ থেকে আমদানি করতে হয়।’ সেইসঙ্গে ভবিষ্যতে যাতে সেই সমস্যা মেটানো যায়, সেজন্য ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে বলে আশ্বাস দেয় কেন্দ্র।

বন্ধ করুন